রামেক হাসপাতালে প্রতারক চক্রের ১৬ সদস্য আটক

24

স্টাফ রির্পোটার : রাজশাহী মহানগর গোয়েন্দা পুলিশকে অভিযোগ করেন এক ব্যক্তি। তিনি রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে গেলে একটি সংঘবদ্ধ প্রতারকচক্র তাকে জানায়, করোনাকালে হাসপাতালের চিকিৎসা বন্ধ আছে। উন্নত চিকিৎসা নিতে হলে তাকে বে-সরকারি ক্লিনিকে যেতে হবে। পরে পাশর্^বর্তী একটি ক্লিনিকে যায়। ক্লিনিকে যাওয়ার পরে তিনি বুঝতে পারেন যে, তিনি প্রতারণার শিকার হয়েছেন। এরপর তিনি সেখান হতে চলে আসতে চাইলে প্রতারকচক্র তার কাছে থাকা টাকা ও মালামাল জোর করে রেখে দেয় এবং ভয়ভীতি দেখায়।
এই অভিযোগের ভিত্তিতে বৃহস্পতিবার (৮ এপ্রিল) বেলা ১১ টায় পুলিশ রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে অভিযান পরিচালনা করে মহানগর গয়েন্দা পুলিশ। এ সময় রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বহির্বিভাগ ও তার আশপাশের এলাকা হতে প্রতারক ও চাঁদাবাজচক্রের ১৬ সদস্যকে আটক করে। আটককৃত ব্যক্তিদের জিজ্ঞাসাবাদে তারা জানায় যে, তারা রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে আসা সহজ সরল ব্যক্তিদের সাথে প্রতারণা করে মোটা অংকের টাকা গ্রহণ করে। এছাড়াও বিভিন্ন বে-সরকারি ক্লিনিকে নিয়ে উন্নত চিকিৎসা দেওয়ার কথা বলেও টাকা পয়সা হাতিয়ে নেয়। ভুক্তভোগীরা টাকা পয়সা না দিলে চিকিৎসাসেবা নিতে আসা ব্যক্তিদেরকে বিভিন্ন প্রকার হুমকি দিয়ে থাকে। এই প্রতারক চক্রের সদস্যরা দীর্ঘদিন যাবৎ রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে আসা রোগী ও রোগীর আত্মীয়-স্বজনদের উন্নত চিকিৎসার প্রলোভন দিয়ে অর্থ হাতিয়ে নেয়। গত কয়েক মাসে পুলিশের নিয়মিত অভিযানে দালাল ও প্রতারকদের উৎপাত কিছুটা কমেছে। তবে অভিযান বন্ধ হলেই আবারো বেপরোয়া হয়ে উঠে দালাল ও প্রতারক চক্র।

SHARE