ক্যাম্পাসে বিশ্বকাপ উন্মাদনা

11

স্টাফ রিপোর্টার: পর্দা উঠেছে ‘দ্য গ্রেটেস্ট শো অন আর্থ’ খ্যাত বিশ^কাপ ফুটবলের। ফুটবলের এই মহারণকে ঘিরে দেশের মানুষ এখন দুই ভাগে বিভক্ত। একদল ব্রাজিল আরেক দল বিভক্ত হয়ে গেছে আর্জেন্টিনায়। ফুটবলের এই উন্মাদনা থেকে বাদ যায়নি রাজশাহী বিশ^বিদ্যালয়ও। বিশ^কাপকে কেন্দ্র করে দুই ভাগে বিভক্ত হয়েছে বিশ^বিদ্যালয়ের (রাবি) শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা। পুরো ক্যাম্পাস এখন বিশ^কাপের জোঁয়ারে ভাসছে। সমর্থকরা তাদের নিজেদের দলের শ্রেষ্ঠত্ব প্রমাণে হাজির করছে নানা তথ্য ও যুক্তি। কেউ বলছে ‘সেভেন আপ’ আর কেউবা বলছে ‘হাত দিয়ে গোল’। আর গুটি কয়েকজন আবার জার্মানি কিংবা ফ্রান্সের সমর্থন করে এই দুই দলকেই খোঁচা দিচ্ছেন।

ফুটবল বিশ^কাপকে কেন্দ্র করে বিশ^বিদ্যালয়ের আবাসিক হলগুলোতে চলছে সমর্থকদের যুক্তি তর্ক। শ্রেণিকক্ষ, চায়ের দোকান, পশ্চিমপাড়া, আড্ডাখানাসহ সবখানেই চলছে একই আলাপ, কার দল সেরা। কারো দাবি, কাতার বিশ্বকাপ নেবে ব্রাজিল আর কেউবা মনে করছেন আর্জেন্টিনাই এবার ফেভারিট। এই বিতর্কে প্রত্যেক দলের সমর্থকরাই নিজের দলের ইতিহাস, রেকর্ড, বিশ^কাপের সংখ্যা জানিয়ে প্রতিপক্ষকে ঘায়েলের চেষ্টা করছেন। শিক্ষার্থীদের পাশাপাশি এই উন্মাদনায় মেতেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, কর্মকর্তারা ও কর্মচারীরাও। যেখানেই চার-পাঁচজন একসঙ্গে জড়ো হচ্ছেন, সেখানেই চলছে বিশ্বকাপ ফুটবল নিয়ে তুমুল আলোচনা-সমালোচনা।

কাতার বিশ^কাপকে কেন্দ্র করে প্রতিদিন রাজশাহী বিশ^বিদ্যালয় শাখা, আবাসিক হল, বিভিন্ন বিভাগ, অনুষদ ও বিভিন্ন ইনস্টিটিউটের কমিটি ঘোষণা করছেন সমর্থকরা। এরই ধারাবাহিকতায় গতকাল শনিবার রাতে রাজশাহী বিশ^বিদ্যালয়ের আর্জেন্টিনা সমর্থক গোষ্ঠীর কমিটি ঘোষণা করা হয়। এর আগে গত শুক্রবার রাতে ব্রাজিল সমর্থকরাও তাদের কমিটি ঘোষণা করে। পরে গতকাল হল কমিটিও দেন তারা। এছাড়াও জার্মানি, ফ্রান্স, ইংল্যান্ড ও বেলজিয়ামের সমর্থকরা নিজ দলের সমর্থনে কমিটি ঘোষণা করেছে।

আর্জেন্টিনার কমিটি ঘোষণার পর আজ রোববার দুপুরে একটি আনন্দ শোভাযাত্রা বের করে তারা। শোভাযাত্রাটি বিশ^বিদ্যালয়ের টুকিটাকি চত্বর থেকে শুরু হয়ে ক্যাম্পাস প্রদক্ষিণ করে। এসময় বিশ^বিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগের শতাধিক শিক্ষক-শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করেন। এর আগে গত ১১ নভেম্বর ক্যাম্পাসে নিজেদের অস্তিত্ব জানান দেয় গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের ব্রাজিল সমর্থকরা।

বিশ^কাপ জয়ের ব্যাপারে আশাবাদ ব্যক্ত করে আর্জেন্টিনা সমর্থক আশিফা হক শিফা বলেন, ‘এবারের বিশ্বকাপে আর্জেন্টিনার ২৬ সদস্যের স্কোয়াডের সবাই অসাধারণ ফুটবল খেলেন। এছাড়া জাতীয় দলে লিওনেল মেসির সাম্প্রতিক নৈপুণ্যের কথা আদালাভাবে বলার কিছু নেই। তাঁর নেতৃত্বে বর্তমান আর্জেন্টিনার স্কোয়াড বর্তমান ফুটবল বিশ্বে অন্যতম সেরা স্কোয়াড। সব মিলিয়ে লিওনেল মেসির শেষ বিশ্বকাপে তার নেতৃত্বেই এবার আর্জেন্টিনার বিশ্বকাপ খরা কাটবে।’

ব্রাজিল সমর্থক মো. আল আমিন হোসেন বলেন, ‘ফুটবলের সৌন্দর্য ও নৈপূণ্য সবই আমরা ব্রাজিলের খেলায় দেখতে পাই। ব্রাজিলের অর্জনের দিকে তাকালেই এর প্রমাণ মেলে। আমরা পাঁচ বারের বিশ^ চ্যাম্পিয়ন। আমরা মানছি লিওনেল মেসি খুব ভালো মানের ফুটবলার। তবে মেসির শ্রেষ্ঠত্ব দিয়ে আর্জেন্টিনা দলের শ্রেষ্ঠত্ব প্রমাণ করা বোকামি। আশা করছি এবার আমরাই চ্যাম্পিয়ন হবে।’

জার্মান সমর্থক মো. রবিউল ইসলাম বলেন, ‘আমরা ব্রাজিলকে ‘সেভেন আপ’ খাইয়েছি। আর্জেন্টিনাকেও এক হালি দিয়েছিলাম। আমরা চারবারের বিশ^ চ্যাম্পিয়ন। আমাদের বর্তমান দলটি তারুণ্য নির্ভর। সবাই দারুণ ফর্মে রয়েছেন। আশা করছি এবার আমাদের দলই বিশ^কাপ জিতবে।’

SHARE