রাজশাহীতে কিশোর গ্যাং এর ৫ সদস্য গ্রেফতার

23

স্টাফ রিপোর্টার :  রাজশাহীতে মহানগরীতে সিসি ক্যামেরার ভিডিও ফুটেজ দেখে কিশোর গ্যাং এর ৫ সদস্যকে গ্রেফতার করেছে আরএমপির বোয়ালিয়া মডেল থানা পুলিশ।

এ সময় তাদের সিসি ক্যামেরার ভিডিও ফুটেজ পর্যালোচনায় সকাল ১০টার সময় নগরীর উপশহর এলাকায় থেকে তাদেরকে গ্রেফতার করা হয়। আরএমপি পুলিশের পুলিশ কমিশনার মোঃ আবু কালাম সিদ্দিক যোগদানের পরপরই বলেছিলেন রাজশাহী মহানগরীকে নিরপাত্তার চাদরে ঢেকে ফেলা হবে, মহানগরীতে কোন অপরাধ থাকবে না’’।

সেই লক্ষে অপরাধ প্রবণতা শূন্যের কোঠায় নামিয়ে আনতে রাজশাহী নগরজুড়ে ক্লোজ সার্কিট (সিসি) ক্যামেরা স্থাপন করেছে রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশ।

ইতোমধ্যে এর ফল ভোগ করতে শুরু করছে মহানগরবাসী। বিভিন্ন স্থানের ভিডিও ফুটেজ পর্যবেক্ষণ করে তাৎক্ষণিকভাবে অনেক সমস্যারও দ্রুত সমাধান করা সম্ভব হচ্ছে। তারই ধারাবাহিকতায় রাজশাহীর কিশোর গ্যাং এর ৫ সদস্য আটক করেছে আরএমপির বোয়ালিয়া মডেল থানা পুলিশ।

আটককৃতরা হলো রাজশাহী মহানগরীর বোয়ালিয়া মডেল থানার উপ-শহর এলাকার বশির হোসেনের ছেলে শামসুল হক রোহান (১৯), বিপ্লব হোসেনের ছেলে মোঃ শাওন হোসেন রাজ (২০), রুহুল আমিনের ছেলে মোঃ জাহিদ হাসান পল্টু (২৪), মোঃ জুয়েলের ছেলে মোঃ মারুফ হাসান (২৬) এবং মৃত আমিনুল ইসলামের ছেলে এনামুল হক পলাশ (২৩)।

অভিযান পরিচালনা করেন রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশের পুলিশ কমিশনার মোঃ আবু কালাম সিদ্দিকের নির্দেশনায় বোয়ালিয়া মডেল থানার এসআই(নিঃ) মোঃ গোলাম মোস্তফা, এসআই মোঃ শাহীনুর রহমান, এএসআই রানা আহম্মেদ ও এএসআই মোঃ নাজমুল হক।

গত সোমবার (১২ এপ্রিল) সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় বোয়লিয়া মডেল থানার উপ-শহর ঈদগাহ মাঠ এলাকায় পূর্ব শক্রতা বশতঃ কতিপয় কিশোর গ্যাং এর সদস্যরা শক্তি সামর্থ প্রদর্শন ও মারামারির উদ্দেশ্যে লাঠিসোটা, ধারালো চাকু নিয়ে একত্রিত হয়। পরবর্তীতে তারা পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে পালিয়ে যায়।

ভিডিও ফুটেজ পর্যালোচনাপূর্বক অন্যান্য আসামীদের গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে। গ্রেফতারকৃত আসামীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।

SHARE