ম্যাংগো স্পেশাল ট্রেন ছুটবে সোমবার

13

স্টাফ রির্পোটার : পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের উদ্যোগে সোমবার (১৩ জুন) থেকে চালু হতে যাচ্ছে ‘ম্যাংগো স্পেশাল ট্রেন’।চাঁপাইনবাবগঞ্জ-রাজশাহী-ঢাকা রুটে এ ট্রেন চলাচল করবে। চাঁপাইনবাবগঞ্জের রহনপুর রেলওয়ে স্টেশন থেকে সোমবার বিকেল ৪টায় ট্রেনটি রাজশাহীর উদ্দেশে রওনা দেবে। রাজশাহী থেকে আম নিয়ে ট্রেনটি যাত্রা শুরু করবে রাজধানী ঢাকার উদ্দেশে।
পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের মহাব্যবস্থাপক (জিএম) অসীম কুমার তালুকদার এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
অসীম কুমার বলেন, সোমবার বিকেলে ৪টায় চাঁপাইনবাবগঞ্জের রহনপুর রেলওয়ে স্টেশন থেকে ‘ম্যাংগো স্পেশাল’ ট্রেন চালু হবে। তেমন কোনো আনুষ্ঠানিকতা থাকছে না। স্থানীয় সংসদ সদস্য এবং ব্যবসায়ীরা থাকবেন। তাদেরকে নিয়েই অনাড়ম্বরভাবে ট্রেনটির যাত্রা শুরু করা হবে।
রাজশাহী থেকে আম নিয়ে ট্রেনটি ঢাকার উদ্দেশে ছেড়ে যাবে। এরপর শিডিউল অনুযায়ী চাঁপাইনবাবগঞ্জ-রাজশাহী-ঢাকা রুটে চলাচল করবে। পরে চাহিদা বুঝে নির্ধারণ করা হবে, চলতি আমের মৌসুমে কতদিন এ ট্রেন চলবে।
তিনি বলেন, ম্যাংগো স্পেশাল ট্রেন নিয়ে আলোচনার সময় ব্যবসায়ীরা জুনের প্রথম সপ্তাহে এটি চালু করার জন্য অনুরোধ করেছিলেন। এরপর মন্ত্রণালয়ে প্রস্তাব পাঠানো হয়। সেখান থেকে নির্দেশনা আসার পর প্রস্তুতি নিতে কিছুটা সময় লেগেছে। তাই প্রথম সপ্তাহে সম্ভব না হলেও আগামী সপ্তাহ থেকে এ রুটে স্পেশাল ট্রেন চালু করা হবে।
পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ে সূত্রে জানা গেছে, চাঁপাইনবাবগঞ্জের রহনপুর থেকে প্রতি কেজি আম পরিবহনের ভাড়া লাগবে এক টাকা ৩০ পয়সা। আর রাজশাহী থেকে ঢাকা পর্যন্ত ৩৪৩ কিলোমিটার পথের জন্য প্রতি কেজি আমে ভাড়া দিতে হবে এক টাকা ১৭ পয়সা।
ম্যাংগো স্পেশাল ট্রেন চালু হলে এটি রহনপুর-চাঁপাইনবাবগঞ্জ-রাজশাহী হয়ে রাজধানী ঢাকায় যাবে। আবার ঢাকা থেকে রাজশাহী হয়ে রহনপুর আসবে। পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের এ বিশেষ ট্রেনে গত দুবছরের মতো এবারও খুব কম খরচে আম ছাড়াও টাটকা শাক-সবজিসহ অন্যান্য ফলমূল ঢাকায় নিয়ে যাওয়া যাবে।
জানা গেছে, ট্রেনটি চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে বিকেল ৪টায় ছেড়ে যাবে এবং ঢাকায় রাত ২টার দিকে পৌঁছাবে। এক্ষেত্রে খুব অল্প সময়ের মধ্যে ঢাকার বাজারগুলোতে আম পৌঁছানো সম্ভব হবে। দীর্ঘ যানজট ও উঁচু-নিচু জায়গা না থাকায় আমেরও কোনো ক্ষতির সম্ভাবনা নেই। শিডিউল অনুযায়ী, প্রতিদিন দুপুর ২টায় রহনপুর থেকে ছেড়ে রাত ১টায় আমবাহী ট্রেনটি ঢাকায় পৌঁছায়। আবার রাত ২টা ১৫ মিনিটে ঢাকা থেকে ছেড়ে রহনপুরে পৌঁছায় বেলা ১১টায়।
রাজশাহী থেকে কম খরচে ও কম সময়ে রাজধানী ঢাকায় আম পৌঁছাতে গত বছর ২৫ মে ম্যাংগো স্পেশাল ট্রেন চালু হয়। মোট পাঁচটি ওয়াগনে ঢাকায় যায় রাজশাহী অঞ্চলের আম। প্রতি বগির ক্যারিং ক্যাপাসিটি ৪৩ মেট্রিক টন হলেও আম বহন করা হয় ৩০ মেট্রিক টন। একইসঙ্গে শাক-সবজিসহ অন্যান্য ফলমূলও পরিবহন করা হয়। এ ট্রেনটি প্রথমবার চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে ২০২০ সালের ৫ জুন উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী। ওই বছরের ২১ জুলাই পর্যন্ত চলা ম্যাংগো ট্রেনে আম পরিবহন হয় ১ লাখ ৬৭ হাজার ৮২ কেজি।
রাজস্ব আয় হয় ২ লাখ ১১ হাজার ৪৫৮ টাকা। দ্বিতীয়বারের মতো ২০২১ সালের ২৫ মে আনুষ্ঠানিকভাবে ট্রেনটি চালু করা হয়। ট্রেনটি ১৬ জুলাই পর্যন্ত আম পরিবহন করে। এ বছর আম পরিবহন করা হয় ২ লাখ ৩৬ হাজার ৯৭৩ কেজি। রাজস্ব আসে ১৩ লাখ ৪৪ হাজার ৯২০ টাকা।

SHARE