পুঠিয়া পৌর নির্বাচনে নয়টি কেন্দ্রের মধ্যে ঝুঁকিপূর্ণ চারটি

56

এসএম আব্দুর রহমান, পুঠিয়া : পুঠিয়া পৌর নির্বাচনে প্রচার প্রচারণা শেষ হচ্ছে আজ শনিবার মধ্য রাত থেকে। ইতিমধ্যে নির্বাচন সুষ্ঠু করতে পুঠিয়া উপজেলা নির্বাচন অফিস সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে।

এবারের পৌর নির্বাচনে পৌরসভার নয়টি কেন্দ্রের মধ্যে চারটি কেন্দ্রেকে ঝুঁকিপূর্ণ ঘোষণা করছে নির্বাচন কমিশন। কেন্দ্র গুলি হলো, লস্করপুর ডিগ্রী মহাবিদ্যানিকেতন (পুঠিয়া কলেজ) কেন্দ্র, গন্ডগোহালী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্র, পালোপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্র ও ঝলমলিয়া উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্র। এসব কেন্দ্রে অতিরিক্ত আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা সার্বক্ষণিক টহলে থাকবে বলে পুঠিয়া নির্বাচন অফিস সূত্রে জানাগেছে।

পুঠিয়া উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা জয়নুল আবেদীন জানান, এবারের পুঠিয়া পৌরসভার নির্বাচনে ভোট কেন্দ্রে আইন শৃঙ্খলা রক্ষায় অতিরিক্ত পুলিশ, র‌্যাব, আনছার ভিডিপির সদস্য ছাড়াও গোয়েন্দা সংস্থার সদস্যরা মোতায়েন থাকবে। ৯টি কেন্দ্রে সার্বক্ষনিক থাকবেন ৯জন ম্যাজিস্টেড। এছাড়াও একজন নির্বাহী ম্যাজিস্টেড থাকবেন।

তিনি ভোট কেন্দ্রে গোলযোগ সৃষ্টিকারীদের বিরুদ্ধে তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা নিবেন। আগামি সোমবার ইভিএম মেশিনের মাধ্যমে বিরতিহীন ভাবে সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত ভোট গ্রহন অনুষ্ঠিত হবে। পুঠিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (তদন্ত) খালেদ হোসেন অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েনের কথা নিশ্চিত করে বলেন, ঝুঁকিপূর্ণ কেন্দ্রগুলিতে অতিরিক্ত গোয়েন্দা নজরদারি থাকবে। পাশাপশি ভোট কেন্দ্রে আইন শৃঙ্খলা রক্ষায় ৩টি মোবাইল টিম, ১টি স্টাইকিং ফোর্স এবং স্ট্যান্ডবাই ফোর্স হিসেবে পুঠিয়া থানায় পুলিশ রিজার্ভ থাকবে বলে তিনি জানান। উল্লেখ্য, আগামি ২৮ ডিসেম্বর প্রথম ধাপে পুঠিয়া পৌরসভার ভোট গ্রহন অনুষ্ঠিত হবে। পুঠিয়া পৌরসভায় মেয়র পদে আ’লীগের নৌকা প্রতিক নিয়ে রবিউল ইসলাম রবি, বিএনপির ধানের শীষ প্রতিক নিয়ে আল মামুন ও স্বতন্ত প্রার্থী হিসেবে নারিকেল গাছ নিয়ে গোলাম আজম নয়ন প্রতিদ্ব›দ্বীতা করছেন। এছাড়াও কাউন্সিলর পদে ৩৬ জন এবং মহিলা কাউন্সিলর পদে ৮ জন প্রতিদ্ব›দ্বীতা করছেন। এবারের পৌর নির্বাচনে ৯টি কেন্দ্রে ৪৮টি কক্ষে ১৬ হাজার ৬’শ ৩৩জন ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন।

SHARE