চাঁপাইনবাবগঞ্জে শেষ মুহূর্তে ইদের কেনাকাটার ধুম

31

চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি : আনন্দের মাত্রা বাড়িয়ে দিতে ছোট-বড় সবারই চাই নতুন পোশাক। তাই নতুন পোশাকসহ অনুষাঙ্গিক পরিচ্ছেদ কিনতে শেষ মুর্হর্তে সবাই কেনাবেচা নিয়ে ব্যস্ত। এরই মধ্যে পরিবার-পরিজনের জন্য পছন্দের পোশাকসহ ইদের কেনাকাটা সেরে ফেলছেন করেছেন ক্রেতারা। আর মার্কেটগুলোতে ভিড় বাড়ায় ব্যস্ততা বেড়েছে বিক্রেতাদেরও। ফলে সকাল থেকে নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে মার্কেটগুলোতে ক্রেতাদের কেনাকাটায় জমজমাট হয়ে উঠেছে চাঁপাইবাবগঞ্জে জেলা শহরের ইদবাজার। বিশেষ করে সকাল ১০ টা থেকে বিকেল পর্যন্ত ভিড় বেশি। অনেক ক্রেতা পছন্দের জিনিসটি খুঁজতে এক মার্কেট থেকে আরেক মার্কেট ঘুরে বেড়িয়েছেন। ফ্যাশন হাউসগুলোতে এখন তরুণী ও নারী-শিশুদের উপচেপড়া ভিড়। শাড়ি, থ্রিপিস, শিশুদের পোশাক বিক্রি হচ্ছে বেশি। পাঞ্জাবি, জিন্স, টি-শার্টের দোকানে নিজের পছন্দেরটি খুঁজছেন ও কিনছেন তরুণরা। সবমিলে ইদ বাজার এখন জামজমাট। সরেজমিনে দেখা গেছে, শহরের ব্যস্ততম নিউ মার্কেট, ক্লাব সুপার মার্কেট, সাটু হল কমপ্লেক্স মার্কেট, সেন্টু মার্কেট, ডিসি মার্কেট, তহাবাজার মার্কেটসহ বাতেন খাঁর বিভিন্ন শো-রুমে পরিবার নিয়ে আসছে ইদের কেনাকাটা করতে। তবে, ক্রেতা-বিক্রেতার মধ্যে সামাজিক দূরত্ব নেই। মার্কেটগুলোতে প্যান্ট, সার্ট, বাচ্চাদের বাহারি পোশাক, থ্রি পিস, শাড়িসহ দেশি বিদেশি বিভিন্ন ধরনের পোশাক বিক্রি হচ্ছে। এছাড়া হাল ফ্যাশনের সূতি থ্রি-পিস হিসেবে দেশীয় পোশাক মেয়েদের পছন্দের মধ্যে রয়েছে। বহুল পরিচিত পোশাক ও কাপড় ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠান আমেনা বস্ত্রালয়, ইসলাম এন্ড ব্রাদার্স, টাঙ্গাইল শাড়ী ঘর, আভা ক্লথ স্টোর, জলিল ক্লথ ষ্টোর এ্যান্ড গার্মেন্টস, আরাফাত এ্যান্ড সন্স বস্ত্রালয়, বিসমিল্লাহ গার্মেন্টস, সৌদিয়া ফ্যাশন, নীল আঁচল,‘ রাজশাহী ফ্যাশন, ‘থ্রি-পিস কালেকশন’, ‘মা বস্ত্রালয় এ্যান্ড গার্মেন্টস’, মোশারফ থ্রী পিস, ফ্যাশন গার্মেন্টস, ওয়েস্টার্ন কালেকশনসহ অন্যান্য দোকানের শো-রুমে নিত্যনতুন পোষাকের সমারহ ঘটিয়েছে। এদিকে, প্রসাধনী দোকানগুলোতে মেয়েদের ভীড় ছিল লক্ষ্যনীয়। পাশাপাশি, ফুটপাতের দোকানগুলোতে নিম্নবিত্তদের ঈদের কেনাকাটা থেমে নেই। তুলনামূলকভাবে ওইসব দোকানগুলোতে দাম কম হওয়ায় স্বল্প আয়ের মানুষ তাদের ইদের কেনাকাটা সারছে। আসলে যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি মানা প্রায় অসম্ভব। দোকান মালিকরা বলছেন, করোনার মধ্যেও ক্রেতাদের সমাগম ভালই এবং দাম নাগালের মধ্যে থাকায় বিক্রি ভালই হচ্ছে এবং ইদের আগ রাত পর্যন্ত এ বেচাকেনা চলবে।

SHARE