অগ্নি নিরাপত্তায় ঝুঁকিপূর্ণ দুই মার্কেট

275

স্টাফ রিপোর্টার : রাজশাহী নগরীর সবচেয়ে বড় দুই অভিজাত মার্কেট অগ্নি নিরাপত্তায় খুবই ঝুঁকিপূর্ণ। মার্কেট দুটি হলো- নগরীর প্রাণকেন্দ্র হিসেবে পরিচিত সাহেব বাজার এলাকার আরডিএ মার্কেট ও অপরটি নিউমার্কেট। প্রতিদিন হাজার হাজার ক্রেতা ভিড় করে ওই দুই মার্কেটে। অথচ ওই মার্কেটের একটিতেও নেই কোন অগ্নি নির্বাপন ব্যবস্থা। অগ্নিকাণ্ড ঘটলে বড় প্রাণহানির ঘটনা ঘটার আশংকা রয়েছে। ওই দুটি মাকের্টের সংশ্লিষ্ট সকলকে সতর্ক হওয়ার জন্য এরইমধ্যে আহ্বান জানিয়েছে রাজশাহী দমকল বিভাগ। সাধারণ মানুষকে সাবধান করতে গতকাল সোমবার মার্কেট দুটিতে লাগানো হয় সাইনবোর্ড।

রাজশাহী দমকল বিভাগ সদর দফতর সূত্র জানায়, নগরীর নিউমার্কেট ও আরডিএ মার্কেটে কোন অগ্নি নির্বাপনের ব্যবস্থা নেই। শুধু তাই নয়। ওই দুই মার্কেটের আশেপাশে নেই কোন পুকুর বা অন্য জলধারা। যার কারণে অগ্নিকাণ্ড ঘটলে পানির অভাবে আগুন নিভাতে প্রতিবন্ধকতার সৃষ্টি হবে।

শুধু তাই না, এছাড়া আরডি মাকের্টে ও নিউমাকের্টের সিঁড়িগুলো থাকে ব্লক। অনেক দোকানি সেখানে মালামাল রাখে। যার কারণে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটলে মানুষ সহজে নামতেও পারবেনা। আর আরডিএ মাকের্টের ভেতরের বৈদ্যুতিক তারগুলো রয়েছে এলোমেলোভাবে। এছাড়া রয়েছে ডিশ সংযোগ ও ইণ্টারনেট সংযোগের তার। ফলে খুই সহজেই অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটতে পারে। আর তা হলে প্রাণহানিসহ ক্ষতির পরিমাণও বাড়বে অনেক।

সোমবার দমকল বিভাগের পক্ষ থেকে মার্কেট দুটিতে ব্যানার লাগানো হয়। এতে লেখা রয়েছে- ‘অগ্নিনিরাপত্তার দিক থেকে রাজশাহী আরডিএ মার্কেট খুবই ঝুঁকিপূর্ণ বিধায় সংশ্লিষ্ট সকলকে সতর্ক হওয়ার জন্য অনুরোধ করা হলো। নগরীর নিউমার্কেটেও একই ব্যানার লাগানো হয়। কিন্তু ব্যানার লাগানোর কিছুক্ষণ পর কে বা কারা ব্যানার দুটি খুলে ফেলে।

ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স রাজশাহী সদর দফতরের সিনিয়র স্টেশন অফিসার শহীদুল ইসলাম তার উর্ধ্বতন অফিসারের উদ্ধৃতি দিয়ে বলেন, নগরীর নিউমার্কেট ও আরডিমাকের্ট অগ্নিনির্বাপনের কোন ব্যবস্থা নেই। আরডি মাকের্টের আশেপাশে কোন পুকুর নেই। ফলে অগ্নিকান্ড ঘটলে পানির অভাবে আগুন নিভাতে প্রতিবন্ধকতার সৃষ্টি হবে। এছাড়া আরডি মাকের্ট ও নিউমাকের্টের সিঁড়িতেও মালামাল রাখা হয়। ফলে অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটলে মানুষ সহজে নামতেও পারবে না। আর আরডিএ মাকের্টের ভেতরের বৈদ্যুতিকসহ বিভিন্ন সংযোগের তারগুলো রয়েছে এলোমেলো ভাবে। ফলে খুব সহজেই অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটতে পারে।

তবে এ ব্যাপারে আরডি মাকের্ট ও নিউমাকের্ট কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তাদের কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

SHARE