দক্ষ তরুণরাই দেশের উন্নয়নে সহায়ক হবে : মেয়র লিটন

146

স্টাফ রিপোর্টার : রাজশাহী সিটি কপোরেশনের মাননীয় মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন বলেছেন, বর্তমান সরকার অসংখ্য পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট এবং বিভিন্ন জায়গায় স্কিল ডেভেলপমেন্টের জন্যে ভোকেশনাল কোর্সগুলো চালু করেছে, আরো চালু করা হচ্ছে, একেবারে জেলা থেকে উপজেলা পর্যায় পর্যন্ত এই অগ্রগতি নিয়ে যাচ্ছে সরকার। এর লক্ষ্য হচ্ছে দক্ষ জনশক্তি গড়ে তোলা। গতকাল শনিবার সকালে রাজশাহী পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটে ‘স্কিল্স কম্পিটিশন (আঞ্চলিক পর্যায়)-২০১৮ উপলক্ষ্যে আয়োজিত র‌্যালির উদ্বোধনকালে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। মাননীয় মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন আরো বলেন, ইতোপূর্বে আমাদের বাংলাদেশ থেকে বিদেশে কর্ম করতে যারা গেছেন, তারা দক্ষতার অভাবে ভালো কাজ পেতো না, কিংবা অদক্ষ শ্রমিক হিসেবে অনেক কম অর্থ উপার্জন করতে পারতো। সেই দিক থেকে ভারত, শ্রীলংকা, ফিলিপাইন-এই সমস্ত দেশগুলো বাজারগুলো দখল করে রেখেছিল। এখন সুখের বিষয় বর্তমান সরকারের বাস্তবমুখী পদক্ষেপের কারণে আজকে বাংলাদেশের তরুণ জনশক্তি, তারা নানারকম হাতেকলমে কাজে এতো বেশি দক্ষ হয়ে উঠছে, কারণ কাজগুলো মেধাবী বাঙালির দ্রুত আয়ত্ব করা সম্ভব হচ্ছে। আমরা আশাবাদী অদূর অভিষ্যতে বাংলাদেশের বিশাল তরুণ জনগোষ্ঠী, এরা দেশের চাহিদা মিটিয়ে বিদেশে গিয়ে এতো বেশি পরিমাণ উপার্জন করে দেশে পাঠাবে, তাদের অর্থে দেশের বিশাল বাজেট হবে, উন্নয়ন হবে, কল্যান হবে। তারা নিজ পরিবার, এলাকা ও দেশের উন্নয়নে সহায়ক ভূমিকা পালন করবে। জানা গেছে, আজ সকালে বেলুন ও শান্তির প্রতীক পায়রা উড়িয়ে র‌্যালির উদ্বোধন করেন মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন। শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে র‌্যালিটি রাজশাহী পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট থেকে শুরু হয়ে শহীদ এএইচএম কামারুজ্জামান চত্বর ঘুরে পুনরায় ইনস্টিটিউটের সামনে গিয়ে শেষ হয়। র‌্যালিতে আরো উপস্থিত ছিলেন রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের প্যানেল মেয়র-২ ও ১ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর রজব আলী, রাজশাহী পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের অধ্যক্ষ প্রকৌশলী ফরিদ উদ্দিন আহম্মেদ প্রমুখ। র‌্যালি শেষে সেমিনারে প্রবন্ধ উপস্থাপন ও প্রবন্ধের উপর উন্মুক্ত আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়।

SHARE