ভূয়া চিকিৎসক গ্রেফতার, যৌন উত্তেজক ওষুধ জব্দ

9

স্টাফ রিপোর্টার: রাজশাহীতে এক ভূয়া এমবিবিএস চিকিৎসককে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব। তাঁর নাম আবদুর রাকিব (৫০)। রাকিবের সঙ্গে তাঁর সহযোগী হিসেবে ছেলে ফজলে রাব্বীকেও (২১) গ্রেপ্তার করা হয়েছে। রোববার রাতে জেলার পুঠিয়া উপজেলার বানেশ্বর বাজার থেকে তাঁদের আটক করা হয়। বানেশ্বরে আবদুর রাকিবের একটি ওষুধের দোকান আছে। সেখানেই অভিযান চালায় র‌্যাব-৫ এর রাজশাহীর মোল্লাপাড়া ক্যাম্পের একটি দল।

সোমবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে র‌্যাব জানিয়েছে, আবদুর রাকিব নিজেকে এমবিবিএস চিকিৎসক হিসেবে পরিচয় দিতেন। তিনি নিজেই ব্যবস্থাপত্র লিখতেন এবং নিজের দোকান থেকে ওষুধ দিতেন। এ ছাড়া তিনি মাদক হিসেবে তালিকাভুক্ত ট্যাবলেট ট্যাপেন্টাডল এবং নানারকম যৌন উত্তেজক ওষুধ বিক্রি করতেন। অভিযোগ পেয়ে রাকিবের ওষুধের দোকানে অভিযান চালানো হয়।

এ সময় দোকান থেকে বিএমডিসির একটি ভুয়া সনদ জব্দ করা হয়েছে। এর নিবন্ধন নম্বর ২৬৬৪৭। এতে আবদুর রাকিবের নাম লেখা আছে। তবে ওই নিবন্ধন নম্বরটি শামসুন্নাহার নামের এক চিকিৎসকের। অর্থাৎ রাকিবের সনদটি ভূয়া। তাই এটি জব্দ করা হয়েছে। এ ছাড়া দোকান থেকে বিসিএমডিসি আরেকটি ভূয়া সনদ, ৬১ পিস ট্যাপেন্টাডল, ৩৬৬ পিস যৌন উত্তেজক ট্যাবলেট এবং ভিজিটিং কার্ড জব্দ করা হয়েছে।

র‌্যাব জানিয়েছে, নিষিদ্ধ ট্যাপেন্টাডল ট্যাবলেট বিক্রি করে আসামিরা মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইন-২০১৮ এর ৩৬(১) সারণি ২৯ (ক) ধারার শাস্তিযোগ্য অপরাধ করেছেন। আর রাকিব নিজেকে এমবিবিএস চিকিৎসক পরিচয় দিয়ে প্রতারণা ও জালিয়াতি করায় পেনাল কোড এর ৪২০/৪৬৮/৪৭১ ধারার অপরাধ করেছেন। এসব ধারায় রাতেই পুঠিয়া থানায় একটি মামলা করা হয়েছে।

SHARE