করোনার টিকা নিলেই মিলছে ফল ও জুস

15

স্টাফ রির্পোটার : যারা করোনার টিকা নিচ্ছেন তাদের প্রত্যেককে দেওয়া হচ্ছে একটি করে প্যাকেট। প্রতিটি প্যাকেটে আছে ১টি আপেল, ১টি জুস প্যাকেট (২০০মিলি), ১ বোতল পানি (২৫০মিলি), মাস্ক ১টি ও নাপা ট্যাবলেট ২টি। রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের ১৪নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোঃ আনোয়ার হোসেন আনার এই ব্যক্তিক্রমী উদ্যোগ নিয়েছেন। করোনার টিকা নিতে এসে অপ্রত্যাশিতভাবে ফল, জুস, পানি, মাস্ক ও ওষুধ পেয়ে অত্যন্ত খুঁশি ওয়ার্ডবাসী।

রাজশাহী মহানগরীতে ওয়ার্ড পর্যায়ে গণটিকা কার্যক্রম শুরু হলে ওয়ার্ডবাসীকে টিকা নিতে আগ্রহী করতে এই উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে বলে জানান কাউন্সিলর মোঃ আনোয়ার হোসেন আনার। তিনি জানান, গত ৭ আগস্ট থেকে নগরীতে ৩০টি ওয়ার্ডে গণটিকা প্রদান কর্মসূচি শুরু হয়। ৭ আগস্ট ১৪নং ওয়ার্ডে ৫৪৩ জনকে এবং ৮ আগস্ট ৭৮০ জনকে মর্ডানার ১ম ডোজ টিকা প্রদান করা হয়। দুইদিনে টিকাগ্রহণকারী সবাইকে কমলা, জুস, পানি, মাস্ক ও ওষুধ প্রদান করা হয়েছে। ১৪ আগস্ট প্রায় ১৮০০জনকে টিকা প্রদান করা হয়েছে। তাদের সবাইকে ১টি আপেল, এক প্যাকেট জুস, ১ বোতল পানি, মাস্ক ১টি ও ২টি নাপা ট্যাবলেট দিয়েছি। আগামী ১৬ আগস্টও যারা টিকা নিবেন, তাদেরকেও একইভাবে আপ্যায়ন করা হবে। এরপরেও যতদিন টিকাদান কার্যক্রম চলবে এতোদিন এভাবে আমাদের ওয়ার্ডের বাসিন্দাদের আপ্যায়ন করবো।

কাউন্সিলর আনোয়ার হোসেন আনারের উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছেন ওয়ার্ডবাসী। শনিবার টিকা নিতে আসা তেরখাদিয়া এলাকার বাসিন্দ রুপালি বেগম জানান, আমাদের ওয়ার্ড কার্যালয়ের পাশে প্যান্ডেল করে সেখানে পুরুষ ও মহিলা আলাদা বুথ করে টিকা দেওয়ার ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। সবাই সারিবদ্ধ হয়ে লাইনে দাঁড়িয়ে টিকা নিয়েছি। টিকা নিয়ে বেরিয়ে যাওয়ার সময় ওয়ার্ডকর্মীরা ডেকে হাতে একটি প্যাকেট তুলে দেন। টিকা নিতে এসে আমাকে এভাবে আপ্যায়ন করা হবে, সেটি ভাবিওনি।

আরেক টিকাগ্রহণকারী উপশহরনিবাসী শিমুল হোসেন বলেন, ৩০টি ওয়ার্ডের মধ্যে আমাদের ১৪নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর ব্যতিক্রমী উদ্যোগ গ্রহণ করেছেন। গত ৭ ও ৮ আগস্ট যারা টিকা নিয়েছেন, সবাইকে ফল, জুস, পানি দিয়েছেন বলে শুনেছি। আজকে আমি টিকা নিতে এসে নিজেও এসব পেলাম। টিকা নিতে এসে ফল, জুস, পানি এসব পেলে কার না ভালো লাগবে। আমরা অনেক খুঁশি। এই ব্যতিক্রমী উদ্যোগের জন্য কাউন্সিলর মহোদয়কে ধন্যবাদ জানাই।

SHARE