রাজশাহীর তিন পৌর নির্বাচন থেকে ছিটকে গেলেন ৯ জন

32

স্টাফ রিপোর্টার : রাজশাহীর তিনটি পৌরসভার নির্বাচন থেকে ছিটকে পড়লেন ৯ জন প্রার্থী। যাচাই-বাছাই শেষে মঙ্গলবার নির্বাচন কমিশন তাদের মনোয়নপত্র বাতিল ঘোষণা করেছে। এদের মধ্যে তিন মেয়র প্রার্থী, পাঁচজন ওয়ার্ড কাউন্সিলর প্রার্থী এবং একজন সংরক্ষিত নারী ওয়ার্ড কাউন্সিলর পদের প্রার্থীর মনোনয়ন বাতিল হয়েছে।

সিনিয়র জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা সাইফুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। আগামী ১৬ জানুয়ারি রাজশাহীর গোদাগাড়ী উপজেলার কাঁকনহাট, বাগমারা উপজেলার ভবানীগঞ্জ ও বাঘা উপজেলার আড়ানী পৌরসভায় এই নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। মঙ্গলবার মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাইয়ের দিন ঠিক ছিল।

নির্বাচন কর্মকর্তা জানান, কাঁকনহাট পৌরসভায় স্বতন্ত্র দুই মেয়র প্রার্থীর মনোনয়ন বাতিল হয়েছে। তারা হলেন আব্দুল্লাহীল কাফি ও রনজুর রহমান। মনোনয়নপত্র বৈধ ঘোষণা করা হয়েছে বর্তমান মেয়র ও পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি আবদুল মজিদ, আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী একেএম আতাউর রহমান খান, বিএনপির প্রার্থী হাফিজুর রহমান হাফিজ এবং জাতীয় পার্টির প্রার্থী মোল্লা রুবর হোসেন। কাঁকনহাট পৌরসভায় কাউন্সিলর পদের তিনজনের প্রার্থীতা বাতিল করা হয়েছে। বৈধ ঘোষণা করা হয়েছে ৩৩ জনের। সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর পদের সবার মনোনয়ন বৈধ ঘোষণা করা হয়েছে। এই পদে প্রার্থীর সংখ্যা ১৩ জন।

ভবানীগঞ্জ পৌরসভায় চার মেয়র প্রার্থীরই মনোনয়নপত্র বৈধ ঘোষণা করা হয়েছে। তারা হলেন- আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী ও বর্তমান মেয়র আবদুল মালেক, বিএনপি মনোনীত প্রার্থী আব্দুর রাজ্জাক প্রামানিক এবং স্বতন্ত্র প্রার্থী কামাল হোসেন ও এসএম মামুনুর রশিদ। সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর পদে এখানে মোট ১৩ জন মনোনয়নপত্র দাখিল করেন। এরমধ্যে একজনকে বাতিল ঘোষণা করা হয়েছে। বৈধ প্রার্থী রয়েছেন ১২ জন। সাধারণ ওয়ার্ড কাউন্সিলর পদে এখানে ২৮ জনের প্রার্থীতা বৈধ ঘোষণা করা হয়েছে। বাতিল হয়েছে দুইজনের মনোনয়নপত্র।

আড়ানী পৌরসভায় এক মেয়র প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বাতিল হয়েছে। বৈধ মেয়র প্রার্থীর সংখ্যা তিনজন। তারা হলেন- আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী শহিদুজ্জামান শাহীন, স্বতন্ত্র প্রার্থী ও বর্তমান মেয়র মুক্তার হোসেন এবং বিএনপির প্রার্থী তোজাম্মেল হক। স্বতন্ত্র প্রার্থী পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি রিবন আহাম্মেদ বাপ্পির মনোনয়নপত্র বাতিল ঘোষণা করা হয়েছে। আড়ানীতে কাউন্সিলর পদের ২৯ এবং সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর পদের ১০ প্রার্থীর সবার মনোনয়নপত্র বৈধ ঘোষণা করা হয়েছে।

সিনিয়র জেলা নির্বাচন অফিসার সাইফুল ইসলাম বলেন, ভোটের মাঠে সকল প্রার্থী সমান সুযোগ পাবেন। নির্বাচনের আগেই ইভিএম বিষয়ে জনগণকে সচতেন করা হবে। প্রয়োজনে প্রতীকি নির্বাচন করা হবে।

SHARE