রাজশাহী-১ আসনের এমপি হতে চান নায়িকা মাহি

28

স্টাফ রিপোর্টার: চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহিকে নিয়ে রাজশাহীর তানোরে রাজনৈতিক উত্তেজনা দেখা দিয়েছে। তিনি রাজশাহী-১ (গোদাগাড়ী-তানোর) আসনে সংসদ সদস্য প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে অংশ নিতে পারেন বলে এলাকায় গুঞ্জন শুরু হয়েছে। জানতে চাইলে বিষয়টি সরাসরি অস্বীকার করেননি এই নায়িকা। বলেছেন, ‘এলাকার জনগণ চাইলে অবশ্যই সেটা হতে পারে।’

নায়িকা মাহির গ্রামের বাড়ি চাঁপাইনবাবগঞ্জের নাচোল উপজেলায়। তবে পার্শ্ববর্তী তানোর উপজেলার মুণ্ডুমালায় নানাবাড়িতে তাঁর জন্ম। মাঝে মাঝেই তিনি এখানে আসেন। এখানে ‘স্বপ্ন ফাউন্ডেশন’ নামের একটি সংগঠন করেছেন। সংগঠনটির চেয়ারম্যান মাহি নিজেই।

বছর দুয়েক আগে মুণ্ডুমালায় স্বপ্ন ফাউন্ডেশন একটি ফুটবল প্রতিযোগিতার আয়োজন করে। ওই আয়োজনে রাজনৈতিকভাবে কিছুটা বাধাও আসে। তবে শেষ পর্যন্ত ওই টুর্নামেন্ট হয় এবং মাহি তা দেখতে আসেন। এবার মুণ্ডুমালায় কাবাডি প্রতিযোগিতার আয়োজন করল স্বপ্ন ফাউন্ডেশন ও জেলা ক্রীড়া সংস্থা। শুক্রবার এই খেলা দেখতে হাজির হয়েছিলেন নায়িকা মাহিও।

বঙ্গবন্ধুর কনিষ্ঠ পূত্র শেখ রাসেলের জন্মদিন উপলক্ষে মুণ্ডুমালা ফজল আলী মোল্লা ডিগ্রি কলেজ মাঠে কাবাডি খেলার আয়োজন করা হয়। টুর্নামেন্টে রাজশাহীর ৯ উপজেলার নয়টি এবং জেলা পুলিশের একটি দল অংশ নেয়। সকালে এর উদ্বোধন করেন পুলিশ কর্মকর্তা ডি এ তায়েব। প্রথম পর্বে প্রধান অতিথি ছিলেন বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের কেন্দ্রীয় সভাপতি ফালগুনী হামিদ। বিশেষ অতিথি ছিলেন সাধারণ সম্পাদক হাবিবুর রহমান।

বিকালে সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন পুলিশের অতিরিক্ত মহাপরিদর্শক হাবিবুর রহমান। অনুষ্ঠানে পুলিশের রাজশাহী রেঞ্জের উপমহাপরিদর্শক (ডিআইজি) আবদুল বাতেন, জেলা প্রশাসক আবদুল জলিল, জেলার পুলিশ সুপার এবিএম মাসুদ হোসেন বিশেষ অতিথি ছিলেন। সভাপতিত্ব করেন স্বপ্ন ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান চিত্রনায়িকা মাহি।

অনুষ্ঠানে ছিলেন না স্থানীয় সংসদ সদস্য ওমর ফারুক চৌধুরী। কাবাডি প্রতিযোগিতা যে মাঠে হয়েছে তার পাশেই মুণ্ডুমালা পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আমির হোসেন আমিনের বাড়ি। আমির বলেন, ‘এলাকার লোকজন বলাবলি করছে রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে এই কাবাডি খেলা করা হয়েছে। এর আগে একবার ফুটবল খেলা করা হয়েছিল। এবার পুলিশ নিয়ে এসে প্রোগ্রাম করা হলো। কোন উদ্দেশ্য না থাকলে শেখ রাসেলের জন্মদিনের একমাস পরে কেন এটা করা হবে? আমরা তো জন্মদিন পালন করেছি। শেখ রাসেলের নামে খেলার আয়োজন হলেও আমাদের মতো দলীয় নেতাদের দাওয়াত দেওয়া হয়নি। আমার বাড়ির পাশে খেলা হলেও দেখতে যাইনি।’ আমির স্বীকার করেন, এলাকায় গুঞ্জন রয়েছে যে নায়িকা মাহি এমপি পদে নির্বাচন করতে চান। আওয়ামী লীগ তাকে মনোনয়ন দিলে দলের একজন নেতা হিসেবে তখন তিনি তাঁর সঙ্গে থাকবেন।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, নায়িকা মাহির স্বামী রাকিব সরকার চার বছর আগে আওয়ামী লীগের ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ উপকমিটির সদস্য মনোনীত হন। ছিলেন গাজীপুর জেলা ছাত্রলীগের সদস্য। পরবর্তীতে তিনি কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সদস্য এবং সহ-সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন। আগামীতে গাজীপুর যুবলীগের গুরুত্বপূর্ণ পদ পেতে পারেন তিনি। স্বামী রাজনীতির সঙ্গে সম্পৃক্ত বলে মাহিকে নিয়েও গুঞ্জন শুরু হয়েছে। তাছাড়া মাহি কিছু দিন আগে বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব নিয়েছেন। এ সংগঠনের রাজশাহী বিভাগের আহ্বায়ক হিসেবেও দায়িত্ব নিয়েছেন তিনি।

আর তানোরে তার সাম্প্রতিক কর্মকাণ্ড নিয়ে কথা উঠেছে, তিনি রাজশাহী-১ আসনের এমপি হতে চান। ভবিষ্যতে এমপি নির্বাচনে অংশ নেওয়ার ইচ্ছা আছে কি না এমন প্রশ্নের উত্তরে কাবাডি খেলার অনুষ্ঠানে নায়িকা মাহি বলেন, ‘আপাতত না, অনেক দেরি আছে। যদি এলাকার লোকজন চায়, আমাকে ভালবাসে অবশ্যই সেটা হতে পারে, ইনশাল্লাহ।’

তিনি বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুর আদর্শে আমি আদর্শিত। সে বিষয়টা আমি সবাইকে জানাতে চাই। সবাই যে যার জায়গা থেকে এটা করতে পারে। আমি পলিটিক্স বুঝি না যদিও, তবুও আমি স্টার্ট করেছি। আমি মানুষের সেবা করতে চাই। পলিটিক্স আসলে আমি দেখি যে মানুষের সেবা করা।’

SHARE