নগরীতে চিকিৎসক পরিচয়ে প্রতারণা, গ্রেফতার ২

49

স্টাফ রির্পোটার : রাজশাহী নগরীতে চিকিৎসক পরিচয়ে প্রতারণার দায়ে দুইজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। মঙ্গলবার (১৮ জানুয়ারি) দুপুরের দিকে নগরীর লক্ষ্মীপুর এলাকা থেকে তাদের গ্রেফতার করে নগরীর রাজপাড়া থানা পুলিশ।

গ্রেফতাররা হলেন- নগরীর কেশবপুর এলাকার নজরুল ইসলামের ছেলে সালমান শরিফ বাবু (৩৫) ও চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার গোমস্তাপুর উপজেলার মকরমপুরের মইদুল ইসলামের ছেলে জাহিদুল ইসলাম জাহিদ (৩৭)। জাহিদ নগরীর লক্ষ্মীপুর কাঁচাবাজার এলাকায় ভাড়া বাসায় বাস করেন।

অভিযুক্ত দুইজন চিকিৎসক পরিচয়ে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে ভর্তি এক রোগীর রক্ত সংগ্রহ করেছিলেন। পরীক্ষার নামে অর্থ আদায় এবং রোগীর স্বজনদের মারপিট করারও অভিযোগ রয়েছে তাদের বিরুদ্ধে।

নগরীর রাজপাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাজহারুল ইসলাম জানান, নওগাঁর আত্রাই থানার মাধবপুর গ্রামের বাসিন্দা সিরাজুল ইসলাম রামেক হাসপাতালের ১৬ নং ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন। সোমবার (১৭ জানুয়ারি) দিবাগত রাত ১০টার দিকে অভিযুক্ত সালমান শরিফ চিকিৎসক পরিচয়ে তার রক্ত নেন। ওই সময় আরও কয়েকজনের রক্ত নেন শরিফ। প্রত্যেকেই ভেবেছিলেন তিনি হাসপাতালের চিকিৎসক।

ঘণ্টাখানেক পর সিরাজুল ইসলামের ছেলেকে রাজশাহী ডায়াগনস্টিক সেন্টার থেকে পরীক্ষার রিপোর্ট সংগ্রহ করার কথা বলেন শরিফ। রাত ১১টার দিকে সেখানে রিপোর্ট নিতে যান সুমন। ওই সময় তার কাছে ৪ হাজার টাকা দাবি করে ডায়াগনস্টিক সেন্টার কর্তৃপক্ষ।

সুমন জানান, হাসপাতালের চিকিৎসক ভেবে তারা পরীক্ষা করার জন্য রক্ত দিয়েছেন। এতো টাকা দেওয়ার সামর্থ্য তাদের নেই। তিনি তার বাবার কাগজ ফেরত চেয়েছিলেন।

কিন্তু কাগজপত্র ফিরিয়ে না দিয়ে তাকে আটকে রেখে শরিফ ও জাহিদসহ আরও দুজন মিলে মারপিট করে। সঙ্গে থাকা ৪ হাজার ৫০ টাকা ছিনিয়ে নেয়। পরে রাজপাড়া থানা পুলিশকে অভিযোগ দেন ভুক্তভোগী।

মঙ্গলবার দুপুরের দিকে অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত দুজনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। তাদের বিরুদ্ধে আইনত ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। অজ্ঞাত আসামিদের সনাক্ত করে আইনের আওতায় আনার চেষ্টা বলছে বলেও জানান ওসি।

SHARE