চারঘাটে বালুমহাল নিয়ে উত্তেজনা

29

চারঘাট প্রতিনিধি: চারঘাটে বালুমহালকে কেন্দ্র করে ককটেল বিস্ফোরণের ঘটনায় দুপক্ষের মধ্যে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ রাখতে বালুমহালে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। দ্রুত সমাধান না হলে যে কোন সময় রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের আশঙ্কা স্থানীয়দের।

জানা যায়, চারঘাট মৌজায় ২২ লাখ টাকায় গত এক বছরের জন্য সরকারিভাবে বালুমহাল ইজারা পায় মেসার্স রনি এন্টারপ্রাইজ। যার মেয়াদ গত ৩০ শে চৈত্র’ ১৪২৭ শেষ হয়েছে। এরই মাঝে দরপত্রের মাধ্যমে সাড়ে ৬ কোটি টাকায় ওই বালুমহাল ইজারা পায় সিদ্দিকীয়া এন্টারপ্রাইজ যার স্বত্বাধিকারী সোহেল জোবেরী।

নতুন ইজারাদার সোহেল জোবেরী বলেন, পূর্বের ইজারাদারের মজুদকৃত বালু, বালুমহালে থাকায় নতুন ভাবে বালু উত্তোলন করতে পারছি না। এ অভিযোগে পুরাতন ইজারাদারকে মজুদকৃত বালু সরিয়ে ফেলার জন্য কর্তৃপক্ষের মাধ্যম দিয়ে অনুরোধ জানালে তারা সময় চায়।

পুরাতন ইজারাদারের সময় আবেদনের প্রেক্ষিতে উপজেলা প্রশাসনের সহযোগিতায় নতুন ইজারাদার এক সপ্তাহ সময় দিতে রাজি হন। এ বিষয়টি পুরাতন ইজারাদার মানতে না চাইলে, এ নিয়ে উভয় পক্ষের মধ্যে চরম উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে।

তারই ধারাবাহিকতায় গত বৃহস্পতিবার রাতে হঠাৎ করে চারঘাট বাজার চার রাস্তার মোড়সহ উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান গোলাম কিবরিয়া বিপ্লব এর বাড়ি এবং ছাত্রলীগের সভাপতি আল মামুন তুষারের বাড়িতে ককটেল বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। পাশাপাশি উভয় পক্ষের অফিসে ভাঙচুরের ঘটনা ঘটেছে। এত করে উভয় পক্ষ একে অপরকে দোষারোপ করে।

বিষয়টি সম্পর্কে চারঘাট মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জাহাঙ্গীর আলম বলেন, শান্তি শৃঙ্খলা বজায় রাখতে ইতিমধ্যে বালুমহালে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। উভয়পক্ষ থানায় অভিযোগ করেছে এবং বিষয়টি তদন্তাধীন রয়েছে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সৈয়দা সামিরা বলেন, ইতিমধ্যে চারঘাট মৌজার বালুমহাল নতুন ইজারাদার সোহেল জোবেরীকে বুঝিয়ে দেয়া হয়েছে। পূর্বের বালুমহালের ইজারাদারকে দ্রুত মজুদকৃত বালু সরিয়ে ফেলার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

SHARE