মদপানে রাবির ২ শিক্ষার্থী ও রাশিয়ান প্রকৌশলীর মৃত্যু

194

স্টাফ রিপোর্টার : অতিরিক্ত বিষাক্ত মদপানে অসুস্থ হয়ে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) দুই শিক্ষার্থীর মৃত্যু হয়েছে। শনিবার গভীর রাতে মদপানে অসুস্থ হয়ে একজন ও রোববার সকালে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে (রামেক) চিকিৎসাধীন আরেকজন মারা যান। নিহত শিক্ষার্থীরা হলেন- আইন বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী মুহতাসিম রাফিত খান। তিনি রাজশাহী নগরীর মুন্নাফের মোড় এলাকায় সালফা বিন ছাত্রাবাসে থাকতেন। তার গ্রামের বাড়ি খুলনা জেলার দৌলতপুত এলাকায়। নিহত আরেক শিক্ষার্থী হলেন- তুর্য রায় অর্থনীতি বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী। তিনিও একই এলাকার সাইদ টাওয়ার মেসে থাকতেন। তার গ্রামের বাড়ি নীলফামারী জেলায়। উভয়েই ২০১৭-১৮ সেশনের শিক্ষার্থী বলে জানা গেছে। এ তথ্য নিশ্চিত করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী প্রক্টর হুমায়ন কবীর।

তিনি জানান, মদ খেয়ে তারা অসুস্থ হয়ে পড়েন। রাফিত খান মেসেই রোববার ভোর ৫টায় মারা যান। আর তুর্য রায়কে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য নেয়ার পথে সকাল ৭টায় মারা যান।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর প্রফেসর ড. লুৎফর রহমান বলেন, প্রাথমিকভাবে জানতে পেরেছি তারা দুজনই মদপানে অসুস্থ হয়ে মারা গেছে। ময়নাতদন্ত রিপোর্ট পাওয়া গেলে সঠিক তথ্য জানা যাবে বলে জানান তিনি।

এদিকে ,বিষাক্ত মদপানে করে পাবনার ঈশ্বরদীর রূপপুর পারমানবিক বিদ্যুৎ প্রকল্পের রাশিয়ান প্রকৌশলী দিমিত্রি বেল্লি (৪১) মারা গেছেন। তার পিতার নাম ভ্লাদিমির বেল্লি। এছাড়াও অসুস্থ অবস্থায় আরও দুই প্রকৌশলী রাজশাহী মেডিকেলে ভর্তি আছেন বলে জানিয়েছেন রাজশাহী মেডিকেলের ইমার্জেন্সি বিভাগের অফিসার ডা. নাফিস রহমান।

আহত দুুই প্রকৌশলীরা হলেন, মিকায়েল দিমা ও লোগেচেভ লেভ। তারা রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ১৭ নং ওয়ার্ডে ৩০ ও ১ নং বেডে ভর্তি আছেন। তাদের অবস্থা আশঙ্কাজনক। তাদেরকে ২৪ ঘন্টার নিবিড় পর্যবেক্ষন কেন্দ্রে রাখা হয়েছে।

মিকায়েল দিমা জানান, শনিবার সকালে দিকে তারা হুইুক ব্রান্ডের আতিরিক্ত মদ্য পান করেন। শনিবার সন্ধ্যার পর থেকে সবাই অসুস্থ হয়ে পড়লে তাদের প্রথমে পাবনার ঈশ্বরদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স নেয়া হয়। সেখানে চিকিৎসকরা পরামর্শে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক বেল্লিকে মৃত ঘোষণা করেন।
সাগোর হোসেন এর সহায়তায় দিমা আরও জানায়, তারা নিটিম এট্যম এস্প্রে কোম্পানিতে চাকুরি করতেন। তারা যে মদ্য পান করেছেন তা বিষযুক্ত ছিলো। এটি খাবার পর থেকেই তাদের শরীরের অবস্থা খারাপ হতে থাকে। রাজশাহী মেডিকেলের ইমার্জেন্সি বিভাগের আফিসার ডা. নাফিস রহমান জানান, হাসপাতালে পৌঁছার পূর্বেই একজন মারা যান। বাকি দুইজনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। অপর একজন সুস্থ আছেন। মৃতের লাশ হিমঘরে রাখা হয়েছে বলে জানান এই চিকিৎসক।

রাজশাহী মহানগরের রাজপাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হাফিজুর রহমান  জানান, আলাদা ঘটনায় মারা যাওয়া তিনজনের মরদেহ বর্তমানে হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে। পরিবার বা প্রতিষ্ঠানের লোকজন এলে ময়নাতদন্ত শেষে তাদের মরদেহ হস্তান্তর করা হবে। এ ঘটনায় থানায় অপমৃত্যুর (ইউডি) মামলা হবে।

SHARE