ঈশ্বরদী লোকোসেড পরিদর্শনে পশ্চিমাঞ্চল জিএম

21

অনলাইন ডেস্ক : রেলওয়ে ব্যবস্থাকে আধুনিক যুগোপযোগী করতে এবং যাত্রী সেবার মান বাড়াতে পাকশী বিভাগীয় রেলওয়ের আওতাধীন ঈশ্বরদী লোকোমোটিভ কারখানা (লোকোসেড) পরিদর্শন করেছেন পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের মহা-ব্যবস্থাপক (জিএম) অসীম কুমার তালুকদার।

শুক্রবার সকাল ১০টায় পাকশী বিভাগীয় রেলওয়ের আওতাধীন ঈশ্বরদী লোকোসেড লোকোমোটিভ কারখানা পরিদর্শন করেন।
এর আগে সকালে তিনি রাজশাহী থেকে আন্তঃনগর মধুমতি এক্সপ্রেস ট্রেনে তিনি ঈশ্বরদী জংশন স্টেশনে এসে পৌঁছালে পাকশী বিভাগীয় রেলওয়ের কর্মকর্তাগন তাকে ফুল দিয়ে অভ্যর্থনা জানান। পরে তিনি ঈশ্বরদী জংশন স্টেশন পরিদর্শন করেন।
এসময় উপস্থিত ছিলেন- পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের প্রধান পরিবহন কর্মকর্তা, শহিদুল ইসলাম, পাকশী বিভাগীয় রেলওয়ের ব্যবস্থাপক (ডিআরএম) শাহীদুল ইসলাম, পাকশী বিভাগীয় পরিবহন কর্মকর্তা, আনোয়ার হোসেন, পাকশী বিভাগীয় প্রকৌশলী-২ আব্দুর রহিম, পাকশী বিভাগীয় বৈদ্যুতিক প্রকৌশলী রিফাত শাকিল, পাকশী বিভাগীয় যান্ত্রিক প্রকৌশলী (ক্যারেজ) মমতাজুল ইসলাম, পাকশী বিভাগীয় যান্ত্রীয় প্রকৌশলী (লোকো) আশীষ কুমার মণ্ডল প্রমুখ।
জিএম অসীম কুমার তালুকদার বলেন, রেলওয়েতে যাত্রীসেবার মান বাড়াতে বর্তমান সরকার বিভিন্ন প্রকল্পের মাধ্যমে বিভিন্ন পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করছে।
এছাড়া ভ্রমণপ্রিয় ট্রেন যাত্রীরা ভোগান্তি ছাড়া স্বাচ্ছন্দ্যে যেন ট্রেন ভ্রমণ করতে পারে তারই ধারাবাহিতায় পাকশী বিভাগীয় রেলওয়ের প্রতিটি দফতরের কর্মকর্তাদের দিকনির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।
এছাড়া ঈশ্বরদী লোকোসেড, ঈশ্বরদী জংশন স্টেশনসহ গুরুত্বপূর্ণ কিছু পয়েন্টে রেলওয়ের উন্নয়নের চলমান কিছু কাজ চলছে। এ ব্যাপারে সরকারের বিভিন্ন পরিকল্পনা রয়েছে। প্রকল্পের কাজগুলো বাস্তবায়ন হলে, ট্রেন চলাচলে ভোগান্তি কমে আসবে এবং ভ্রমণপ্রিয় যাত্রীদের ট্রেন ভ্রমণে আরও বেশি স্বাচ্ছন্দ্য আসবে। এছাড়া কোথাও কোনো ক্রটি আছে কিনা, সমস্যা সৃষ্টি হচ্ছে কিনা বিষয়গুলো খতিয়ে দেখে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

SHARE