নার্সকে হাতুড়িপেটা করা যুবক রিমান্ডে

42

স্টাফ রিপোর্টার: রাজশাহীর মোহনপুর উপজেলায় স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ঢুকে এক নার্সকে হাতুড়িপেটা করা যুবক মো. মেহেদীর (২১) দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। বৃহস্পতিবার দুপুরে রাজশাহীর অতিরিক্ত চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. লিটন হোসেন রিমান্ডের এ আদেশ দেন।

মোহনপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তৌহিদুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, আদালতে আসামির চার দিনের রিমান্ডের আবেদন করেছিলেন তদন্ত কর্মকর্তা। তবে শুনানি শেষে আদালত দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন। বৃহস্পতিবারই আসামিকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য কারাগার থেকে থানায় নেওয়া হচ্ছে বলেও জানিয়েছেন ওসি।

এর আগে গত ২২ সেপ্টেম্বর মেহেদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে গিয়ে শিলা প্রামাণিক (৩০) নামের একজন সিনিয়র স্টাফ নার্সকে হাতুড়িপেটা করে পালিয়ে যান। এ নিয়ে সেদিন রাতেই তাঁর বিরুদ্ধে থানায় মামলা করেন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা মো. রাশেদুল ইসলাম।

ঘটনার পর থেকেই মেহেদী পালিয়ে বেড়াচ্ছিলেন। গত ২৬ সেপ্টেম্বর দুপুরে রাজশাহীর মোহনপুর থানার আমলী আদালতে তিনি আত্মসমর্পণ করেন। এ সময় তাঁকে কারাগারে পাঠান আদালত। আসামি মেহেদী হাসানের বাড়ি উপজেলার সইপাড়া গ্রামে। বাবার নাম রিয়াজ উদ্দিন।

পুলিশের তথ্য অনুযায়ী, নার্স শিলা প্রামাণিক পার্শ্ববর্তী নওগাঁর মান্দা উপজেলার সাবাইহাটের বাসিন্দা। গত ২৩ আগস্ট মেহেদীর বাবা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি ছিলেন। সেদিন স্যালাইন শেষে সুই বের না করার কারণে হাত থেকে রক্ত উঠে এসেছিল। মেহেদী খুঁজে খুঁজেও কোন নার্সকে পাচ্ছিলেন না। এ নিয়ে তিনি চিৎকার-চেচামেচি করেছিলেন।

পরে নার্স শিলা প্রামাণিক সুই বের করতে এলে তাঁর সঙ্গেও তর্ক-বিতর্ক হয়। সেদিন মেহেদী হুমকি দিয়ে ওই নার্সকে দেখে নিতে চেয়েছিলেন। এরপর ২২ সেপ্টেম্বর শিলা যখন হাসপাতালে ছিলেন তখন মেহেদী হাতুড়ি নিয়ে এসে অতর্কিত হামলা চালান। পরে ক্লোজ সার্কিট (সিসি) ক্যামেরার ছবিতে তাঁকে শনাক্ত করা হয়। এ হামলায় শিলার মাথায় ছয়টি সেলাই লাগে।

SHARE