রাজশাহী জেলা পরিষদ নির্বাচন,স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থীর নির্বাচনী ইস্তেহার ঘোষণা

64

স্টাফ রিপোর্টার: রাজশাহী জেলা পরিষদ নির্বাচনের স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী আখতারুজ্জামান আকতার তাঁর নির্বাচনী ইস্তেহার ঘোষণা করেছেন। শুক্রবার সকাল সাড়ে ১০টায় রাজশাহী নগরীর একটি কমিউনিটি সেন্টারে সংবাদ সম্মেলন করে তিনি তাঁর নির্বাচনী ইস্তেহার ঘোষণা করেন।

এতে নির্বাচনে বিজয়ী হলে জনপ্রতিনিধিদের জন্য বিশ্রামাগার ও রাজশাহীর প্রবেশ মুখগুলোতে তোরণ নির্মাণসহ ১০টি প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। ইস্তেহারে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছে স্থানীয় সরকার বিভাগের সকল পর্যায়ের জনপ্রতিনিধিদেরই।

সংবাদ সম্মেলনে আখতারুজ্জামান বলেন, রাজশাহীর ইতিহাস, ঐতিহ্যের সাথে মিল রেখে রাজশাহী জেলায় প্রবেশের তিন দিকে তিনটি আকর্ষণীয় ‘প্রবেশ তোরণ’ নির্মাণ করবো। জেলা পরিষদের অব্যবহৃত ভূমি জেলা তৃণমূলে নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিদের সাথে আলোচনা করে জনগণের কল্যাণে কল্যাণে ব্যবহার করা হবে। রাজশাহীর ইতিহাস-ঐতিহ্য ও সংস্কৃতি ধারণ করে বর্তমান প্রজন্মের জন্য জেলা পরিষদের অর্থায়নে একটি সংগ্রহশালা ও গ্রন্থাগার গড়ে তোলা হবে।

ইস্তেহারে তিনি বলেন, ঐতিহাসিক স্থাপনা, মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিবিজড়িত স্থান সংরক্ষণ ও উপজেলাভিত্তিক গ্রন্থাগার রাজশাহী জেলা পরিষদের অর্থায়নে নির্মাণ করা হবে। স্থানীয় সরকারের জনপ্রতিনিধিদের জন্য রাজশাহী শহরে জেলা পরিষদের নিজস্ব জায়গায় একটি আধুনিক আবাসিক বিশ্রামাগার নির্মাণ করা হবে। স্থানীয় সরকারের জনপ্রতিনিধিরা নামমাত্র মূল্যে এটি ব্যবহার করতে পারবেন। জেলা পরিষদের উন্নয়নকাজে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের মতামত অগ্রাধিকার দেওয়া হবে।

আখতারুজ্জামান বলেন, রাজশাহীর প্রত্যেকটি উপজেলায় ডাকবাংলো থাকলেও সেগুলো প্রায় অব্যবহৃত থাকায় জরাজীর্ণ অবস্থায় পড়ে আছে। এগুলো রাজশাহী জেলা পরিষদের সম্পদ। এই ডাকবাংলাগুলোর প্রয়োজনীয়তা বিবেচনা করে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে। উন্নয়নের স্বার্থে করণীয় ঠিক করতে প্রতিবছর অন্তত দুইবার স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের সাথে মতবিনিময় করা হবে।

ইস্তেহারে আরও বলা হয়েছে, রাজশাহী সীমান্তবর্তী এলাকার জনগণকে মাদকের ভয়াবহতা সম্পর্কে সচেতন করা ও মাদক ব্যবহারে নিরুৎসাহিত করার জন্য জনগণ ও স্থানীয় প্রশাসনকে সাথে নিয়ে কাজ করা হবে। উপজেলা পর্যায়ে বাস স্ট্যান্ডগুলোতে যাত্রী ছাউনি, সুপেয় পানি ও পয়ঃনিষ্কাশনের সুব্যবস্থা করা হবে। সংবাদ সম্মেলনে আখতারুজ্জামান বলেন, তিনি চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলে তাঁর নির্বাচনী ইস্তেহার শতভাগ বাস্তবায়ন করবেন।

আগামী ১৭ অক্টোবর রাজশাহী জেলা পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। এতে আওয়ামী লীগের ‘বিদ্রোহী’ প্রার্থী আখতারুজ্জামান আকতার মোটরসাইকেল প্রতীক নিয়ে অংশ নিয়েছেন। আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী বীর মুক্তিযোদ্ধা মীর ইকবাল লড়ছেন কাপ-পিরিচ প্রতীক নিয়ে। এই নির্বাচনে আরও দুই স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী ভোটের মাঠে আছেন।

SHARE