বাঘা পৌর নির্বাচন, উত্তেজনার মধ্য দিয়ে আ’লীগের দুই নেতার মোটরসাইকেল শোভাযাত্রা

25

স্টাফ রিপোর্টার : বাঘা পৌর নির্বাচনে তফসিল ঘোষণার তৃতীয় দিনে পুলিশি নিরাপত্তা ও উত্তেজনার মধ্য দিয়ে পৃথকভাবে আ’লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশি আক্কাছ ও পিন্টু নির্বাচনি মোটরসাইকেল শোভাযাত্রা।
বুধবার (৯ নভেম্বর) বিকালে নিজ নিজ এলাকা থেকে তারা মোটরসাইকেল নিয়ে এই শোভাযাত্রা করেন।
জানা যায়,তফসিল অনুযায়ী আাগামী ২৯ ডিসেম্বর বাঘা পৌরসভার নির্বাচন। এ নির্বাচনকে ঘিরে সম্ভাব্য প্রার্থীরা নানাভাবে নিজেদের যোগ্যতা ভোটারদের জানান দিচ্ছেন।
জানা গেছে,এ নির্বাচন উপলক্ষে বুধবার বিকাল ৪টায় বাঘা পৌরসভার সাবেক মেয়র ও জেলা আ’লীগের সদস্য আক্কাছ আলী নিজ বাড়ি পাকুড়িয়া থেকে পাঁচ শতাধিক মোটরসাইকেল নিয়ে পৌরসভার প্রধান প্রধান সড়কে মোটরসাইকেল শোভাযাত্রা করেন। এ সময় তার শোভাযাত্রায় সাথে উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান ও উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মোকাদ্দেস আলী,পাকুড়িয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মেরাজুল ইসলাম মেরাজসহ হাজারো মানুষঅংশ গ্রহন করেন।
অপর দিকে বাঘা পৌরসভার প্যানেল মেয়র ও উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শাহিনুর রহমান পিন্টু উপজেলা আ’লীগের কার্যালয় থেকে বিকাল সাড়ে ৪টায় দুইশতাধিক মোটরসাইকেল নিয়ে পৌরসভার প্রধান প্রধান সড়কে মোটরসাইকেল শোভাযাত্রা করেন। পিন্টুর শোভাযাত্রায় সাথে ছিলেন বাঘা পৌর যুবলীগের সভাপতি শাহিন আলমসহ আ’লীগ,যুবলীগ, ছাত্রলীগ,সেচ্ছাসেবকলীগ, কৃষকলীগের নেতৃবৃন্দ।
শাহিনুর রহমান পিন্টু বলেন,আমি পৌরসভার প্যানেল মেয়র হিসেবে দায়িত্ব পালন করছি। পৌরসভার কিছু কাজ অসমাপ্ত রয়েছে,সেই কাজ সম্পন্ন করতে মেয়র পদে নির্বাচনে অংশ গ্রহণ করছি। এছাড়া পৌর নির্বাচনে মেয়র পদে নির্বাচন করার প্রত্যয় নিয়ে দীর্ঘদিন থেকে মানুষের পাশে থেকে কাজ করে চলেছি। আমি দলীয় মনোনয়ন পেলে নৌকা প্রতীক নিয়ে মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করবো।
এ দিকে বাঘা পৌরসভার সাবেক মেয়র ও জেলা আ’লীগের সদস্য আক্কাছ আলী বলেন,আমি দীর্ঘদিন থেকে আ’লীগের রাজনীতি করে আসছি। গত নির্বাচনে দলীয় মনোনয়ন পেয়েছিলাম। কিছু ভূলের কারনে অল্প ভোটের ব্যবধানে পরাজিত হতে হয়েছে। তবে এবারও আসা করছি দল পূর্বের মতো আবারও আমাকে দলীয়ভাবে মনোনীত করবেন এবং বিজয়ী হবো।
উল্লখ্য,বাঘা পৌরসভার ভোট গ্রহণ ২৯ ডিসেম্বর,মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার শেষ দিন ১ডিসেম্বর, যাচাই-বাছাই ৩ ডিসেম্বর,প্রার্থীতা প্রত্যাহার ১০ ডিসেম্বর। পৌরসভায় মোট ভোটার সংখ্যা ৩১ হাজার ৬৩৬ জন। এরমধ্যে পুরুষ ভোটার ১৫ হাজার ৮০০ ও নারী ভোটার ১৫ হাজার ৮৩৬ জন।

SHARE