আ.লীগ নেতার পা কেটে নিয়ে গেল কারা?

212

নাটোর প্রতিনিধি : নাটোরের সিংড়া উপজেলার বামিহাল বাজারে প্রকাশ্যে আওয়ামী লীগ নেতা মোর্শেদুল ইসলামের পা কেটে নেয়ার ২৪ ঘণ্টা পেরিয়ে গেলেও কেটে নেয়া পা উদ্ধার হয়নি। সেই সঙ্গে ঘটনার সঙ্গে জড়িত কাউকে আটক করতে পারেনি পুলিশ।

এদিকে, ঘটনার পর থেকেই এলাকায় থমথমে পরিবেশ বিরাজ করছে। বামিহাল বাজারসহ আশপাশের এলাকার লোকজনের মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করছে। তবে পুলিশ বলছে- অভিযুক্তদের গ্রেফতার করতে সাঁড়াশি অভিযান চালানো হচ্ছে। ওই এলাকার সাধারণ মানুষকে নিরাপত্তা দিতে সার্বক্ষণিক রয়েছে পুলিশি টহল।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, এলাকায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে রোববার সকাল ১০টায় নাটোরের সিংড়া উপজেলার বামিহাল বাজারে ১নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মোর্শেদুল ইসলামের এক পা নেয় ও আরেক পা ভেঙে দেয় প্রতিপক্ষ আফজাল গ্রুপের লোকজন। এরপর থেকে এলাকায় থমথমে পরিবেশ বিরাজ করছে।

আহত মোর্শেদুল ইসলামকে প্রথমে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের অর্থোপেডিক বিভাগে ভর্তি করা হলে অবস্থার অবনতি হওয়ায় রোববার রাতেই তাকে ঢাকার জাতীয় অর্থোপেডিক ও পুনর্বাসন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

এ ঘটনায় আহত মোর্শেদুল ইসলামের চাচা আবদুস সাত্তার বাদী হয়ে আফজাল হোসেনসহ ১০ জনের নামে সিংড়া থানায় একটি হত্যাচেষ্টা মামলা করেছেন। মামলায় অজ্ঞাত আসামি করা হয়েছে আরও ৫-৬ জনকে।

সিংড়া থানা পুলিশের ওসি মনিরুল ইসলাম মামলা দায়েরে সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, আসামিদের ধরতে এলাকায় সাঁড়াশি অভিযান চলছে। পাশাপাশি পুলিশি টহল অব্যাহত রয়েছে।

উল্লেখ্য, বিগত কয়েক বছরে ওই এলাকায় উভয় গ্রুপের দ্বন্দ্বে কয়েকটি হত্যাসহ ১০-১২ জন পঙ্গু ও অর্ধশতাধিক মানুষ আহত হয়েছেন।

SHARE