বাঘায় স্বামীর নির্যাতনের শিকার নওশীন

172

বাঘা : রাজশাহীর বাঘায় নেশাগ্রস্থ স্বামীর নির্যাতনে আহত হয়ে হাসপাতালে কাতরাচ্ছেন স্ত্রী শওশীন বেগম। গুরুতর অবস্থায় পরিবারের লোকজন শুক্রবার রাতে তাকে বাঘা হাসপাতালে ভর্তি করেছেন। গৃহবধু নওশীন উপজেলার মহদীপুর গ্রামের ইকবাল হোসেনের স্ত্রী। তার বাবার বাড়ি একই উপজলার অমরপুর গ্রামে। ৭ বছর আগে নজরুলের ছেলে ইকবালের সাথে বিয়ে হয় এখলাছুর রহমান নেন্টুর মেয়ে নওশীনের।

শনিবার সরেজমিন হাসপাতালে গিয়ে দেখা যায়, মহিলা ওয়ার্ডের বেডে যন্ত্রনায় কাতর নওশীন। দু’চোখে কালশিরার দাগ। একই অবস্থা হাতে পিঠেও। কথা হলে বেডের পাশে বসে থাকা নানী জুলেখা জানান, আজকের এ অবস্থাই নতুন নয়। বিয়ের পর থেকে নির্যাতন সহ্য করে সংসার করছে। এর মাঝে ১টি কণ্যা সন্তানও হয়েছে। সবকিছু মিলে সংসার জীবনে শান্তি পায়নি কোনদিন।

নওশীন জানান, লেখা পড়া কালিন সময়ে প্রেম করে তাদের বিয়ে হয়েছে। সে সময় নেশা করতো না। বিয়ের দুই বছর পর নেশায় আসক্ত হয়ে পড়েছে। নিয়মিত ইয়াবা ট্যাবলেট সেবন করে। নিষেধ করলেই শুরু করে নির্যাতন। একমাত্র কণ্যার মুখের দিকে চেয়ে সংসার করছেন। এর মাঝেও লেখা পড়া ছাড়েননি। চারঘাট হাদি কলেজ থেক্রে ডিগ্রী পরীক্ষা দিবেন বলে জানান নওশীন। গত শুক্রবার রাতেও নেশা করে বাড়ি ফেরে স্বামী ইকবাল। জিজ্ঞাসা করতেই কিল-ঘুষি ও কামড়িয়ে আমাকে গুরুতর আহত করে।

নানা আলী হুসেন মন্টু মাষ্টার জানান, নির্যাতনের খবর পেয়ে হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করেছেন। এ বিষয়ে মামলা করবেন বলে জানান তিনি।

বাঘা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মহসীন আলী বলেন, হাসপাতালে নেওয়ার আগে থানায় তাকে দেখিয়েছেন। অভিযোগের প্রেক্ষিতে তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যাবস্থা নেওয়া হবে বলে জানান ওসি।

SHARE