নগরীতে শিক্ষার্থীদের দেওয়া হচ্ছে করোনার টিকা

28
১৮ বছরের বেশি সরকারি-বে সরকারি কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা রেজিস্ট্রেশন করে এই টিকা নিচ্ছে।

স্টাফ রির্পোটার : রাজশাহী নগরীতে শিক্ষার্থীদের দেওয়া হচ্ছে করোনার টিকা। ১৮ বছরের বেশি সরকারি-বে সরকারি কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা রেজিস্ট্রেশন করে এই টিকা নিচ্ছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে রাজশাহী সিভিল সার্জন ডা. কাইয়ুম তালুকদার জানান, ১৮ বছর হলেই সবাই টিকা পাবে বিষয়টি এমন নয়। শুধুমাত্র কলেজ ও বিশ^বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের জন্য টিকা কার্যকর হয়েছে। শিক্ষার্থীদের বাইরে অন্য পেশা ও ১৮ বছরের বেশি হলে টিকা দেওয়া হচ্ছে না। ২৫ বছরের কম ১৮ বছরের যে সকল মানুষ টিকা নিচ্ছে তারা বিভিন্ন কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী। এই শিক্ষার্থীদের শুধু নগরীর টিটিসি টিকা কেন্দ্রে টিকা দেওয়া হচ্ছে।
২১ আগস্ট নগরীর টিটিসি টিকা কেন্দ্র গিয়ে দেখা যায়, টিকা নিতে শিক্ষার্থীদের ভিড়। বেশির ভাগ শিক্ষার্থী নগরীর বিভিন্ন কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা করছে। কথা হয় কয়েকজন শিক্ষার্থীদের সাথে। রাজশাহী বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের শিক্ষার্থী ফাতিন ইশরাক জানান, গত কয়েকদিন আগে রেজিস্ট্রেশন করি পরে এই কেন্দ্রে আসার বিষয়ে কর্তপক্ষ জানায় আজ এসে টিকা নিলাম। আমার পরিচিত অনেক শিক্ষার্থী টিকা নিচ্ছে।
নর্থবেঙ্গল বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী আকাশ জানান, টিকা নেওয়ার কয়েকদিন আগে একটি সংবাদ মাধ্যমে জানতে পারি। যাদের বয়স ১৮ বছরের বেশি তারা সবাই করোনাভাইরাসের টিকা নিতে পারবেন। পরে রেজিস্ট্রেশন করি। আজ টিকা নিলাম, ভালো লাগছে। সকল শিক্ষার্থীদের এভাবে টিকা দিয়ে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলে দিলে ভালো হয়।
এদিকে (২৩ আগস্ট সোমবার) রাজশাহী বিভাগের টিকা নিয়েছে মোট ৬০ হাজার ৭১ । যার মধ্যে অ্যাস্ট্রাজেনেকা দ্বিতীয় ডোজ টিকা নিয়েছে ২ হাজার ৭২৫ জন। এদিনে অ্যাস্ট্রাজেনেকা প্রথম ডোজের টিকা দেওয়া হয়নি। সিনোফার্মার প্রথম ডোজ টিকা নিয়েছে ৩৯ হাজার ২৫ জন। সিনোফার্মার দ্বিতীয় ডোজের ১৬ হাজার ৯১ জনকে দেওয়া হয়েছে। এছাড়াও মর্ডানার দ্বিতীয় ডোজের টিকা নিয়েছে ২ হাজার ২৩০ জন। এদিন মর্ডানার প্রথম ডোজের টিকা দেওয়া হয়নি।

SHARE