নিহত চঞ্চলের পরিবারের দায়িত্ব নিলেন এমপি এনামুল

132

জিল্লুর রহমান : রাজশাহীর বাগমারায় মনোনয়ন বিরোধকে কেন্দ্র করে ছুরিকাঘাতে নিহত যুবলীগ নেতা চঞ্চল কুমারের পরিবারের ব্যয়ভার বহনের ঘোষণা দিয়েছেন এমপি ইঞ্জিনিয়ার এনামুল হক। সোমবার সকালে নিহত চঞ্চলের বাড়িতে যান এমপি এনামুল। এদিকে এ ঘটনায় নিহত যুবলীগ নেতার ভাই অমল কুমার রোববার রাতে নয়জনকে আসামী করে বাগমারা থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেছেন।

সকাল ১০টার দিকে নিহত যুবলীগ নেতা চঞ্চলের বাড়ি তাহেরপুর পৌরসভার জেলেপাড়া মহল্লায় যান এমপি এনামুল হক। এ সময় তিনি চঞ্চলের স্ত্রী শ্রীমতী টপি রাণীসহ পরিবারের সদস্যদের সাথে কথা বলেন। চঞ্চলের দুই বছরের পুত্র সন্তান গুঞ্জনকে কোলে তুলে নেন এবং আদর করেন। এমপি এসময় পরিবারের সদস্যদের আর্থিক ব্যয়ভার বহনের আশ্বাস দেন এবং নগদ ১ লাখ ২০ হাজার টাকা প্রদান করেন।

এমপি এনামুল বলেন, চঞ্চলের মৃত্যুতে আমি শোকাহত। আমি হত্যার তীব্র প্রতিবাদ জানাচ্ছি। এ ঘটনার সঙ্গে সম্পৃক্তদের আটক করে বিচারের কাঠগোড়ায় দাঁড় করানোর জন্য ইতোমধ্যে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে নির্দেশ দিয়েছি। আর নিহত চঞ্চলের স্ত্রী টপি রাণীকে এনা গ্রুপে চাকরি দেয়া হবে। অচিরেই তিনি এনাগ্রুপে ভালো বেতনে যোগদান করবেন।

এদিকে যুবলীগ নেতা চঞ্চল নিহতের ঘটনায় সম্পৃক্তদের আটকের জন্য পুলিশ অভিযান চালাচ্ছে বলে জানিয়েছেন বাগমারা থানার ওসি নাছিম আহম্মেদ। তিনি বলেন, মামলা দায়ের হয়েছে। তদন্তের স্বার্থে আসামীদের নাম বলছি না। তবে তাদের আটকের জন্য পুলিশের বেশ কয়েকটি টিম মাঠে সক্রিয় রয়েছে। আশা করছি, অচিরেই তাদের গ্রেফতার করা সম্ভব হবে।

প্রসঙ্গত, শনিবার দুপুর ১২টার দিকে স্থানীয় আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপে সংঘর্ষের সময় তাহেরপুর পৌরসভা যুবলীগের সভাপতি চঞ্চল কুমার ছুরিকাঘাতে আহত হলে তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি বিকাল চারটায় মৃত্যুবরণ করেন।

SHARE