ভালো কাজে পুলিশ ও জনতার সম্পৃক্ততা বেড়েছে : খাদ্যমন্ত্রী

38

স্টাফ রিপোর্টার : ভালো কাজে পুলিশ ও জনতার সম্পৃক্ততা বেড়েছে। কমিউনিটি পুলিশিং এর মাধ্যমে পুলিশ ও জনতা একসাথে ভালো কাজে সহযোগিতা করছে ও মন্দ কাজের কারণ খুঁজে বের করে ব্যবস্থা নিচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার।

তিনি শনিবার (২৯ অক্টোবর) নওগাঁ পুলিশ সুপারের কার্যালয় চত্বরে কমিউনিটি পুলিশিং ডে-২০২২ এর উদ্বোধনকালে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

খাদ্যমন্ত্রী বলেন, পুলিশের সঙ্গে জনগণের সম্পৃক্ততা বৃদ্ধি ও অপরাধ দমনের অন্যতম কৌশল হিসেবে কমিউনিটি পুলিশিং বিশেষ ভূমিকা পালন করে আসছে।

১৯৭১ সালের মহান মুক্তিযুদ্ধে পুলিশের ভূমিকা উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, পুলিশ বাহিনীর সদস্যরাই প্রথম সম্মুখযুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে বুকের তাঁজা রক্ত ঢেলে দিয়েছে। দেশের প্রয়োজনে তারা আবারও এগিয়ে আসবে বলে তিনি তাঁর বিশ্বাসের কথা ব্যক্ত করেন।

তিনি বলেন, পুলিশের কাজে সহযোগিতা, বাল্যবিয়ে রোধ, ইভটিজিং প্রতিরোধ, জঙ্গিবাদ-সন্ত্রাস দমন, মাদক নিয়ন্ত্রন, নারী-শিশু নির্যাতন প্রতিরোধ, যৌতুক নিরোধসহ বিভিন্ন কাজে কমিউনিটি পুলিশের সদস্যরা কাজ করে যাচ্ছেন যা সামাজিক শৃংখলা রক্ষায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে।

এসময় আইন ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয় সংক্রান্ত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ও নওগাঁ ৩ আসনের সংসদ সদস্য মোঃ ছলিম উদ্দিন তরফদার এমপি, নওগাঁ ২আসনের সংসদ সদস্য শহীদুজ্জামান সরকার এমপি, জেলা প্রশাসক খালিদ মেহেদী হাসান এবং পুলিশ সুপার মোঃ রাশিদুল হক, নওগাঁ জেলা পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণসহ কমিউনিটি পুলিশিং কমিটির সদস্যবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

কমিউনিটি পুলিশিং ডে উদযাপনে নওগাঁ জেলা পুলিশ এক বর্ণাঢ্য র‌্যালি ও আলোচনা সভা আয়োজন করে। “কমিউনিটি পুলিশিংয়ের মূলমন্ত্র শান্তি-শৃঙ্খলা সর্বত্র”-এ প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে সারাদেশে আজ দিবসটি উদযাপন করা হচ্ছে।

উল্লেখ্য, বর্তমানে সারাদেশে মোট ৫৪ হাজার ৭১৮টি কমিটিতে ৯ লাখ ৪৭ হাজার ৭০১ জন কমিউনিটি পুলিশের সদস্য হিসেবে কাজ করছেন। তাদের কার্যক্রমের মধ্যে রয়েছে ওপেন হাউজ ডে’র মাধ্যমে স্থানীয় সমস্যা নিয়ে মতবিনিময় সভা, গণসচেতনতামূলক কার্যক্রম, অপরাধবিরোধী সভা, দৃশ্যমান পেট্রোল ইত্যাদির মাধ্যমে সমাজে অপরাধমূলক কর্মকাণ্ড কমিয়ে আনা।

SHARE