কান্তকবি রজনীকান্ত সেনের বিষয় নতুন প্রজন্মের কাছে পৌচ্ছে দিতে হবে

193

স্টাফ রিপোর্টার : পঞ্চকবির অন্যতম কান্তকবি রজনীকান্ত সেনের জন্মদিন উপলক্ষে ২য় কান্তকবি উৎসব উদযাপনের সমাপ্তি অনুষ্ঠান হয়েছে। গত শক্রবার সন্ধ্যায় নগরীর শাহমুখদুম কলেজে কান্তকবি পদক প্রদান, পুরস্কার বিতরণ, সঙ্গীত ও আবৃতি পরিবেশন মাধ্যমে মেলার সমাপনী ঘোষনা করা হয়। কান্তকবি মেলা সভাপতি অর্চনা প্রমানিকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে কান্তকবি পদক গ্রহণ করেন দেশবরেণ্য গণসঙ্গীত শিল্পী ফকির আলমগীর। প্রধান অতিথি থেকে পুরস্কার প্রদান করেন বিশিষ্ঠ সমাজসেবী নগর আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি শাহীন আক্তার রেণী। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিথ ছিলেন, উচ্চাঙ্গ সঙ্গীতশিল্পী ও একুশে প্রদক প্রাপ্ত পন্ডিত অমরেশ রায়চৌধুরি। অনুষ্ঠানে দেশবরেণ্য গণঙ্গগীত শিল্পী ফকির আলমগীর নতুন প্রজন্মের উদ্দেশ্যে এই বাঙ্গালি গানের মাধ্যমে তার বক্তব্য শুরু করেন। তিনি বলেন, আজকে কান্ত কবির পুরস্কার যারা আমায় দিলেন তাদের জন্য হেলাল হাবিরের কবিতা উৎসর্গ করলাম। তোমার জন্য সকাল, দুপুর তোমার জন্য সন্ধ্যা, তোমার জন্য সকল গোলাপ আর রজনী গন্ধা। তিনি বলেন, এখন যৌবন যার যুদ্ধে যাওয়ার সময় তার। এখনে রাজপথে দূরন্ত মিছিল ছুটে আসে কেউ রেসকোর্স ময়দানে বজ্রকন্ঠেভেসে উঠে বঙ্গবন্ধু যেন কবিতার ডেউ। এখন কিন্তু ফাইটা যায়, জইলা যায় এই গুলি দিয়ে হবে না। স্বাধীন বাংলার গানকে আবার গর্জে উঠতে হবে। আজকে স্বাধীন বাংলার গান চাই, ভাষা আন্দোলনের গান চাই নতুন প্রজন্ম এই গানের মাধ্যমে বাংলাদেশকে জানতে শিখবে। অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি শাহীন আক্তার রেণী বলেন, পঞ্চকবির অন্যতম কান্তকবি রজনীকান্ত সেনের বিষয়ে নতুন প্রজন্মের কাছে পৌচ্ছে দিতে হবে। সমাজের নতুন প্রজন্মকে অসাম্প্রদায়িক হিসেবে গড়ে তুলতে হবে। হিন্দু, মুসলমান, খ্রিষ্টান আমরা সবাই বাঙ্গালি সবার শরীরে এক রক্ত। বাঙ্গালি বাঙ্গালির পাশে থেকে নতুন প্রজন্মের জন্য কাজ করে যেতে হবে। অনুষ্ঠানে অন্যনোদের মাঝে উপস্থিথ ছিলেন, কবিকুঞ্জের সাধারণ সম্পাদক আরিফুল হক কুমার, মহিলা পরিষদের সভাপতি কল্পনা রায়, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সাধারণ সম্পাদক দিলিপ কুমার ঘোষ, নাট্যজন কামারুল্লাহ সরকার প্রমুখ। অনুষ্ঠান শেষে কবিতা আবৃতি, নৃত্য, চিত্র আংঙ্কন সঙ্গীত পরিবেশনায় অংশগ্রহণকারীদের মাঝে পুরস্কার ও সার্টিফিকেট বিতরণ করা হয়।

SHARE