দ্বিতীয় দিনে বিএনপির মনোনয়নের চিঠি পেলেন যারা

170

গণধ্বনি ডেস্ক : আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন উপলক্ষে মনোনয়ন প্রত্যাশীদের চিঠি দিচ্ছে বিএনপি।

সোমবার বিকেল সাড়ে ৪টায় তিন আসনে দলের চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মনোনয়নের চিঠি হস্তান্তরের মধ্য দিয়ে ধানের শীষের প্রার্থীদের প্রত্যয়নপত্র দেওয়া শুরু করে দলটি। বিএনপির মনোনয়নের চিঠি দেওয়ার দ্বিতীয় দিনের কার্যক্রম শুরু হয় মঙ্গলবার বেলা পৌনে একটার দিকে।

মনোয়নের চিঠি পেয়েছেন যারা

ঢাকা বিভাগ:

ঢাকা-১ আসনে খন্দকার আবু আশফাক, বিএনপির সাবেক নেতা ব্যারিস্টার নাজমুল হুদার মেয়ে অ্যাডভোকেট অন্তরা সেলিমা হুদা ও সায়মা হোসেন জুবিলী, ঢাকা-২ আমান উল্লাহ আমান ও তার ছেলে ইরফান ইবনে আমান, ঢাকা-৩ গয়েশ্বর চন্দ্র রায় ও তার পুত্রবধু নিপুন রায় চৌধুরী, ঢাকা-৪ সালাহউদ্দিন আহমেদ ও তার পুত্র তানভীর আহমেদ রবীন, ঢাকা-৫ নবী উল্লাহ নবী ও অধ্যক্ষ সেলিম ভূইয়া, ঢাকা-৬ আবুল বাশার ও ইঞ্জিনিয়ার ইশরাক হোসেন, ঢাকা-৭ নসিমা আক্তার কল্পনা ও রফিকুল ইসলাম রাসেল, ঢাকা-৮ মির্জা আব্বাস, ঢাকা-৯ হাবিব-উন-নবী সোহেল, ঢাকা-১০ দলের ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল মান্নান ও তার জামাই দলের আন্তর্জাতিক সম্পাদক ব্যারিস্টার নাসিরউদ্দিন অসীম, ঢাকা-১১ এম এ কাইয়ুমের স্ত্রী শামীম আরা বেগম ও এজিএম শামসুল ইসলাম, ঢাকা-১২ সাইফুল আলম নীরব ও আনোয়ারুজ্জামান আনোয়ার, ঢাকা-১৩ আবদুস সালাম ও আতাউর রহমান ঢালী, ঢাকা-১৪ সাবেক ফুটবলার আমিনুল হক ও এস এ সিদ্দিক সাজু, ঢাকা-১৫ মামুন হাসান, ঢাকা-১৬ আহসান উল্লাহ হাসান ও মোয়াজ্জেম হোসেন, ঢাকা-১৭ মেজর জেনারেল (অব.) রুহুল আলম চৌধুরী, ফরহাদ হালিম ডোনার ও কামাল জামান মোল্লা, ঢাকা-১৮ বাহাউদ্দিন সাদী ও এস এম জাহাঙ্গীর, ঢাকা-১৯ দেওয়ান সালাহউদ্দিন আহমেদ, ঢাকা-২০ ব্যারিস্টার জিয়াউর রহমান ও তমিজউদ্দিন।

নারায়ণগঞ্জ-১ অ্যাডভোকেট তৈমুর রহমান আলম খন্দকার, কাজী মনিরুজ্জামন মনির ও মোস্তাফিজুর রহমান ভূঁইয়া দিপু, নারায়ণগঞ্জ-২ মাহমুদুর রহমান সুমন, নজরুল ইসলাম আজাদ ও আতাউর রহমান খান আঙ্গুর, নারায়ণগঞ্জ-৩ আজহারুল ইসলাম মান্নান ও খন্দকার আবু জাফর, নারায়ণগঞ্জ-৪ মোহাম্মদ শাহ আলম ও অধ্যাপক মামুন মাহমুদ এবং নারায়ণগঞ্জ-৫ সাবেক সাংসদ অ্যাডভোকেট আবুল কালাম ও মাকছুদুল আলম খন্দকার খোরশেদ। তবে এই আসন থেকে জাতীয় ঐক্য ফ্রন্টের প্রার্থী হিসেবে এসএম আকরামের নাম রয়েছে।

নরসিংদী-১ খায়রুল কবীর খোকন, নরসিংদী-২ সরদার সাখাওয়াত হোসেন বকুল, নরসিংদী-৩ সানাউল্লাহ মিয়া। মুন্সীগঞ্জ-১ শাহ মোয়াজ্জেম হোসেন, মুন্সীগঞ্জ-২ মিজানুর রহমান সিনহা, মুন্সীগঞ্জ-৩ আবদুল হাই।

গাজীপুর ১ চৌধুরী তারভীর আহমেদ সিদ্দিকী, গাজীপুর-২ সালাহউদ্দিন সরকার ও মঞ্জুরুল করিম রনি, গাজীপুর-৩ আসনটি জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের জন্য ফাকা রাখা হয়েছে, গাজীপুর-৪ নিয়াজুল হান্নান শাহ্‌, গাজীপুর-৫ ফজলুল হক মিলন ও মনির হোসেন।

ফরিদপুর-১ শাহ মো. আবু জাফর ও খন্দকার নাছিরুল ইসলাম, ফরিদপুর-২ শামা ওবায়েদ ইসলাম রিংকু ও শহিদুল ইসলাম বাবুল, ফরিদপুর-৩ চৌধুরী কামাল ইবনে ইউসুফ ও নায়েবা ইউসুফ, ফরিদপুর- ৪ ইকবাল হোসেন খন্দকার সেলিম ও শাহরিয়ার ইসলাম শায়লা, রাজবাড়ী-১ আলী নেওয়াজ খৈয়ম, রাজবাড়ী-২ নাসিরুল হক, গোপালগঞ্জ-১ সেলিমুজ্জামান সেলিম, গোপালগঞ্জ ২ সিরাজুল ইসলাম সিরাজ, গোপালগঞ্জ -৩ এস এম জিলানি, মাদারিপুর-১ সাজ্জাদ হোসেন লাভলু সিদ্দিকী, মাদারিপুর-২ মিল্টন বৈদ্য, মাদারিপুর-৩ আনিসুর রহমান খোকন তালুকদার, শরিয়তপুর-১ সরদার নাছির উদ্দিন কালু, শরিয়তপুর-২ শফিকুর রহমান কিরন, শরিয়তপুর-৩ মিয়া নূরুদ্দিন অপু।

কিশোরগঞ্জ-১ সাবেক ঢাকা বিভাগীয় স্পেশাল জজ রেজাউল করিম খান চুন্নু, সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট মো. শরীফুল ইসলাম শরীফ এবং জেলা বিএনপির সিনিয়র যুগ্মসাধারণ সম্পাদক খালেদ সাইফুল্লাহ সোহেল, কিশোরগঞ্জ-২ সাবেক সংসদ সদস্য মেজর (অব.) আখতারুজ্জামান রঞ্জন, কিশোরগঞ্জ-৩ অ্যাডভোকেট জালাল মোহাম্মদ গাউস, ভিপি সাইফুল ইসলাম সুমন, কিশোরগঞ্জ-৪ বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা অ্যাডভোকেট মো. ফজলুর রহমান, হিন্দু ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্টের সাবেক ট্রাস্টি সুরঞ্জন ঘোষ, কিশোরগঞ্জ-৫ শেখ মুজিবুর রহমান ইকবাল ও তার ছেলে ছেলে মাহমুদুর রহমান উজ্জলকেও প্রার্থী রাখা হয়েছে, কিশোরগঞ্জ-৬ বিএনপি সভাপতি মো. শরীফুল আলম।

টাঙ্গাইল-১ ফকির মাহবুব আনাম স্বপন ও সরকার শহীদ, টাঙ্গাইল-২ সুলতান সালাউদ্দিন টুকু ও শামছুল আলম তোফা, টাঙ্গাইল-৩ মাঈনুল ইসলাম ও লুৎফর রহমান খান আজাদ, টাঙ্গাইল-৪ লুৎফর রহমান মতিন ও ইঞ্জিনিয়ার আবদুল হালিম, টাঙ্গাইল-৫ মেজর জেনারেল (অব.) মাহমুদুল হাসান ও ছাইদুল হক ছাদু, টাঙ্গাইল-৬ অ্যাডভোকেট গৌতম চক্রবর্তী ও নূর মোহাম্মদ খান ও টাঙ্গাইল-৭ আবুল কালাম আজাদ সিদ্দিকী ও সাইদুল ইসলাম খান, টাঙ্গাইল-৮ আসন এখনো ঘোষণা করা হয়নি। এ আসনে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী দেওয়া হবে বলে জানা গেছে।

ময়মনসিংহ বিভাগ

ময়মনসিংহ-১ অ্যাডভোকেট আফজাল এইচ খান, সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স, আলী আসগর ও সালমান ওমর রুবেল, ময়মনসিংহ-২ শাহ শহীদ সারোয়ার ও অ্যাডভোকেট আবুল বাশার আকন্দ, ময়মনসিংহ-৩ ইঞ্জিনিয়ার এম ইকবাল হোসাইন, আহাম্মদ তায়েবুর রহমান হিরণ ও ডা. মো. আবদুস সেলিম, ময়মনসিংহ-৪ মো. আবু ওয়াহাব আকন্দ ওয়াহিদ ও ডা. এ জেড এম জাহিদ হোসেন, ময়মনসিংহ-৫ মোহাম্মদ জাকির হোসেন বাবলু, ময়মনসিংহ-৬ ইঞ্জিনিয়ার শামসুদ্দিন আহমদ ও মো. আকতারল্ফম্নল আলম ফারুক, ময়মনসিংহ-৭ ডা. মাহবুবুর রহমান লিটন, জয়নাল আবেদীন ও আমিন সরকার, ময়মনসিংহ-৮ শাহ নুরুল কবির শাহীন ও লুৎফুল্লাহেল মাজেদ বাবু, ময়মনসিংহ-৯ খুররম খান চৌধুরী ও ইয়াসের খান চৌধুরী, ময়মনসিংহ-১০ এ বি সিদ্দিকুর রহমান ও আকতারুজ্জামন বাচ্চু, ময়মনসিংহ-১১ ফকরুদ্দিন আহমদ বাচ্চু ও মোর্শেদ আলম, নেত্রকোনা-১ ব্যারিস্টার কায়সার কামাল ও গোলাম রব্বানী, নেত্রকোনা-২ আশরাফ উদ্দিন খান ও এ টি এম আবদুল বারী ড্যানী, নেত্রকোনা-৩ ডক্টর রফিকুল ইসলাম হিলালী ও মো. দেলোয়ার হোসেন ভুইয়া দুলাল, নেত্রকোনা-৪ তাহমিনা জামান শ্রাবনী ও চৌধুরী আবদুল্লাহ আল ফারুক, নেত্রকোনা-৫ আবু তাহের তালুকদার ও রাবেয়া আলী, জামালপুর-১ এম রশিদুজ্জামান (মিল্লাত) ও আব্দুল কাইয়ুম, জামালপুর-২ সুলতান মাহমুদ (বাবু) এ এস এম আব্দুল হালিম, জামালপুর-৩ মোস্তাফিজুর রহমান বাবুল ও ব্যারিস্টার বাদল, জামালপুর-৪ ফরিদুল কবির তালুকদার, জামালপুর-৫ শাহ মো. ওয়ারেছ আলী মামুন ও সিরাজুল হক, শেরপুর-১ মো, হজরত আলী, শেরপুর-১ একেএম মোখলেছুর রহমান রিপন ও ব্যারিস্টার হায়দার আলী, শেরপুর-৩ মাহমুদুল হক রুবেল।

খুলনা বিভাগ

খুলনা-১ আমীর এজাজ খান, খুলনা-২ নজরুল ইসলাম মঞ্জু, খুলনা-৩ রকিবুল ইসলাম বকুল, খুলনা-৪ আজিজুল বারী হেলাল ও শরীফ শাহ কামাল তাজ, খুলনা-৫ ড. মামুন রহমান, ডা. গাজী আবদুল হক।  নড়াইল- ১ বিশ্বাস জাহাঙ্গীর আলম এবং নড়াইল-২ ন্যাশনাল পিপলস পার্টির (এনপিপির) চেয়ারম্যান ড. ফরিদুজ্জামান ধানের শীষ প্রতীক পেয়েছেন। সাতক্ষীরা-১ হাবিবুল ইসলাম হাবিব, সাতক্ষীরা-২, সাতক্ষীরা-৩ ও সাতক্ষীরা-৪ জামায়াত, মেহেরপুর-১ আসনে জেলা বিএনপির সভাপতি ও সাবেক এমপি মাসুদ অরুণ, মেহেরপুর-২ জাভেদ মাসুদ মিল্টন, চুয়াডাঙ্গা-১ বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ও কৃষক দলের সাধারণ সম্পাদক শামসুজ্জামান দুদু ও চুয়াডাঙ্গা-২ মাহমুদ হাসান খান ওরফে বাবু খান। কুষ্টিয়া-১ রেজা আহমেদ বাচ্চু মোল্লা ও রমজান আলী, কুষ্টিয়া-২ ব্যারিস্টার রাগীব রউফ চৌধুরী ও ফরিদা ইয়াসমিন, কুষ্টিয়া-৩ অধ্যক্ষ সোহরাব উদ্দিন ও জাকির হোসেন সরকার, কুষ্টিয়া-৪ সৈয়দ মেহেদী আহমেদ রুমী ও নুরুল ইসলাম আনসার প্রমানিক, ঝিনাইদহ-১ কেন্দ্রীয় মানবাধিকার বিষয়ক সম্পাদক আ্যাডভোকেট আসাদুজ্জামান আসাদ এবং বিভাগীয় সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক জয়ন্ত কুমার কুন্ডু, ঝিনাইদহ-২ এস এম মশিউর রহমান এবং এম এ মজিদ, ঝিনাইদহ-৩ আসনে কন্ঠশিল্পী মনির খান ও শহিদুল ইসলাম মাষ্টারের ছেলে মেহেদী হাসান রনি, ঝিনাইদহ-৪ স্বেচ্ছাসেবক দলের কেন্দ্রীয় যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সাইফুল ইসলাম ফিরোজ, মাগুরা-১ মনোয়ার হোসেন খান, মাগুরা-২ নিতাই রায় চৌধুরী ও মোজাফফর হোসেন টুকু, যশোর-১ আসনে মফিজুল হাসান তৃপ্তি ও হাসান জহির, যশোর-৩ আসনে অনিন্দ্য ইসলাম অমিত ও সৈয়দ সাবেরুল হক সাবু, যশোর-৪ টিএস আইয়ূব ও মতিয়ার রহমান ফারাজী, যশোর-৬ অমলেন্দু দাস অপু, আবুল হোসেন আজাদ ও আবদুস সামাদ বিশ্বাস। যশোরের দুটি আসনে বিএনপির মনোনয়নের ঘোষণা দেওয়া হয়নি।  বাগেরহাট-১ আসনে শেখ মুজিবুর রহমান ও মাসুদ রানা, বাগেরহাট-২ আসনে জেলা বিএনপির সভাপতি এম এ সালাম ও আকরাম হোসেন, বাগেরহাট-৩ আসনে ড. শেখ ফরিদুল ইসলাম, বাগেরহাট-৪ খায়রুজ্জামান শিপন ও অধ্যক্ষ আবদুল আলিম (জামায়াত)।

সিলেট বিভাগ

সিলেট-১ আসনে ইনাম আহমদ চৌধুরী ও খন্দকার আবদুল মুক্তাদির, সিলেট-২ আসনে তাহসিনা রুশদীর লুনা, সিলেট-৩ আসনে শফি আহমদ চৌধুরী ও ব্যারিস্টার এমএ সালাম, সিলেট-৪ আসনের দিলদার হোসেন সেলিম ও অ্যাডভোকেট শামসুজ্জামান জামান, সিলেট-৬ আসনে ফয়সল আহমদ চৌধুরী। সুনামগঞ্জ-১ আসনে নজির হোসেন, কামরুজ্জামান কামরুল ও আনিসুল হক, সুনামগঞ্জ-২ আসনে নাছির উদ্দিন চৌধুরী ও তাহির রায়হান চৌধুরী, সুনামগঞ্জ-৪ আসনে ফজলুল হক আসপিয়া ও দেওয়ান জয়নুল জাকেরিন, সুনামগঞ্জ-৫ কলিম উদ্দিন আহমদ ও মিজানুর রহমান চৌধুরী। মৌলভীবাজার-১ আসনে এবাদুর রহমান চৌধুরী ও নাসির উদ্দিন আহমদ মিঠু, মৌলভীবাজার-২ সুলতান মুহাম্মদ মনসুর (জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট), মৌলভীবাজার-৩ আসনে এম নাসের রহমান ও রেজিনা নাসের, মৌলভীবাজার-৪ আসনে মুজিবুর রহমান চৌধুরী ও মুঈদ আশিক চিশতী। হবিগঞ্জ-২ আসনে সাখাওয়াত হোসেন জীবন, হবিগঞ্জ-৩ আসনে জি কে গৌছ।

চট্টগাম বিভাগ

চট্টগ্রাম-১ (মীরসরাই)- কামাল উদ্দিন আহমেদ, নুরুল আমিন, ও মনিরুল ইসলাম ইউসুফ, চট্টগ্রাম-২ (ফটিকছড়ি) ডা. খুরশিদ জামিল চৌধুরী ও মো. সালাহউদ্দিন, চট্টগ্রাম-৩ (সন্দ্বীপ) মোস্তফা কামাল পাশা ও নুরুল মোস্তফা খোকন, চট্টগ্রাম-৪ (সীতাকুন্ড) লায়ন আসলাম চৌধুরী ও এওয়াইবি সিদ্দিকী, চট্টগ্রাম-৫ (হাটহাজারী) মীর মোহাম্মদ নাছির উদ্দীন ও ব্যারিস্টার শাকিলা ফারজানা, চট্টগ্রাম-৭ (রাঙ্গনিয়া) কুতুব উদ্দিন বাহার ও শওকত আলী নুর, চট্টগ্রাম-৮ (বোয়ালখালি-চান্দগাঁও) আসনে মোরশেদ খান ও আবু সুফিয়ান, চট্টগ্রাম-৯ (কোতোয়ালি-বাকলিয়া) ডা. শাহাদাত হোসেন ও শামসুল আলম, চট্টগ্রাম-১০ (হালিশহর-পাহাড়তলী) আসনে আবদুল্লাহ আল নোমান ও মোশাররফ হোসেন দীপ্তি, চট্টগ্রাম-১২ (পটিয়া), চট্টগ্রাম-১৩ (আনোয়ারা) আসনে সারওয়ার জামাল নিজাম ও মোস্তাফিজুর রহমান। চট্টগ্রাম-১৬ (বাঁশখালী) আসনে জাফরুল ইসলাম চৌধুরী, কুমিল্লা- ৩ আসনে অধ্যাপক শাহেদা রফিক, কুমিল্লা-৫ আসনে অধ্যাপক মোহাম্মদ ইউনুস, কুমিল্লা-৬ আসনে হাজী আমিনুর রশিদ ইয়াসিন।

লক্ষীপুর-১ জোটের শরীকদের জন্য, লক্ষীপুর-২ আবুল খায়ের ভূইয়া ও হারুন অর রশীদ, লক্ষীপুর-৩ শহীদ উদ্দিন চৌধুরী ও সাহাব উদ্দিন সাবু, লক্ষীপুর-৪ আশরাফ উদ্দিন নিজান ও শফিউল বারী বাবু, এই আসনটি জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শরীক জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল জেএসডি সভাপতি আ স ম আব্দুর রব পাবেন বলে জানা গেছে।

চাঁদপুর-১ সাবেক শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী ড. এহসানুল হক মিলন ও মোশারফ হোসেন, চাঁদপুর-২ ড. জালালউদ্দিন ও তানভীর হুদা, চাঁদপুর-৩ ফরিদ আহমেদ মানিক ও রাশেদা বেগম হীরা, চাঁদপুর-৪ সাবেক এমপি লায়ন হারুন অর রশীদ ও এম হান্নান, চাঁদপুর-৫ ইঞ্জিনিয়ার মমিনুল হক ও এম এ মতিন। ফেনী-১ বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া ও ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল আউয়াল মিন্টু, ফেনী-২ অদ্যাপক জয়নাল আবেদীন (ভিপি জয়নাল), ফেনী-৩ আব্দুল আউয়াল মিন্টু, কেন্দ্রীয় নেতা আবদুল লতিফ জনি, আকবর হোসেন ও সাইদ হোসেন চৌধুরী। নোয়াখালী ১ ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন ও মামুনুর রশিদ মামুন, নোয়াখারী-২ জায়নুল আবেদীন ফারুক ও জাফর ইকবাল, নোয়াখালী-৩ বরকত উল্লাহ বুলু ও ডা. কাজী মাযহারুল ইসলাম দোলন, নোয়াখালী-৪ মোহাম্মদ শাজাহান ও মোসাম্মৎ শাহীনুর বেগম, নোয়াখালী ৫ ব্যারিস্টার মওদুদ আহম, নোয়াখালী-৬ ফজলুল আজিম। কক্সবাজার-১ হাসিনা আহম্মেদ, কক্সবাজার-২ আলমগীর ফরিদ, কক্সবাজার-৩ লুৎফুর রহমান কাজল, কক্সবাজার-৪ মো. সালাহউদ্দিন ও শাজাহান চৌধুরী। বান্দরবন শাচি প্রু জেরি ও উম্মে কুলসুম সুলতানা, রাঙ্গমাটি দীপেন দেওয়ান ও মনি স্বপন দেওয়ান, খাগড়াছড়ি ওয়াদুদ ভূইয়া।

রাজশাহী

রাজশাহী-৬ আসনে রমেশ দত্ত, রাজশাহী-৫ মাহমুদা হাবীব।

২০ দলীয় জোট

ভোলা-১ আসনে বিজেপির আন্দালিব রহমান পার্থ, নড়াইল-২ এনপিপির ফরিদুজ্জামান ফরহাদ, নারায়নগঞ্জ-৫ আসনে সাম্যবাদী দলের সাঈদ আহমেদ, চট্টগ্রাম- ৫ আসনে কল্যাণ পার্টির সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিম, চট্টগ্রাম- ১৪ আসনে এলডিপির অলি আহমেদ, কুমিল্লা- ৭ ড. রেদোয়ান আহমেদ, লক্ষীপুর- ১ আসনে সাহাদাত হোসেন সেলিম, সুনামগঞ্জ- ৩ আসনে জমিয়তে উলামায়ে ইসলামীর শাহিনুর পাশা, কুমিল্লা-৬ সৈয়দ মহিউদ্দিন ইকরাম, যশোর-৫ মো. ওয়াক্কাস, খুলনা-৪ রেজাউল করীম, পিরোজপুর-২ আসনে লেবার পার্টির মোস্তাফিজুর রহমান ইরান, পিরোজপুর-১ আসনে জাতীয় পার্টি(কাজী জাফর) মোস্তফা জামাল হায়দার, গাইবান্ধা-৩ টিআই ফজলে রাব্বী, চাঁদপুর-৩ এস এম এম আলম, কুষ্টিয়া- ২ আহসান হাবিব লিংকন, ব্রাক্ষণবাড়িয়া- ৪ সেলিম মাস্টার ধানের শীষ প্রতীকে মনোনয়নের জন্য প্রত্যয়নের চিঠি নিয়ে গেছেন।

SHARE