প্রক্টরিয়াল বডির অপসারণ চান রাবি শিক্ষার্থীরা

33

স্টাফ রির্পোটার : রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় (রাবি) ক্যাম্পাসে পরপর কয়েকটি ছিনতাইয়ের ঘটনা ও শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তা দিতে ব্যর্থ হওয়ায় প্রক্টরিয়াল বডির অপসারণ দাবি করেছেন শিক্ষার্থীরা। বুধবার (১৯ জানুয়ারি) বেলা ১১টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ বুদ্ধিজীবী চত্বরে মানববন্ধনে এ দাবি করেন তারা।

শিক্ষার্থীরা বলছেন, বিভিন্ন সময়ে শিক্ষার্থীরা ছিনতাইয়ের শিকার হয়ে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের কাছে সহায়তা চাইলে তারা পুলিশের কাছে যেতে বলেন। শিক্ষার্থীদের প্রশ্ন যদি সব কিছু নিয়ে পুলিশের কাছে যেতে হয় তাহলে প্রক্টরিয়াল বডির কাজ কী?

শিক্ষার্থীদের দাবি, এসব ঘটনায় প্রক্টরিয়াল বডি দায়িত্বে অবহেলা করছে। পাশাপাশি বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন সম্পর্কে অজ্ঞতা আছে। প্রক্টরের মতো পদে তাদের দায়িত্ব কী, সেটা আগে দেখা উচিত। একজন প্রক্টর, সহকারী প্রক্টরের দায়িত্ব কী? তারা যদি না জানেন তবে আপনার চেয়ারে থাকার দরকার নেই। আবার ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটলে প্রশাসনিক ভবনে তালা ঝোলানোর হুঁশিয়ারি দেন তারা।

এ সময় ছাত্র অধিকার পরিষদের সাংগঠনিক সম্পাদক আমান উল্লাহ আমানের সঞ্চালনায় রাকসু আন্দোলন মঞ্চের সমন্বয়ক আব্দুল মজিদ অন্তর বলেন, শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তাহীনতার যে পরিবেশ সৃষ্টি হয়েছে এর সম্পূর্ণ দায়ভার এই প্রক্টরিয়াল টিমের। তারা বিশ্ববিদ্যালয়কে অরক্ষিত করে তুলেছেন। শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তা ঝুঁকির মধ্যে ফেলে দিয়েছেন।

শিক্ষার্থীরা যখন প্রক্টরিয়াল টিমের কাছে লিখিতভাবে কোনো অভিযোগ দিচ্ছেন তখন তারা বলে এ বিষয়ে তোমরা থানায় জিডি করো, মামলা করো। থানায় যদি আমাদেরকে যেতে হয় তাহলে প্রক্টরিয়াল টিমের কাজ কী? বলে প্রশ্ন ছুড়ে দেন তিনি। প্রক্টরিয়াল বডির অপসারণ দাবি করেন তিনি।

এ সময় শিক্ষার্থীরা বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে উদ্দেশ্য করে বিভিন্ন বার্তা ও দাবি-সম্বলিত প্ল্যাকার্ড প্রদর্শন করেন। ‘রাবির ৭৫৩ একর, ছিনতাইকারীদের আঁতুড়ঘর’, ‘শিক্ষার্থীদের গলায় ছুরি, ক্যাম্পাসে পুলিশ ভূরিভূরি’, ‘বহিরাগতদের উৎপাত ছিনতাইকারীদের লুটপাট’, ‘কোথায় প্রশাসন কোথায় তোমার কর্ণপাত?’, ‘রাবি কি ছিনাতাইয়ের কারখানা?-সহ বিভিন্ন প্ল্যাকার্ড প্রদর্শন করেন তারা।

মানববন্ধনে ছাত্র অধিকার পরিষদ, ছাত্র ফেডারেশনসহ বিভিন্ন সংগঠনের নেতা-কর্মী ও শতাধিক শিক্ষার্থী উপস্থিত ছিলেন।

SHARE