মধ্য আশ্বিনেও তিব্র তাপদাহ

175

স্টাফ রিপোর্টার :রাজশাহীতে মধ্য আশ্বিনেও সূর্যের তাপে জনজীবন অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে। দিনের গড় তাপমাত্রা ৩৪ থেকে ৩৬ ডিগ্রির মধ্যে উঠানামা করছে। ফলে টানা তাপদাহে কাহিল হয়ে পড়ছে মানুষ। গরমের তিব্রতায় পশু-পাখিরাও হাঁসফাঁস করছে। বিশেষ করে শিশু ও বৃদ্ধরা অস্বস্তি-অসুখে দুর্বিষহ দিন পার করছেন। পাশাপাশি বেড়েছে বিভিন্ন রোগের প্রকোপ ।
গরমের সাথে পাল্লা দিয়ে বেড়েছে লোডশেডিং। দুপুর ১২টা গড়াতেই রাস্তাঘাটে জনসমাগম কমে যাচ্ছে। তাপমাত্রার তারতম্যে ঘরে ঘরে ডায়রিয়া, জ্বর, সর্দি-কাশিসহ বিভিন্ন উপসর্গে আক্রান্তের সংখ্যা ক্রমেই বাড়ছে। এসব রোগে বৃদ্ধ ও শিশুরাই বেশি আক্রান্ত হচ্ছে। পাশাপাশি উচ্চ রক্তচাপে আক্রান্তদের দুর্ভোগ বেড়েছে। রাজশাহী আবহাওয়া অফিসের জ্যেষ্ঠ পর্যবেক্ষক দেবল কুমার মৈত্র জানান, বর্তমানে রাজশাহীর ওপর দিয়ে মাঝারি তাপপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে। রোববার (৩০ সেপ্টেম্বর) বেলা সাড়ে ৩টায় মহানগরীতে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ৩৫ দশমিক ৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এদিন সকালে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ২৫ দশমিক ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস। সকালে বাতাসের আর্দ্রতা ছিল ৯৬ শতাংশ এবং বিকেল ৩টায় ৪৭ শতাংশ।
গত এক সপ্তাহ থেকে তাপমাত্রা ৩৪ থেকে ৩৬ ডিগ্রি সেলসিয়াসের মধ্যে উঠানামা করছে। এর মধ্যে শনিবার (২৯ সেপ্টেম্বর) ছিল ৩৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস। ২৮ সেপ্টেম্বর ছিল ৩৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস ও ২৭ সেপ্টেম্বর ছিল ২৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস।
রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালের বহিঃবিভাগের তথ্য অনুযায়ী গরমের কারণে বেশি ডায়রিয়ার রোগী ভর্তি হচ্ছে- পাশাপাশি জ্বর ,সর্দির রোগীও চিকিৎসা নিতে আসছেন। তবে চিকিৎসকরা বেশি পরিমাণে নিরাপদ পানি পান করার জন্য বলছেন। রাস্তার খোলা খাবার না খাওয়ার পরামর্শও দিচ্ছেন।

SHARE