‘সালিশে পক্ষপাতিত্ব করায়’ রাজশাহীতে যুবকের আত্মহত্যা

25

স্টাফ রির্পোটার : রাজশাহীতে ওয়ার্ড কাউন্সিলরের কার্যালয়ে ‘সালিশে পক্ষপাতিত্ব করায়’ এক যুবক গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। এই যুবকের নাম মো. ইয়ামিন (২৩)। তিনি রাজশাহী মহানগরীর রাজপাড়া থানার বসুয়া এলাকার বাসিন্দা মো. বাবুর ছেলে।

বুধবার দিবাগত রাতে ঘরে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেন ইয়ামিন। বৃহস্পতিবার সকালে পুলিশ দরজা ভেঙে ইয়ামিনের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে। ইয়ামিনের বাবা মো. বাবু বলেন, কয়েকদিন আগে ইয়ামিনকে মারধর করে এলাকার কয়েকজন ছেলে। এ ঘটনায় বুধবার দু’পক্ষকে ডেকে নিয়ে সালিশে বসেছিলেন রাজশাহী সিটি করপোরেশনের ১৪ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর আনোয়ার হোসেন আনার। সেখানে তিনি পক্ষপাতিত্ব করেন। আর এই ক্ষোভে ইয়ামিন আত্মহত্যা করেছে বলেও দাবি করেন তার বাবা মো. বাবু।

নগরীর রাজপাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জাহাঙ্গীর আলম জানান, ইয়ামিনের পরিবার বলছে সালিশে বিচার না পেয়ে সে আত্মহত্যা করেছে। এ নিয়ে পরিবারের পক্ষ থেকে থানায় অভিযোগ করার প্রস্তুতি চলছে। যারা ইয়ামিনকে মেরেছিল, অভিযোগে তাদের নাম থাকবে। পরিবার যেভাবে অভিযোগ করবে সেভাবেই গ্রহণ করা হবে বলেও জানান তিনি।

সালিশে পক্ষপাতিত্বের অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে ওয়ার্ড কাউন্সিলর আনোয়ার হোসেন সালিশ করার বিষয়টিই অস্বীকার করেন। তিনি বলেন, ‘সালিশ করলে ভুক্তভোগী আগে আমার অফিসে লিখিত অভিযোগ করবে। তারপর নোটিশ করে দু’পক্ষকে আমি ডাকব। এসব কিছুই হয়নি। কোন সালিশও আমি করিনি।’ ইয়ামিনকে চেনেন কি না জানতে চাইলে কাউন্সিলর বলেন, এলাকার ছেলে হিসেবে চিনি। কতদিন আগে দেখা হয়েছে তা মনে নেই। অপর এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘সে গতকাল আমার অফিসে এসেছিল।

SHARE