রাজশাহীতে বেড়েছে মাছ ও সবজির দাম

112

স্টাফ রিপোর্টার : রাজশাহীর বাজারে বেড়েছে মাছ ও সবজির দাম। তবে অপরিবর্তিত রয়েছে মাংশের দাম। সপ্তা ভেদে মাছে বেড়েছে ৫ থেকে ১০ টাকা। আর সবজিতে বেড়েছে ৩ থেকে ৫ টাকা। এছাড়া ডিমের প্রতি হালিতে বেড়েছে ৫ থেকে সাত টাকা। তবে ব্যবসায়ীরা বলছে, সরবরাহ কম থাকায় বেড়েছে দাম। সরেজমিনে রাজশাহীর সাহেব বাজার এলাকার ব্যবসায়ীরা এমন তথ্য জানায়। দামে স্থিতিশীল রয়েছে, চিনি, ভোজ্যতেল, আটা ও মসলা জাতীয় পণ্যের দাম। বাজারে নদীর মাছে দাম বেড়েছে, প্রতিকেজি বেলে মাছ আকারভেদে ৬০০ থেকে ৮০০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। নদীর চিংড়ি ৪০০ টাকা। নদীর পাবদা ৫০০ থেকে সাড়ে ৫০০ টাকা, মাঝারি শিং ও মাগুর ৫৫০ থেকে ৬৫০ টাকা, প্রতি কেজি ছোট ও মাঝারি চিংড়ি বিক্রি হচ্ছে ৫৫০ থেকে ৭০০ টাকা, ইলিশ প্রতি কেজি ৮০০ থেকে ৯০০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। জাহিদুল নামের এক ক্রেতা বলেন, বাজারে মাছে কেজিতে ১০ থেকে ২০ টাকা বেড়েছে। তিনি আরো বলেন, এখন বর্ষাকাল মাছের দাম কমার কথা। কিন্তু বাজারে মাছের দাম বেশি। এছাড়া রুই-কাতলা আকারভেদে কেজিপ্রতি ২২০ থেকে ৩৫০ টাকা, তেলাপিয়া ১৪০ থেকে ১৬০ টাকা, কই (হাইব্রিড) ১৬০ থেকে ২০০ টাকা, পাঙ্গাশ মাছ ১৩০ থেকে ১৫০ টাকা। মাছ বিক্রেতা রিপন বলেন, বৈশাখ মাস থেকে বাজারে মাছের সরবরাহ কম থাকে। এতে দাম বাড়ে। বর্তমানে বাজারে মাছের সরবরাহ কম। তাই দাম বেশি। বাজারে প্রতিকেজি বেগুন বিক্রি হচ্ছে ৫০ টাকা, পেঁপের ৩৫ টাকা। আলু ১৮ টাকা, মরিচ ৭০ থেকে ৮০ টাকা। লেবু প্রতি হালি ৮ থেকে ১৬ টাকা। এছাড়া বাজারে দেশি পেঁয়াজ কেজিপ্রতি ৩৫ থেকে ৪০ টাকা। এছাড়া গরুর মাংশ ৫২০ থেকে ৫৩০ টাকা। এছাড়া ব্রয়লার মুরগি ১৩০ টাকা কেজি, সোনালী প্রতিকেজি ১৭০ থেকে ১৮০ টাকা, দেশি মুরগি ৩৭০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে।

SHARE