ঝগড়া থামাতে গিয়ে যৌন নির্যাতনের মামলা, মুক্তির দাবিতে মানববন্ধন

35

বগুড়া প্রতিনিধি : বগুড়ার শিবগঞ্জে বিদেশ ফেরত এক যুবকের বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলা প্রত্যাহার ও নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ করেছেন এলাকাবাসী। আজ শুক্রবার সকাল ১০টার দিকে শিবগঞ্জ সদর ইউনিয়নের বত্রিশ মধ্যপাড়া গ্রামে এ মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেন তারা।

মানববন্ধনে বত্রিশ গ্রামের স্থানীয় বাসিন্দারা বক্তব্য রাখেন। এ সময় তাঁরা বলেন, যৌন হয়রানির অভিযোগে গ্রেপ্তারকৃত মামুন দীর্ঘ ৫ বছর মালয়েশিয়া ছিল। করোনা মহামারির মধ্যে দেশে ফেরেন তিনি। এদিকে দীর্ঘদিন যাবৎ মামুনের বাবা ও চাচাদের মধ্যে বাড়ির জায়গা নিয়ে দ্বন্দ্ব চলছিল। ঘটনার দিন মামুনের চাচাতো ভাইয়ের বউ লুবনা আক্তার ও তার পরিবারের লোকজনের মাঝে ঝগড়া হয়।
তখন মামুন ঝগড়া থামাতে গেলে ভাবি লুবনা মামুনের ওপর ক্ষিপ্ত হয়ে থানায় মামলার হুমকি দেয়। পরে গত ২২ এপ্রিল থানায় যৌন নির্যাতনের মিথ্যা মামলা দায়ের করে।

মানববন্ধনে মামুনের বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলার সাক্ষী ও মামুনের চাচি লিলি বেগম বলেন, ‘আমাকে না জানিয়ে ওই মামলার সাক্ষী করা হয়েছে। আমার ভাতিজা মামুন খুব ভালো ছেলে। সেদিন ঝগড়াঝাঁটিতে শুধু কথাকাটাকাটির ঘটনা ঘটেছে। কিন্তু ওই মেয়ে (লুবনা) যৌন হয়রানির মিথ্যা মামলা করেছে। আমি মামুনের মুক্তি চাই।’

মানববন্ধনে বত্রিশ গ্রামের স্থানীয় বাসিন্দা ও শিবগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান সোহেল রানা, মঈনুদ্দিন, নজের আলী, আব্দুর রশিদ, হবিবর রহমান, আজিজার রহমানসহ শতাধিক মানুষ উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, গত ২২ এপ্রিল ওই গ্রামের প্রবাসী মাহিনুর ইসলামের স্ত্রী লুবানা খাতুন মামুনের বিরুদ্ধে যৌন নির্যাতনের মামলা করলে, পুলিশ মামুনকে আটক করে জেল হাজতে পাঠায়।

SHARE