রাজশাহীতে এপ্রিলেই ১৫ নারী ও শিশু নির্যাতনের শিকার

146

স্টাফ রিপোর্টার : রাজশাহীতে গত এক মাসে (এপ্রিল ২০১৯) ১৫ জন নারী ও শিশু নির্যাতনের শিকার হয়েছেন। এর মধ্যে ৬টি নারী ও ৯টি শিশু নির্যাতনের ঘটনা ঘটে। এপ্রিল মাসের স্থানীয় ও জাতীয় সংবাদপত্রসমূহ এবং এসিডি’র নিজস্ব প্রাপ্ত তথ্যের উপর ভিত্তি করে এই জরিপ পরিচালিত হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার বিকালে রাজশাহীর বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা ‘এ্যাসোসিয়েশন ফর কম্যুনিটি ডেভেলপমেন্ট-এসিডি’ এর ‘রিসার্চ, ডকুমেন্টেশন এন্ড পাবলিকেশন ইউনিট’ থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তি থেকে এ তথ্য জানা গেছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, গত ২ এপ্রিল বাঘায় শিশু বলাৎকারের অভিযোগ, ৩ এপ্রিল নগরীতে ১৮ বছর বয়সী এক যুবকের আত্মহত্যা, ৪ এপ্রিল তানোরে চান্দুরিয়া ইউপি চেয়ারম্যানের স্ত্রীর আত্মহত্যার চেষ্টা, ৬ এপ্রিল নগরীতে গলায় ফাঁস দিয়ে গৃহবধূর আত্মহত্যার চেষ্টা, বাগমারার তাহেরপুরে গত ১৬ এপ্রিল ১২ বছরের এক স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ, নগরীতে ১৮ এপ্রিল স্কুলছাত্রীকে হত্যার হুমকি, ২১ এপ্রিল কিশোরীকে ধর্ষণের চেষ্টায় স্বামীকে পুলিশে দেয় স্ত্রী, ২৭ এপ্রিল যৌতুকের দাবিতে বাগমারায় গৃহবধূতে হত্যা এবং ৩০ এপ্রিল বাঘায় অভিমানে স্কুলছাত্রীর আত্মহত্যা।

জেলায় এ মাসে ০৬টি নারী নির্যাতনের মধ্যে মহানগরীর থানাগুলোতে সংঘটিত হয়েছে ০২টি এবং মহানগরীর বাইরের থানাসমূহে সংঘটিত হয়েছে ০৪টি নির্যাতনের ঘটনা। এরমধ্যে বাগমারায় ১টি, দূর্গাপুরে ১টি, তানোরে ১টি ও বাঘায় ১টি নারী নির্যাতনের ঘটনা ঘটে। এসব ঘটনার মধ্যে আত্মহত্যা ১টি, আত্মহত্যার চেষ্টা ৩টি, হত্যা ১টি এবং ধর্ষণের ঘটনা ঘটে ১টি।

রাজশাহী জেলায় এ মাসে শিশু নির্যাতনের ঘটনা ঘটে ৯টি। এর মধ্যে মহানগরীর থানাগুলোতে সংগঠিত হয়েছে ৩টি এবং মহানগরীর বাইরের থানাগুলোতে সংঘটিত হয়েছে ০৬টি। এর মধ্যে বাগমারায় ০১টি, বাঘায় ২টি, মোহনপুরে ১টি, পুঠিয়ায় ২টি শিশু নির্যাতনের খবর পাওয়া গেছে। এসব ঘটনার মধ্যে ধর্ষণের ঘটনা ৪টি, ধর্ষণের চেষ্টা ২, অপহরণ ১টি, আত্মহত্যা ১টি এবং নিখোঁজের ঘটনা ঘটে ১টি।

SHARE