২৫ মার্চ রাতে ‘ব্ল্যাক আউট’ করা হবে রাজশাহী

27

স্টাফ রির্পোটার : যথাযোগ্য মর্যাদার সঙ্গে জাতীয় কর্মসূচির আলোকে ২৫ মার্চ গণহত্যা দিবস উদযাপনের লক্ষ্যে রাজশাহী জেলা প্রশাসন এবার ব্যাপক কর্মসূচি গ্রহণ করেছে। গণহত্যা দিবসের রাতে ‘ব্ল্যাক আউট’ করা হবে রাজশাহী।
বুধবার (২৪ মার্চ) দুপুরে সরকারি এক তথ্য বিবরণীতে এই তথ্য জানানো হয়েছে।
কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে, বৃহস্পতিবার (২৫ মার্চ) সকাল ১১টায় বাংলাদেশ শিশু একাডেমি ও জেলা শিল্পকলা একাডেমি, রাজশাহীতে গণহত্যা ও মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক রচনা, চিত্রাংকন, দেশাত্ববোধাক সংগীত, আবৃত্তি প্রতিযোগিতা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান আয়োজন। দুপুর ১২টায় শহরের গুরুত্বপূর্ণ এলাকাসমূহে গণহত্যার ওপর আলোকচিত্র ও প্রামাণ্যচিত্র প্রদর্শন করা হবে।
প্রতিটি মসজিদে বাদ যোহর ও অন্যান্য উপাসনালয়ে সুবিধামত সময়ে ২৫ মার্চ রাতে নিহতদের স্মরণে বিশেষ মোনাজাত ও প্রার্থনা করা হবে। মহানগরের সকল বধ্যভূমিতে সূর্যাস্তের সঙ্গে সঙ্গে মোমবাতি প্রজ্বলন ও বিশেষ মোনাজাত করা হবে। জরুরি স্থাপনা ব্যতিত অন্যান্য সরকারি ভবনে রাত ৯টা থেকে ৯টা ১ মিনিট পর্যন্ত প্রতীকী ‘ব্ল্যাক আউট’ করা হবে।
জেলা আ’লীগের ২৫ ও ২৬ মার্চের কর্মসূচি : রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগ-এর আয়োজনে ২৫ মার্চ গণহত্যা দিবস পালন এবং ২৬ মার্চ মহান স্বাধীনতা দিবসের ( স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী ) উৎসব যথাযোগ্য মর্যাদার সাথে উদযাপনের কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে। কর্মসূচি হলো: ২৫ মার্চ বাদ মাগরিব জেলা আওয়ামী লীগ দলীয় কার্যালয়ের সামনে গণহত্যা দিবস পালন উপল সকল সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মী ও সমর্থকদের উপস্থিতিতে ৭১-এর ২৫ মার্চ কালরাতের বীর শহিদদের স্মৃতির প্রতি মোমবাতি প্রজ্জ্বলন; ২৬ মার্চ স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী মহান স্বাধীনতা দিবসে সূর্যোদয়ের সাথে সাথে দলীয় কার্যালয়ে জাতীয় ও দলীয় পতাকা সন্মানপূর্বক উত্তোলন। দিনব্যাপী দলীয় কার্যালয়ে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঐতিহাসিক ভাষণ প্রচার । জেলাধীন সকল মসজিদে মিলাদ ও দোয়া মাহফিলের আহবান এবং মন্দির-গীর্জা-প্যাগোডা সহ সকল ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানে বিশেষ প্রার্থনার আহবান। জেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয় সহ জেলাধীন সকল সাংগঠনিক দলীয় কার্যালয় ও ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান সমূহে দুস্থ ও এতিমদের মাঝে খাবার-মিষ্টি বিতরণ এবং বিতরণের আহবান । সকাল ১০.০০ টার মধ্যে অলোকার মোড় দলীয় কার্যালয়ে সমবেত । অতঃপর দলীয় কার্যালয় থেকে আনন্দ র‌্যালি নিয়ে নেতা-কর্মী ও সমর্থকবৃন্দ সহযোগে রওনা দিয়ে সকাল ১০.৩০ টার সময় রাজশাহী কলেজ চত্বরে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধার্ঘ্য অর্পণ। বিকাল ৪ টায় দলীয় কার্যালয়ের সামনে মহান দিবসটির প্রতিপাদ্য তুলে ধরে আলোচনা সভা ।
এবং বাদ মাগরিব দলীয় কার্যালয়ের সামনে মহা সমারোহে অনুষ্ঠিত হবে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের ব্যাপক কর্মসূচি ।
রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় : ১৯৭১ সালের ২৫ মার্চ বাংলাদেশের ইতিহাসের এক কালো অধ্যায়। এ দিন গভীর রাতে ঢাকাসহ সারা দেশে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী অস্ত্র নিয়ে ঝাঁপিয়ে পড়ে মুক্তিকামী নিরস্ত্র মানুষের ওপর, সূচনা করে নয় মাসব্যাপী এক নৃশংস গণহত্যার। দিনটি জাতীয়ভাবে গণহত্যা দিবস হিসেবে পালিত হয়ে আসছে।
২৫ মার্চকে ‘আন্তর্জাতিক গণহত্যা দিবস’ হিসেব বিশ্বস্বীকৃতির দাবিতে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি ২৫ মার্চ ২০২১ বৃহস্পতিবার বিকাল ৫টা ৩০-রাত ৮.০০ পর্যন্ত একটি বিশেষ অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে। ‘সেই রাতের কথা বলতে এসেছি’ শিরোনামের ওই অনুষ্ঠানে মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক কবিতা, গান, আলোচনাসভা ও চলচ্চিত্র প্রদর্শনীর পাশাপাশি রাবি কেন্দ্রীয় শহিদ মিনার বেদিতে প্রদীপ প্রজ্জ্বালন করা হবে।
অনুষ্ঠানে সম্মাানিত আলোচক হিসেবে উপস্থিত থাকবেন ড. অরুণ কুমার বসাক, প্রফেসর ইমেরিটাস, পদার্থবিজ্ঞান বিভাগ, রা.বি. এবং প্রফেসর ড. মো. মাহবুবর রহমান, অনারারি কিউরেটর ও ট্রাস্টিবোর্ডের সদস্য, গণহত্যা জাদুঘর, খুলনা। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে মাননীয় উপাচার্য প্রফেসর ড. এম. আব্দুস সোবহান, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপ-উপাচার্যদ্বয় প্রফেসর ড. আনন্দ কুমার সাহা ও প্রফেসর ড. চৌধুরী মো. জাকারিয়া উপস্থিত থাকবেন।
কর্মসূচি ও সময়সীমা নিম্নরূপ: বিকাল ৫.৩০- সন্ধ্যা ৬.৩০, কবিতা: স্বনন, রাবির সদস্যবৃন্দ, গণসঙ্গীত পরিবেশন: খেলাঘর আসর, রাজশাহীর সদস্যবৃন্দ, আলোচনাসভা: উপরে বর্ণিত।
সন্ধ্যা ৭টা, প্রদীপ প্রজ্জ্বালন,সন্ধ্যা ৭.১৫টা- রাত ৮টা,চলচ্চিত্র প্রদর্শনী : প্রামাণ্য চলচ্চিত্র: সেই রাতের কথা বলতে এসেছি, পরিচালনা: কাওসার চৌধুরী। স্থান: রাবি কেন্দ্রীয় শহিদ মিনার মুক্তমঞ্চ ও শহিদ মিনার বেদী।

SHARE