রাসিক ৯নং ওয়ার্ডে উপ নির্বাচন, জমে উঠেছে নির্বাচনী প্রচারণা

21

স্টাফ রির্পোটার : আসন্ন ৯ নম্বর ওয়ার্ড উপ-নির্বাচনকে সামনে রেখে প্রচারণা জমে উঠেছে। ৯নং ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে এবার পাঁচ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। তারা ওয়ার্ডে উন্নয়ন, নাগরিক অধিকার নিশ্চিত এবং ওয়ার্ডবসীর দুঃখ-দুর্দশায় পাশে থাকার প্রতিশ্রুতি দিয়ে প্রচারণা চালিয়ে আসছেন। ৭ সেপ্টেম্বর অনুষ্ঠিত হবে ভোটগ্রহণ। এখানকার ভোটাররা প্রথমবারের মতো ইলেক্ট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) পদ্ধতিতে ভোট দেওয়ার স্বাদ গ্রহণ করবেন। ভোট নিয়ে সব বয়সের মধ্যে যথেষ্ট আগ্রহ দেখা গেছে। প্রতীক বরাদ্দের পর থেকে জমে উঠেছে নির্বাচনি মাঠ।

নির্বাচনকে সামনে রেখে প্রচারণায় এগিয়ে আছেন রাসেল জামান। বৃহস্পতিবার (৩০ সেপ্টম্বর) বিকেলে ওয়ার্ডের বিভিন্ন এলাকায় তার কর্মী সমর্থকরা টিফিন ক্যারিয়ার প্রতীকের প্রচারণা চালায়। এদিন ওয়ার্ডের বিভিন্ন সড়কে কর্মীরা প্রচারণা চালায়। এসময় কাউন্সিলর প্রার্থী রাসেল জামান বাড়ি বাড়ি গিয়ে ভোট চান। ভোটারা রাসেল জামানকে ভোট দেওয়ার প্রতিশ্রুত দেন। অন্যদিকে, ওয়ার্ডে অন্য প্রার্থীদের গণসংযোগ করতে দেখা গেছে। প্রার্থীরা নিজে থেকে বা কর্মীদের নিয়ে মানুষের দোয়ারে দোয়ারে গিয়ে ভোট প্রার্থণা করছেন। এছাড়া পুরো ওয়ার্ডে প্রার্থীদের ব্যানার-পোস্টারে ছেয়ে গেছে।

কাউন্সিলর পদপ্রার্থী রাসেল জামান জানান, আমি প্রত্যাশা করি দলমত ভুলে সবাই আমাকে ভোট দেবে, এলাকার উন্নয়নের স্বার্থে। করোনাকালীন সময় ছাড়াও অতিতে আমি ও আমার পরিবার মানুষের পাশে থেকেছি। আবারও থাকতে চাই। এই নির্বাচনে আমি জয়ী হয়ে ওয়ার্ডবাসীর সেবা করতে চাই।

তিনি বলেন, প্রচার-প্রচারণায় গণজোয়ার সৃষ্টি হয়েছে। ওয়ার্ডবাসী চাচ্ছে আমাকে। তাই গণসংযোগগুলো মানুষের উপচে পড়া ভীর হচ্ছে। সবমিলে এলাকায় নির্বাচনী পরিবেশ বিরাজ করছে। অন্য প্রার্থীরাও তাদের নিজ নিজ প্রচারণা চালাচ্ছেন।

ওয়ার্ডে নির্বাচনকে সামনে রেখে কাউন্সিলর প্রার্থী সাইফুল্লাহ শান্ত করাত প্রতীক নিয়ে নির্বাচনে অংশ নিয়েছে। তার পক্ষেও চলছে প্রচার-প্রচারণা। বিকেলে তার পক্ষেও প্রচারণায় নামে বিভিন্ন বয়সী নারী-পুরুষ।

প্রসঙ্গত, আগামি ৭ অক্টোবর এই ওয়ার্ডটি নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। আর আগামী ৫ অক্টোবর পর্যন্ত প্রার্থীরা নিজের প্রচার-প্রচারণা চালিয়ে যেতে পারবেন।

SHARE