তালবোনরে হুমকি : পালাতে হলো সইে ‘আফগান মেসি’কে

281

গণধ্বনি  ডস্কে : র্আজন্টোইন ফুটবল জাদুকর লওিনলে মসেরি র্জাসরি আদলে তরৈি একটি পলথিনি গায়ে জড়য়িে সারাবশ্বিে সাড়া জাগয়িছেলিো এক আফগান শশিু। লটিল মসেি হসিবেে খ্যাতি পাওয়া সইে শশিুর সঙ্গে দখো করছেনে মসেি নজিওে। তবে শষের্পযন্ত প্রাণ বাঁচাতে দ্বতিীয়বাররে মতো আফগানস্তিান নজিরে বাড়ি ছড়েে পালাতে হয়ছেে সাত বছর বয়সী এই শশিুক।ে তবে তার পরবিাররে সদস্যরা জানান তালবোনরে ভয়ে ঘরবাড়ি ছড়েে পালাতে হয়ছেে তাদরে। আফগানস্তিানরে দক্ষণি র্পূবাঞ্চলীয় গজনী প্রদশেে বসবাস করছলিো মুরতাজার পরবিার। হুমকরি মুখে পালয়িে আশ্রয় নয়িছেনে কাবুল।ে এর আগে ২০১৬ সালওে তারা পাকস্তিানে স্বল্পময়োদে শরর্ণাথী সুবধিা পতেে আবদেন করছেলিো। কন্তিু পরে র্অথ শষে হয়ে পড়ায় দশেে ফরিে আসে তার পরবিার। ২০১৬ সালে প্লাস্টকি ব্যাগ দয়িে মসেরি র্জাসি বানয়িে তা পরে ছবি তোলে মুরতাজা আহমাদী নামে ওই শশিু। মুর্হূতে ছবটিি সামাজকি যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়ে পড়। পরে কাতারে স্বপ্নরে নায়করে সাথে সাক্ষাতও হয়ছেলিো তার। রীতমিত তারকা হয়ে যান ছোটো মুরতাজা।
ছোট থকেইে র্আজন্টোইন তারকা লওিনলে মসেরি ভক্ত মুরতাজা। র্জাসি কনোর সার্মথ্য নইে, তাই পলথিনি কটেে র্জাসি বানয়িে তার ওপর মসেরি নাম ও র্জাসি নাম্বার লখিে পরধিান করছেলিো মাত্র পাঁচ বছর বয়স।ে পরে সইে র্জাসি পরা তার ছবি কউে একজন পোস্ট করে সামাজকি মাধ্যম।ে এরপর সটেি ভাইরাল হয়ে পড়ে আর লোকজনও তাকে ‘ছোটো মসে’ি ডাকতে শুরু কর।ে খবরটি পৌঁছায় লওিনলে মসেি র্পযন্ত। ইউনসিফেরে মাধ্যমে তনিি নজিরে স্বাক্ষর করা র্জাসি পাঠান মুরতাজাক।ে এছাড়া র্বাসা তারকা ২০১৬ সালে দোহাতে প্রীতি ম্যাচ খলেতে গলেে তখন মুরতাজার সঙ্গে সাক্ষাতরে ব্যবস্থা করা হয়। মুরতাজার পরবিাররে অভযিোগ, বখ্যিাত হওয়ার কারণইে তালবোনদরে র্টাগটেে পরণিত হয়ছেে মুরতাজা। তার মা শাফকিা বলছনে, “ওরা বলছে তোমরা ধনী হয়ে গছেো। মসেরি কাছ থকেে যা টাকা পয়েছেো তা আমাদরে দাও। নাইলে তোমার ছলেকেে নয়িে যাবো”। তনিি বলছনে বাড়ি থকেে আসার সময় তারা কছিুই সাথে নতিে পারনেন,ি এমনকি মসেরি কাছ থকেে পাওয়া র্জাসটিাও।

SHARE