গোদাগাড়ীতে ১৩ কোটি টাকা ব্যায়ে ৫ টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের উদ্বোধন

260

গোদাগাড়ী : রাজশাহী জেলার গোদাগাড়ী উপজেলার প্রায় ১৩ কোটি টাকা ব্যায়ে নির্মিত ৫ টি শিক্ষা প্রতিষ্টানের নতুন ভবন উদ্বোধন করা হয়েছে। শনিবার সারাদিন ব্যাপি উপজেলার বিভিন্ন প্রান্ত ঘুরে এসব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের নির্মিত ভবন ও ভিত্তি প্রস্থর উদ্বোধন করেন রাজশাহী -১ আসনের সাংসদ ও সাবেক শিল্প প্রতিমন্ত্রী আলহাজ্ব ওমর ফারুক চৌধুরী।

উদ্বোধনকৃত শিক্ষা প্রতিষ্টান গুলো হলো তিন কোটি টাকা ব্যায়ে নির্মিত চার তলা বিশিষ্ট বাসুদেবপুর শহিদুন্নেসা উচ্চ বিদ্যালয়, তিন কোটি টাকা ব্যায়ে চারতলা ভিত বিশিষ্ট লস্করহাটি উচ্চ বিদ্যায়ল, তিন কোটি টাকা ব্যায়ে চারতল ভিত বিশিষ্ট চম্পকনগর উচ্চ বিদ্যালয়, তিনকোটি টাকা ব্যায়ে নির্মিত চারতল ভিত বিশিষ্ট মাছমারা উচ্চ বিদ্যালয় ও প্রায় ১ কোটি টাকা ব্যায়ে সুলতানগঞ্জ আল জামিয়াতুল সালাফিয়া আলিম মাদ্রাসার ভিত্তি স্থাপন।

প্রধান অতিথি সাংসদ ওমর ফারুক চৌধুরী সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে বলেন, বর্তমান সরকার উন্নয়ন ও শিক্ষাবান্ধব সরকার। আগামী দিনে দেশের ও নিজের উন্নয়নে আবারও নৌকায় ভোট দিয়ে আওয়ামীলীগের নৌকায় ভোট দিয়ে এই সরকার কে নির্বাচিত করতে হবে।

এই ভবন গুলো বাস্তবায়ন করেছেন রাজশাহী শিক্ষা প্রকৌশল। রাজশাহী জেলা শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তরের সহকারী প্রকৌশলী আব্দুস সামাদ জানান, শিক্ষা ভবন গুলো বর্তমান সরকার ও স্থানীয় সাংসদের একটি বড় সাফল্য। ভবন গুলো তৈরীতে ওই এলাকার শিক্ষার ক্ষেত্র অনন্য দৃষ্টান্ত হয়ে থাকবে বলে জানান।

এই সময় উপস্থিত ছিলেন, গোদাগাড়ী উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি বদিউজ্জামান, সাধারন সম্পাদক আব্দুর রশিদ, গোগ্রাম ইউপি চেয়ারম্যান মো. মজিবুর রহমান সহ স্থানীয় সুধিজন ও নেতাকর্মী।

এদিকে গোদাগাড়ী সুলতানগঞ্জ এলাকায় প্রায় কোটি টাকা ব্যায়ে নির্মিত ব্যায়ে আল জামিয়াতুস সালাফিয়া আলিম মাদ্রাসার ভিত্তি স্থাপনে ওই প্রতিষ্ঠানের সভাপতি মোঃ দুরুল ৯ নং ওয়ার্ডের আওয়ামীলীগ সভাপতি আব্দুল খালেক, সাধারন সম্পাদক জিয়াউল ইসলামসহ যুবলীগ, ছাত্রলীগসহ অন্যান নেতাকর্মীদের এমপির অনুষ্ঠানে ডাক না দেওয়াতে প্রচন্ড ক্ষোভের বর্হিরপ্রকাশ ঘটেছে।

তবে কেউ ডাক না দিলেও সকাল বেলা ওই ওয়ার্ডের আওয়ামীলীগ সাধারণ সম্পাদক জিয়াউল ইসলামের নেতৃত্বেবেশ কিছু নেতাকর্মী নিয়ে উপস্থিত হয়। তবে সেই সময়েও প্রতিষ্টান প্রধান ও সভাপতি কাউকে কিছু জানায়নি। তবে এমপি আসতে দেরী হওয়ায় তাদের প্রতি ক্ষোব রেখে বাড়ী ফিরে যায় ফলে সেখানে নেতাকর্মীদের উপস্থিত কম দেখাযায়। তারা উপস্থিত হলে অনুষ্টানটি আরও প্রাণচাঞ্চল্য হতো বলে নেতাকর্মীরা জানান।

SHARE