প্রক্সি নিয়ে লিখিত উত্তীর্ণ, মৌখিকে ধরা

25

স্টাফ রিপোর্টার: লিখিত পরীক্ষায় ভাল নম্বর পেয়েছেন। ডাক পেয়েছেন মৌখিক পরীক্ষার জন্য। লিখিত পরীক্ষায় ‘ডাক্তার আসিবার পূর্বেই রোগী মারা গেল’ বাক্যের ইংরেজি লিখতে হয়েছে খাতায়। উত্তর সঠিক। মৌখিক পরীক্ষায় চাকরিপ্রার্থীকে আবার একই কথা লিখতে বলা হলো ইংরেজিতে। কিন্তু কিন্তু হাতের লেখা তো মিললোই না, বাক্যেও ইংরেজি শব্দের সবই ভুল।

রাজশাহীতে এভাবেই প্রক্সি নিয়ে লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণ এক চাকরিপ্রার্থী ভাইভা বোর্ডে ধরা পড়েছেন। একইভাবে হাতের লেখা না মেলার কারণে ধরা পড়েছেন আরেক যুবক। পরে দুজনকেই ভ্রাম্যমাণ আদালতে ১৫ দিনের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। দণ্ডপ্রাপ্ত দুজন হলেন- রাজশাহীর বাঘা উপজেলার হেদাতিপাড়া গ্রামের আবদুল রাশেদ (২৫) ও পুঠিয়া উপজেলার মধুখালী গ্রামের মহিদুল ইসলাম (২৭)। দুজনেই পরিকল্পনা বিভাগের পরিবার পরিকল্পনা পরিদর্শক পদে চাকরির প্রার্থী ছিলেন। এ পদের জন্য শিক্ষাগত যোগ্যতা উচ্চমাধ্যমিক পাস।

জেলা প্রশাসকের কার্যালয় থেকে জানা গেছে, রাশেদের বাবা একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা। মুক্তিযোদ্ধা কোটায় তিনি চাকরির আবেদন করেছিলেন। মহিদুল সাধারণ প্রার্থী ছিলেন। গত শুক্রবার রাজশাহীতে চাকরির লিখিত পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। মঙ্গলবার অনুষ্ঠিত হয় মৌখিক পরীক্ষা। লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণদের এ দিন জেলা প্রশাসকের দপ্তরে মৌখিক পরীক্ষা নেওয়া হয়। জেলা প্রশাসক আবদুল জলিলসহ তিনজন কর্মকর্তা ছিলেন ভাইভা বোর্ডে।

জেলা প্রশাসক জানান, দুপুরে ভাইভা বোর্ডে আসেন রাশেম। এ সময় পরীক্ষার খাতার সঙ্গে হাতের লেখা না মেলা এবং খাতায় দেওয়া সঠিক উত্তর মৌখিক পরীক্ষার সময় লিখতে না পারার কারণে রাশেদকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। এ সময় তিনি স্বীকার করেন যে, তাঁর হয়ে অন্য একজন পরীক্ষা দিয়েছিলেন। তাই তাকে কারাদণ্ড দেওয়া হয়। সন্ধ্যায় একইভাবে ধরা পড়েন মহিদুল। এ সময় তাকেও ভ্রাম্যমাণ আদালতে একই সাজা দেওয়া হয়।

জেলা প্রশাসক আরও জানান, তাঁরা মোট ৬৫ জনের মৌখিক পরীক্ষা নেওয়ার জন্য বসেছিলেন। রাশেদ ধরা পড়ে তাঁর কারাদণ্ড হওয়ায় আরও কয়েকজন ভাইভা বোর্ডের সামনেই আসেননি। দু’একজন অফিসের সামনে থেকে তড়িঘড়ি পালিয়ে গেছেন। এরপরও সন্ধ্যায় মহিদুল ভাইভা বোর্ডে হাজির হন। তবে শেষ পর্যন্ত তিনিও ধরা পড়েছেন। এর আগে সম্প্রতি জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের এক নিয়োগের সময়ও একইভাবে প্রক্সি নেওয়া এক চাকরিপ্রার্থী ভাইভা বোর্ডে গিয়ে ধরা পড়েন। তাকেও সাজা দেওয়া হয়।

SHARE