মুরিদ হতে গিয়ে হলেন মানসিক রোগী

35

স্টাফ রিপোর্টার: রাজশাহীর পুঠিয়ায় পীরের মুরিদ হতে গিয়ে মানসিক ভারসাম্য হারিয়ে ফেলেছেন আনোয়ার হোসেন (২৫) নামে এক যুবক। রোববার সকালে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন তাঁর বাবা আবুল কালাম। আনোয়ার হোসেন পুঠিয়া উপজেলার পূর্ব ধোপাপাড়া গ্রামের বাসিন্দা।

এ বিষয়ে আনোয়ার হোসেনের বাবা বলেন, ‘আমার ছেলে গ্রামে গ্রামে ফেরি করে হাঁড়ি-পাতিল বিক্রি করত। সেই সুবাদে গত সেপ্টেম্বর মাসে রংপুরে সাহাবুদ্দীন নামের এক পীরের খবর পায়। ওই পীর আনোয়ারকে মুরিদ করার প্রস্তাব দিলে সে রাজি হয়ে যায়। পরে আমার ছেলে ব্যবসা বন্ধ করে ওই পীরের কাছে চলে যায়।’

আনোয়ার হোসেন আরও বলেন, ‘মুরিদ হওয়ার বিষয়টি আনোয়ার মোবাইলে আমাদের জানিয়েছিল। গত সপ্তাহে আমার এলাকার এক ব্যক্তি আনোয়ারকে বগুড়া শহরে পাগলের মতো ঘোরাফেরা করতে দেখলে সেখান থেকে তাঁকে ধরে বাড়িতে নিয়ে আসে। বাড়িতে আনার পর আনোয়ারের পাগলামি আরও বেড়ে যায়। এতে তাঁর অস্বাভাবিক আচরণের কারণে হাত-পা বেঁধে রাখতে হতো। তাই আনোয়ারকে চিকিৎসার জন্য উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসি।’

এ বিষয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক সাব্বির রহমান বলেন, ‘প্রাথমিকভাবে মনে হচ্ছে তিনি মানসিক নির্যাতনের শিকার হয়েছেন, যার কারণে নিদ্রাহীনতায় ভুগছে। এখন তাঁর পরিবারকে রাজশাহী মেডিকেল (রামেক) হাসপাতালের মনোরোগ বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিতে বলা হয়েছে।’

SHARE