সাবেক খাদ্যমন্ত্রী কামরুল রামেক হাসপাতালে ভর্তি

29

স্টাফ রির্পোটার : ডায়রিয়া ও ডায়াবেটিস সমস্যা নিয়ে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন সাবেক খাদ্যমন্ত্রী অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম। বুধবার (১১ মে) সকাল সাড়ে ১০টার দিকে রাজশাহী সার্কিট হাউস থেকে তাকে রামেক হাসপাতালে নেওয়া হয়। বর্তমানে তিনি হাসপাতালের ভিআইপি কেবিনে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

রামেক হাসপাতালের পরিচালক বিগ্রেডিয়ার জেনারেল শামীম ইয়াজদানী জানান, কামরুল ইসলামের অবস্থা এখনো স্থিতিশীল নয়। সকালে তার অন্তত ১০ বার টয়লেট হয়েছে। তার শরীরে পানিশূন্যতা দেখা দিয়েছে। রক্তচাপ কমে গেছে। ভর্তির পর তাকে প্রয়োজনীয় সব চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

এদিকে অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলামের চিকিৎসায় অধ্যাপক খলিলুর রহমানকে প্রধান করে মেডিকেল বোর্ড গঠন করা হয়েছে। বর্তমানে তিনি চিকিৎসকদের পর্যবেক্ষণে রয়েছেন। অবস্থার উন্নতি না হলে এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে করে তাকে ঢাকায় নেওয়া হবে।

আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম ঢাকা-২ আসনের সংসদ সদস্য। বার কাউন্সিল নির্বাচনে প্রচারণায় অংশ নিতে মঙ্গলবার তিনি রাজশাহীতে আসেন। বুধবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে রাজশাহী ১ নং বার ভবনে বঙ্গবন্ধু আওয়ামী আইনজীবী পরিষদ সমর্থিত সম্মিলিত আইনজীবী সমন্বয় পরিষদ মনোনীত প্যানেল পরিচিতি সভায় অংশ নেওয়ার কথা ছিল সাবেক এই মন্ত্রীর।
এদিকে, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য সাবেক খাদ্যমন্ত্রী এ্যাড. কামরুল ইসলাম এমপিকে দেখতে বুধবার দুপুরে হাসপাতালে তাঁকে দেখতে যান বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য ও রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মেয়র এ.এইচ.এম খায়রুজ্জামান লিটন। এ সময় তাঁর শারিরীক অবস্থা ও চিকিৎসা সহ সার্বিক বিষয়ে খোঁজখবর নেন এবং প্রয়োজনীয় চিকিৎসা নিশ্চিত করতে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে নির্দেশনা দেন সিটি মেয়র।
এ সময় রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক বিগ্রেডিয়ার জেনারেল শামীম ইয়াজদানী, রাজশাহী মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ ডা. নওশাদ আলী, চিকিৎসার জন্য গঠিত মেডিকেল বোর্ডের প্রধান ডা. মো. খলিলুর রহমান সহ অন্যান্য চিকিৎসকবৃৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, বাংলাদেশ বার কাউন্সিল সদস্য নির্বাচন-২০২২ উপলক্ষে বঙ্গবন্ধু আওয়ামী আইনজীবী পরিষদ সমর্থিত সম্মিলিত আইনজীবী সমন্বয় পরিষদ মনোনীত প্যানেলের প্যানেল পরিচিত সভায় যোগ দিতে মঙ্গলবার রাজশাহীতে আসেন এ্যাড. কামরুল ইসলাম এমপি।

SHARE