পবার হুজুরীপাড়া ইউপিতে বিপুল ভোটে নৌকার জয়

624

  স্টাফ রিপোর্টার :রাজশাহীর পবা উপজেলার হুজুরীপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের উপ-নির্বাচনে ব্যাপক ভোটের ব্যবধানে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছে গোলাম মোস্তফা। তিনি আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতিকের মনোনীত প্রার্থী ছিলেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি ছিলেন স্বতন্ত্র প্রার্থী মোটরসাইকেল প্রতিকে দেওয়ান রেজাউল করিম।

বুধবার সকাল ৮টা থেকে বেলা চারটা পর্যন্ত একটানা ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। কোথাও কোন ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেছে। সংশ্লিষ্টরা জানান নির্বাচন সুষ্ঠু, অবাধ ও শান্তিপূর্ণ হয়েছে। পবা উপজেলা নির্বাচন অফিসার ও রিটার্নিং অফিসার মির্দা মোসা. শাহানাছ পারভীন ভোটের ফলাফল ঘোষণা করেন। এতে নৌকা প্রতিকের প্রার্থী গোলাম মোস্তফা ৭ হাজার ৪০৩ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি ছিলেন দেওয়ান রেজাউল করিম। তিনি স্বতন্ত্র প্রার্থী মোটরসাইকেল প্রতিকে ভোট পেয়েছেন ৪ হাজার ৬২৭। এছাড়াও অপর স্বতন্ত্র প্রার্থী জাইদুর রহমান আনারস প্রতিকে ভোট পেয়েছেন ৩ হাজার ৯৫৮। তবে ধানের শীষের প্রার্থী মোতাহার হোসেন ভোট পেয়েছেন ৪০২ এবং ওয়ার্কার্স পার্টির মনোনীত প্রার্থী আজিজুল হক মিঠু ভোট পেয়েছেন ১৯৫। বেসরকারিভাবে নৌকা প্রতিকের প্রার্থী সবোর্চ্চ ভোট পেয়ে গোলাম মোস্তফা নির্বাচিত হয়েছেন।

বিজয়ী আওয়ামী লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী গোলাম মোস্তফা বলেন, ‘নৌকা প্রতিক নিয়ে প্রতিটি বাড়িতে গিয়ে আমি ভোট প্রার্থনা করছি। ভালো সাড়া পেয়েছি। তারা ব্যাপক ভোট দিয়ে আমাকে নিবার্চিত করেছেন। আমি বিজয়ী হয়েছি। এখন একটায় লক্ষ্য ইউনিয়নবাসীর সেবা তথা অসহায় মানুষের পাশে যেন থাকতে পারি। জনকল্যাণার্থে ইউনিয়নের বিভিন্ন উন্নয়ন করার চেষ্টা করবো। এছাড়া জননেত্রী শেখ হাসিনার ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার কাজে নিজেকে সম্পৃক্ত করব।’

এদিকে নির্বাচনের দায়িত্বে থাকা প্রিজাইডিং অফিসার, সহকারি প্রিজাইডিং অফিসার ও পোলিং এজেন্টগণ ভোট সংশ্লিষ্ট দায়িত্ব শেষে ভাতা ও যাতায়াতের খরচ না পেয়ে মনঃক্ষুন্ন হয়েছেন। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন বলেন ভাতা না দিয়েই ভাউচার বিলে স্বাক্ষর নেয়া হয়েছে। তবে নামপ্রকাশে অনিচ্ছুক এক প্রিজাইডিং অফিসার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, স্বাক্ষর শুধু অর্থপ্রাপ্তির জন্য নেয়া হয় তা নয়। নির্বাচনের স্বচ্ছতার জন্য স্বাক্ষর নেয়া হয়। তিনি আরো বলেন, আগামী রোববার প্রিজাইডিং অফিসার, সহকারি প্রিজাইডিং অফিসার ও পোলিং এজেন্টগণ পাবেন বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

SHARE