মেয়েদের মধ্যেও ধূমপানের প্রবণতা দেখা যাচ্ছে

13

স্টাফ রির্পোটার : বর্তমানে মেয়েদের মধ্যেও ধূমপানের প্রবণতা দেখা যাচ্ছে বলে উল্লেখ করেছেন স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের অতিরিক্ত সচিব কাজী জেবুন্নেছা বেগম। বুধবার (৮ জুন) রাজশাহীতে আয়োজিত তামাকবিরোধী সেমিনারে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে তিনি এই মন্তব্য করেন।
দুপুরের দিকে রাজশাহী বিভাগীয় কমিশনারের সম্মেলন কক্ষে বিভাগীয় পর্যায়ের এই সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়। তাতে প্রধান অতিথি হিসেবে যুক্ত হন ‘ধূমপান ও তামাকজাত দ্রব্য ব্যবহার নিয়ন্ত্রণ কার্যক্রম’ পরিচালক কাজী জেবুন্নেছা বেগম।

ধূমপান ও তামাকজাত দ্রব্য ব্যবহার নিয়ন্ত্রণ কার্যক্রমের আওতায় এই সেমিনার আয়োজন করে স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের জাতীয় তামাক নিয়ন্ত্রণ সেল এবং রাজশাহী বিভাগীয় কমিশনার কার্যালয়। এতে বিভাগীয় পর্যায়ের সরকারি দপ্তরের প্রধানগণ অংশ নেন।
কাজী জেবুন্নেছা বেগম বলেন, তামাক এমন একটি জিনিস যার মধ্যে একটি গুণও নেই। এটা বিষ ছাড়া কিছুই নয়। তামাক সেবনে আমরা নিজেদের ক্ষতি করতে পারি না। ধূমপান করে আমরা শুধু নিজেরা ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছি তা নয়, পরোক্ষ ধূমপানকারীরাও ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে।

তিনি আরও বলেন, যুব সমাজকে ধূমপান থেকে সরাতে না পারলে তাদের ভবিষ্যৎ সুন্দর হবে না। জাতি ধ্বংস হয়ে যাবে। তিনি গণমাধ্যম কর্মীদের নিজ দায়িত্বের স্থান থেকে তামাকবিরোধী প্রচারণার অনুরোধ জানান।

সেমিনারে সভাপতিত্ব করেন রাজশাহীর বিভাগীয় কমিশনার জিএসএম জাফরউল্লাহ্। এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন জাতীয় তামাক নিয়ন্ত্রণ সেলের সমন্বয়কারী ও অতিরিক্ত সচিব হোসেন আলী খন্দকার।

সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ঢাকা মেডিকেল কলেজের অধ্যাপক ডা. সাকিল আহম্মদ। এতে প্যানেল আলোচক ছিলেন স্বাস্থ্য দপ্তরের বিভাগীয় উপপরিচালক ডা. হাবিবুল আহসান তালুকদার ও পুলিশের রাজশাহী রেঞ্জের ডিআইজি আব্দুল বাতেন।

সেমিনারে বক্তারা তামাক উৎপাদনে কৃষকদের নিরুৎসাহিত করতে সরকারি উদ্যোগ জোরদার করা, তামাকজাত দ্রব্য ব্যবহার নিয়ন্ত্রণ আইনের যথাযথ প্রয়োগ নিশ্চিত করা এবং তামাক বিরোধী জনসচেতনতা বাড়ানোর প্রতি গুরুত্বারোপ করেন।

SHARE