দেশের উন্নয়নে নৌকার বিকল্প নেই: বাদশা

157

স্টাফ রিপোর্টার : আসন্ন নির্বাচনে রাজশাহী-২ (সদর) আসনে ১৪ দল মনোনীত ও মহাজোট সমর্থিত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী ফজলে হোসেন বাদশা বলেছেন, দেশকে আরও সামনে এগিয়ে নিতে হলে নৌকা প্রতীকের কোনো বিকল্প নেই। দেশের গণমানুষের জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নৌকা প্রতীক নিয়ে সামনে এসেছেন, তাকে প্রতীকে ভোট দিলেই দেশের মানুষ সুখে-শান্তিতে বসবাস করবে।

শুক্রবার বিকালে রাজশাহী মহানগরীর বিনোদপুর মোড়ে স্থানীয় আওয়ামী লীগ আয়োজিত এক বিশাল নির্বাচনি সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। নৌকায় ভোট দেয়ার আহ্বান জানিয়ে বাদশা বলেন, যারা ক্ষমতার লোভে বোমা ফাটায়, অগ্নিসংযোগ করে তারা দেশের উন্নয়ন করে না। আমরা ক্ষমতায় আসার পর দেশের প্রতিটি সেক্টরে অভূতপূর্ব উন্নয়ন করেছি। আমরা উন্নয়নের এই ধারা অব্যাহত রাখতে চাই। এ জন্য নৌকা মার্কায় ভোট চাই।

বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক মুক্তিযোদ্ধা ফজলে হোসেন বাদশা বলেন, একাত্তরে জীবনবাজি রেখে যুদ্ধ করেছিলাম। অনেক ত্যাগের বিনিময়ে অর্জিত এই দেশে স্বাধীনতাবিরোধী শক্তি ক্ষমতায় আসবে তা হতে পারে না। আজকে পাকিস্তান বছরে ২২ বিলিয়ন ডলারের পণ্য রপ্তানি করতে পারে। আর বাংলাদেশ রপ্তানি করে ৪১ বিলিয়ন ডলারের পণ্য। পাকিস্তানের ১০০ টাকার বিনিময়ে তারা আমাদের বাংলাদেশের মাত্র ৭০ টাকা পাবে। পাকিস্তান আমাদের সঙ্গে মুক্তিযুদ্ধে পারেনি, অর্থনীতিতে এগিয়ে যেতে পারেনি। তাই এই নির্বাচনেও পাকিস্তানপন্থীরাও আমাদের সাথে পারবে না।

বিএনপি নেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার সমালোচনা করে রাজশাহী সদর আসনের টানা দুইবারের জনপ্রিয় এই সংসদ সদস্য বলেন, আজ খালেদা জিয়া এতিমের টাকা চুরি করে জেলে। তার ছেলে তারেক রহমান খুনি, চোর। ২১ শে আগস্ট গ্রেনেড হামলার সঙ্গে তারেক রহমান জড়িত। আদালতে তার সাজা হয়েছে। তাকে বাংলার মানুষ ছেড়ে দেবে না। কিন্তু বিএনপি ক্ষমতায় এলে তারা প্রতিষ্ঠিত হবে। দেশের ভালো চাইলে এদের হাতে ক্ষমতা তুলে দেয়া যাবে না।

সমাবেশে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন মহানগর ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি লিয়াকত আলী লিকু, মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা নওশের আলী, অধ্যক্ষ শফিকুর রহমান বাদশা, সাংগঠনিক সম্পাদক আসলাম সরকার, নগর ওয়ার্কার্স পার্টির সম্পাদকম-লীর সদস্য মুক্তিযোদ্ধা আবুল কালাম আজাদ, নগর জাসদের সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল মাসুদ শিবলী প্রমুখ।

বিকাল ৪টায় সমাবেশ শুরু হয়। নগরীর মতিহার থানা আওয়ামী লীগ এর আয়োজন করে। সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন মতিহার থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা আবদুল মান্নান। সাধারণ সম্পাদক মো. আলাউদ্দিন সমাবেশ পরিচালনা করেন।

সমাবেশ শুরুর পর মতিহার থানার বিভিন্ন ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, মহিলা লীগ, ছাত্রলীগসহ ১৪ দলের নেতাকর্মীরা খণ্ড খণ্ড মিছিল নিয়ে সমাবেশে আসতে থাকেন। হাজার হাজার নারী-পুরুষ ‘নৌকা’, ‘নৌকা’ শ্লোগানে মুখরিত করে তোলেন চারপাশ। অনেকেই আবার বিনোদপুর বাজারের ব্যবসায়ীদের হাতে নৌকা প্রতীকের লিফলেট তুলে দিয়ে ভোট প্রার্থনা করেন।

SHARE