ম্যারাডোনার হাত ছোঁয়া সেই বলের দাম উঠল ২৪ কোটি টাকা!

8

স্পোর্টস ডেস্ক : ১৯৮৬ বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালে ডিয়েগো ম্যারাডোনা অবিশ্বাস্য এক কীর্তিই করে বসেছিলেন। হাত দিয়ে করে বসেছিলেন গোল, এরপর করেছিলেন গেল শতাব্দীর সেরা গোলটাও। সেই বলটা এবার উঠেছে নিলামে। দাম উঠেছে ২৪ কোটি টাকা, তবে এরপরও কর্তৃপক্ষের বিশ্বাস, বলটার জন্য দাম প্রত্যাশা মেটাতে পারেনি তাদের!

১৯৮৬ বিশ্বকাপ খেলা হয়েছিল অ্যাজটেকা বল দিয়ে। ইংল্যান্ড-আর্জেন্টিনা কোয়ার্টার ফাইনালের সেই বলটিই সম্প্রতি উঠেছিল নিলামে।

নিলাম করেছে যে সংস্থা তাদের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, নিলামে সেই বল ২০ লক্ষ পাউন্ডে (বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় সাড়ে ২৪ কোটি) বিকিয়েছে। তবে নিলামকারীদের আশা ছিল আরও বেশি। ধারণা করা হয়েছিল ৩০ লক্ষ পাউন্ড দাম পাওয়া যাবে বলটির।

সেই বলটি এত দিন ছিল তিউনিশিয়ার রেফারি আলি বিন নাসেরের কাছে, যিনি ওই ম্যাচ পরিচালনার দায়িত্বে ছিলেন। সম্প্রতি তিনি বলটি নিলাম করার সিদ্ধান্ত নেন। তবে নিলামে কে বলটি কিনেছেন, তার নাম জানানো হয়নি।

গত ২০২০ সালে পরলোকগত ম্যারাডোনা সেই ম্যাচে যে জার্সি পরে খেলেছিলেন, সেটা বিক্রি হয়েছে ছ’মাস আগে। সেই জার্সির দাম অবশ্য প্রত্যাশা ছাপিয়ে গিয়েছিল রীতিমতো। দাম উঠেছিল ৯৩ লক্ষ পাউন্ড, যা প্রত্যাশা করা হয়েছিল তার থেকে দ্বিগুণ বেশি।

তবে বলের ক্ষেত্রে সেই দাম ধারেকাছেও যায়নি। সেই সময় একটি বল দিয়েই শেষ করা হতো ম্যাচ। তাই আর্জেন্টিনা বনাম ইংল্যান্ডের সেই ম্যাচে পুরো ৯০ মিনিট একটি বলেই খেলা হয়। তার অনেক পরে এক ম্যাচে একাধিক বল ব্যবহারের অনুমতি দেয় ফিফা।

সেই সময় ফকল্যান্ড দ্বীপ নিয়ে আর্জেন্টিনা এবং ইংল্যান্ডের মধ্যে প্রবল ঝামেলা চলছিল। কিন্তু ফুটবল মাঠে ম্যারাডোনার শিল্পের কাছে পেরে ওঠেনি ইংল্যান্ড। প্রথম গোলের ক্ষেত্রে ম্যারাডোনা হেড করতে ওঠার সময় বল তার হাতে লেগে গোলে ঢোকে। ইংরেজ ফুটবলাররা অভিযোগ জানালেও রেফারি কর্ণপাত করেননি। পরে ম্যারাডোনা স্বীকার করেন, বল তার হাতে লেগেছিল।

SHARE