নৈশ্যপ্রহরী আনিসুর হত্যায় গ্রেফতার চারজন

63

স্টাফ রিপোর্টার : রাজশাহী মহানগরীর নওদাপাড়ায় অটোরিকশার গ্যারেজে নৈশ্যপ্রহরী আনিসুর রহমান (৭০) খুনের ঘটনায় চারজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের (পিবিআই) রাজশাহীর একটি দল বুধবার (১ সেপ্টম্বর) থেকে বৃহস্পতিবার (২ সেপ্টম্বর) পর্যন্ত অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করে।
গ্রেফতারকৃতরা হলেন, মাহফুজ (৪৯), আজিজার (৩০), রুমন (২৪) এবং আবুল হোসেন (৫০)। মাহফুজ ও আজিজারকে নড়াইল থেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। সম্পর্কে তাঁরা সৎভাই। মাহফুজ দীর্ঘদিন রাজশাহীতে থাকেন। চুরি, ছিনতাই, ডাকাতি তার পেশা।

একবার ডাকাতি করতে গিয়ে ধরা পড়ে বিক্ষুব্ধ লোকজন মাহফুজের হাত-পা ভেঙ্গে দিয়েছিলেন। তিনি এখনও পঙ্গু। তবে আনিসুর হত্যার মূল পরিকল্পনাকারীই তিনি, বলছে পিবিআই।

আনিসুরকে হত্যার পর তিনিই অটোরিকশা নিয়ে চলে গিয়েছিলেন নড়াইলের লোহাগড়া। সেখানে সৎভাই আজিজার ও রবিউলকে গাড়িটি দিয়েছিলেন। রবিউলকে পিবিআই ধরতে পারেনি।

পিবিআই সূত্রে জানা গেছে, গ্রেফতার চারজনই এই হত্যাকা- ও অটোরিকশা চুরির সঙ্গে জড়িত। প্রথমে মাহফুজকে গ্রেপ্তারের পর সবার বিষয়ে তথ্য পাওয়া যায়। এরপর একে একে সবাইকে গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তার রুমন ও আবুল হোসেনের বাড়ি রাজশাহী নগরীতেই। এরমধ্যে নগরীর আমচত্বর এলাকায় আবুলেরও অটোরিকশার গ্যারেজ আছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে আরও জানা গেছে, ঘটনার পর থেকেই পিবিআই ঘটনার ছায়া তদন্ত করছিল। তদন্তের দায়িত্ব নেওয়ার জন্য পিবিআই স্বপ্রণোদিত হয়ে রাজশাহী নগর পুলিশের (আরএমপি) কাছে অনুরোধও করে। তবে আরএমপির পক্ষ থেকে মামলা হস্তান্তর করা হয়নি। তারপরও পিবিআই ক্লু লেস এ হত্যার রহস্য উদঘাটন করল।
আরএমপির মুখপাত্র গোলাম রুহুল কুদ্দুস বলেন, ‘পিবিআই চারজনকে গ্রেফতারের পর (বৃহস্পতিবার) বিকালে আমাদের কাছে হস্তান্তর করেছে।

অটোরিকশাও উদ্ধার হয়েছে। তবে পিবিআই মামলার তদন্তভার চেয়েছে কি না তা আমার জানা নেই।’

গত রোববার দিবাগত রাতে নগরীর নওদাপাড়া এলাকায় গ্যারেজে হাত, পা বেঁধ শ্বাসরোধ করে নৈশ্যপ্রহরী আনিসুরকে খুন করা হয়। এরপর একটি অটোরিকশা চুরি করা হয়। এ নিয়ে অজ্ঞাত ব্যক্তিদের আসামি করে নগরীর শাহমখদুম থানায় একটি হত্যা মামলা হয়।

SHARE