পুনর্বাসন ছাড়া উচ্ছেদ উচিত নয়: বাদশা

122

স্টাফ রিপোর্টার : ফুটপাতের ব্যবসায়ীদের পুনর্বাসন না করে উচ্ছেদ করা উচিত নয় বলে মন্তব্য করেছেন বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক ফজলে হোসেন বাদশা। বুধবার সকালে মহান মে দিবস উপলক্ষে আয়োজিত এক শ্রমিক সমাবেশে বক্তব্য দিতে গিয়ে সম্প্রতি রাজশাহী মহানগরীতে চালানো সিটি করপোরেশনের উচ্ছেদ অভিযান নিয়ে তিনি এ মন্তব্য করেন।
বলেন, আজকে ফুটপাতের ব্যবসায়ীদের উচ্ছেদ নিয়ে অনেকে প্রশ্ন করছেন যে আমি হলে কী করতাম। আমি বলেছি, সামনে রোজার মাস। ঈদের মাস। এটা ফুটপাতের ব্যবসায়ীদের দু’পয়সা রোজগারের সময়। আমি দায়িত্বে থাকলে ঈদের আগে তাদের উচ্ছেদ করতাম না। উচ্ছেদ করতে হলে তাদের সঙ্গে আলোচনা করেই পুনর্বাসনের পর করতাম। পুনর্বাসন ছাড়া উচ্ছেদ করাটা মোটেও উচিত নয়।

রাজশাহী মহানগরীর সাহেববাজার জিরোপয়েন্টে এই সমাবেশের আয়োজন করে জাতীয় শ্রমিক ফেডারেশনের জেলা শাখা। প্রধান অতিথির বক্তব্যে ফজলে হোসেন বাদশা আরও বলেন, আমাদের সংবিধানে লেখা আছে রাষ্ট্রের মালিক জনগণ। তাই জনগণকে উপেক্ষা করার কোনো সুযোগ নেই। কিন্তু আজকে ফুটপাত ব্যবসায়ীদের উচ্ছেদ করার মধ্য দিয়ে হাজার হাজার পরিবারকে অর্থনৈতিক অনিশ্চয়তায় ফেলে দেয়া হলো। যে শহরে কল-কারখানা নেই, কর্ম নেই, সে শহরে এ ধরনের উচ্ছেদ কাম্য নয়। উচ্ছেদ করতে হলে আগে তাদের কাজের ব্যবস্থা করতে হবে।

রাজশাহী-২ (সদর) আসনের এই সংসদ সদস্য বলেন, নিউজিল্যান্ডে জঙ্গি হামলা হয়েছে। শ্রীলঙ্কায় হলো। আমাদের এমন কোনো পদক্ষেপ নেওয়া যাবে না যার কারণে অর্থনৈতিক হতাশায় এ দেশের মানুষ জঙ্গিবাদকে প্রশ্রয় দেয়। বাদশা বলেন, আজকে দেশের প্রবৃদ্ধি বাড়ছে। কিন্তু সুবিধা পাচ্ছে ধনীরা। প্রবৃদ্ধি যতি শ্রমজীবি গরীব মানুষের কাজে না লাগে তাহলে সেই অর্জন বৃথা।

মহান মে দিবসের প্রেক্ষাপট তুলে ধরে তিনি বলেন, দেশের শ্রমজীবী মানুষ প্রতিনিয়ত শোষিত হচ্ছে। মনে করার কোনো কারণ নেই যে সরকার শ্রমিকদের অধিকার এমনিতেই বুঝিয়ে দেবে। লড়াই-সংগ্রামের মধ্যে দিয়েই অধিকার অর্জন করতে হবে। তাই শ্রমিকদের ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে। এর মধ্য দিয়ে শ্রমজীবী মানুষের অধিকার আদায়ের লড়াইকে আরও জোরদার করতে হবে।

ওয়ার্কার্স পার্টি শ্রমিকদের পার্টি উল্লেখ করে ফজলে হোসেন বাদশা বলেন, ওয়ার্কার্স পার্টি শ্রমিকদের প্রতিনিধিত্ব করে। শ্রমিকদের অধিকার আদায়ে ওয়ার্কার্স পার্টি আজীবন সংগ্রাম করে এসেছে। এখনও সংগ্রাম চলছে। এমন কোনো শক্তি নেই যে আমাদের দমাতে পারে। ওয়ার্কার্স পার্টি সাহসীদের পার্টি। সাহসীরাই ওয়ার্কার্স পার্টি করে। সুতরাং কোনো শাসক শ্রেণির রক্তচক্ষুকে ওয়ার্কার্স পার্টি পরোয়া করে না। মহান মে দিবসে শ্রমিকের উপযোগী রাষ্ট্র কায়েম করাই আমাদের প্রতিজ্ঞা।

সমাবেশে বিশেষ অতিথি ছিলেন মহানগর ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি লিয়াকত আলী লিকু ও জেলার সভাপতি রফিকুল ইসলাম পিয়ারুল। বক্তব্য দেন- মহানগর ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক দেবাশীষ প্রামানিক দেবু, সম্পাদকমন্ডলীর সদস্য এন্তাজুল হক বাবু, পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য সাদরুল ইসলাম, জাতীয় শ্রমিক ফেডারেশনের জেলা শাখার সিনিয়র সহ-সভাপতি সিরাজুর রহমান খান ও সহ-সভাপতি আবদুর রাজ্জাক। সভাপতিত্ব করেন শ্রমিক ফেডারেশনের জেলার সভাপতি ফেরদৌস জামিল টুটুল। পরিচালনায় ছিলেন সাধারণ সম্পাদক অসিত পাল।

সমাবেশ শেষে নগরীতে একটি বর্ণাঢ্য র‌্যালি বের করা হয়। ওয়ার্কার্স পার্টির সম্পাদক ফজলে হোসেন বাদশা র‌্যালিতে নেতৃত্ব দেন। র‌্যালিটি নগরীর বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে আবার জিরোপয়েন্টে গিয়েই শেষ হয়। র‌্যালিতে ওয়ার্কার্স পার্টি ও এর সহযোগী সংগঠনের বিভিন্ন স্তরের নেতাকর্মীরা অংশ নেন।

SHARE