ফরিদপুর-৪ আসনে আ.লীগের ৫ ও বিএনপির ৮ জন প্রার্থী

188
ভাঙ্গা (ফরিদপুর) সংবাদদাতা : ফরিদপুর-৪ (ভাঙ্গা-সদরপুর-চরভদ্রাসন) আসনে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগে মনোনয়ন প্রত্যাশীদের তালিকা দীর্ঘ না হলেও বিএনপিতে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন বেশ কয়েকজন। দলীয় মনোনয়নপত্র যারা জমা দিয়েছেন তাদের মধ্যে এলাকায় থেকে প্রচার-প্রচারনা চালিয়েছেন দু’দলের স্বল্প সংখ্যক নেতা। এ আসনে বিএনপির মনোনয়ন কিনে এবং জমা দিয়ে বেশ আলোচনায় রয়েছেন বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির ভাইস চেয়ারম্যান ও সাবেক মন্ত্রী চৌধুরী কামাল ইবনে ইউসুফ।
জানা গেছে, বিএনপির কেন্দ্র থেকে ‘সবুজ সংকেত’ পেয়েই তিনি মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। ফরিদপুর-৪ আসন থেকে আওয়ামী লীগের মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন সাবেক এমপি, আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য কাজী জাফরউল্লাহ, সাবেক এমপি সৈয়দ হায়দার হোসেন এর ভাতিজা বিশিষ্ট শিল্পপতি সৈয়দ মঞ্জুরুল হক, ভাঙ্গা উপজেলা চেয়ারম্যান শাহাদাত হোসেন, ভাঙ্গা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ফাইজুর রহমান ও চরভদ্রাসন উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুল আজিজ মাষ্টার। এদের মধ্যে প্রচারনায় রয়েছেন কাজী জাফরউল্লাহ ও সৈয়দ মঞ্জুরুল হক।
 অন্যদিকে, বিএনপি থেকে মনোনয়নপত্র কিনে জমা দিয়েছেন সাবেক মন্ত্রী চৌধুরী কামাল ইবনে ইউসুফ, জেলা বিএনপির সভাপতি, বেগম খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা জহিরুল হক শাহাজাদা মিয়া, ভাঙ্গা উপজেলা বিএনপির সভাপতি আলহাজ্ব খন্দকার ইকবাল হোসেন সেলিম, সাবেক এমপি আকতারুজ্জামান বাবুল, সাবেক ছাত্রনেতা জেড এম দেলোয়ার হোসেন, জিয়া শিশু কিশোর সংগঠনের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি শাহ আলম রেজা, জাসাস কেন্দ্রীয় কমিটির সহ সভাপতি শাহরিয়ার ইসলাম শায়লা। বিএনপির ৮ মনোনয়ন প্রত্যাশীর মধ্যে খন্দকার ইকবাল হোসেন সেলিম ও শাহরিয়া ইসলাম শায়লা প্রচার-প্রচারনায় মাঠে রয়েছেন। এদিকে জাকের পার্টির চেয়ারম্যান আমির ফয়সাল  মনোনয়ন পত্র সংগ্রহ করেছেন।
 এ আসনের সচেতন ভোটারেরা মনে করেন বিএনপি এবং আওয়ামী লীগের মনোনয়ন সঠিক ব্যক্তিকে দেয়া হলে লড়াই হবে ত্রিমুখী। বিএনপি প্রার্থী দিতে ভুল করলে আওয়ামী লীগের প্রার্থীর সাথে লড়াই হবে বর্তমান স্বতন্ত্র এমপি মজিবুর রহমান নিক্সন চৌধুরীর সাথে। ফরিদপুর-৪ আসনে বর্তমান এমপি হলেন স্বতন্ত্র হিসাবে নির্বাচিত মজিবুর রহমান চৌধুরী নিক্সন।
SHARE