বাগমারা উপজেলা আ’লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন,সভাপতি এনামুল হক, সম্পাদক সারওয়ার

25

হেলাল উদ্দীন,বাগমারা : রাজশাহীর বাগমারা উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার (১৪নভেম্বর) উপজেলা সদর ভবানীগঞ্জ নিউমার্কেট মিলনায়তনে এ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। প্রথম অধিবেশনে সভাপতিত্ব করেন রাজশাহী-৪ (বাগমারা) আসনের সংসদ সদস্য উপজেলা আ’লীগের সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার এনামুল হক। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে টেলিকনফারেন্সের মাধ্যমে বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক, সড়ক পরিবহণ ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ গোলাম সারওয়ার আবুলের পরিচালনায় প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখেন, বাংলাদশে আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এস.এম. কামাল হোসেন। ত্রি-বাষিক সম্মেলনের উদ্বোধন করেন রাজশাহী জেলা আ’লীগের সভাপতি সাবেক সংসদ সদস্য মেরাজ উদ্দিন মোল্লা। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন সাবেক এমপি বেগম আকতার জাহান, বাংলাদেশ যুব মহিলা লীগের সহ-সভাপতি সংরক্ষিত আসনের এমপি আদিবা আনজুম মিতা, রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ডাবলু সরকার, জেলা আ’লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বাঘা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান লায়েব উদ্দীন লাভলু, বাগমারা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অনিল কুমার সরকার প্রমূখ।

এদিকে প্রথম অধিবেশন শেষে জেলা আ’লীগের সভাপতি সাবেক এমপি মেরাজ উদ্দিন মোল্লার সভাপতিত্বে সম্মেলন স্থলেই অনুষ্ঠানের প্রধান বক্তা বাংলাদেশ আ’লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এসএম কামাল হোসেন উপস্থিত কাউন্সিলর ও নেতৃবৃন্দের সর্বসম্মতিক্রমে ইঞ্জিনিয়ার এনামুল হক এমপি কে বাগমারা উপজেলা আ’লীগের পুনরায় সভাপতি ও ভারপ্রাপ্ত সাধারন সম্পাদক অধ্যক্ষ গোলাম সারওয়ার আবুল কে সাধারন সম্পাদক, ভবানীগঞ্জ পৌর আ’লীগের সভাপতি ও মেয়র আব্দুল মালেক মন্ডল কে সিনিয়র সহ-সভাপতি ও সিরাজ উদ্দিন সুরুজ কে যুগ্ম সাধারন সম্পাদক হিসেবে ঘোষনা করেন।

ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন উপলক্ষে অনুষ্ঠানের আগে জাতীয় এবং দলীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়। পরে শান্তির প্রতীক পায়রা এবং বেলুন উড়িয়ে দেয়া হয়।

প্রধান অতিথি হিসেবে টেলিকনফারেন্সের মাধ্যমে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক, সড়ক পরিবহণ ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, বাংলাদশে আওয়ামী লীগ স্বাধীনতার পক্ষের সংগঠন। দেশ ও জনগণের কল্যাণে কাজ করাই আ’লীগ সরকারের মূল উদ্দেশ্য। আওয়ামী লীগ কারো বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করে না। শেখ হাসিনা ক্ষমতায় আছে বলে মানুষ নিশ্চিন্তে ঘুমাতে পারছে। অসহায় মানুষ নানা রকম সহযোগিতা পাচ্ছে। নেতৃত্ব জোর করে পাওয়া যায় না। জনগণের মন জয় করে নেতৃত্বের আসনে বসতে হয়। আগুণ সন্ত্রাস চালিয়ে ক্ষমতায় আসা যায় না। দেশে শান্তিপূর্ণ কর্মসূচী পালনের অধিকার সবার আছে।

তিনি আরো বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান যে স্বপ্ন নিয়ে দেশকে স্বাধীন করেছেন তা বাস্তবায়ন করে চলেছেন তাঁরই সুযোগ্য কন্যা আ’লীগ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। শেখ হাসিনার বলিষ্ঠ নেতৃত্বে দেশ এগিয়ে চলেছে।

যারা জনগণের সাথে আগুন নিয়ে খেলা করে তাদেরকে ক্ষমতায় আর দেখতে চাই না। দেশে বিশৃংখলা করতে গেলে জনগনই তার জবাব দেবে। দেশবাসীকে সজাগ থাকতে হবে, সচেতন থাকতে হবে। স্বাধীনতা বিরোধী শত্রæরা সারা জীবন দেশের মানুষের অকল্যাণ কামনা করেছেন। দেশে সব সময় জ্বালাও পোড়ায় আন্দোলন চালিয়েছে। ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা চালিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে হত্যার চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়েছেন। প্রধান অতিথি আরো বলেন, যারা দলের ক্রান্তিলগ্নে দূরে ছিল তাদেরকে কোন পদ দেওয়া যাবে না। যারা দলের জন্য সর্বদায় পরিশ্রম করেছেন, বিপদে আপদে দলের পাশে থেকেছেন তাদেরকে অবশ্যই মূল্যায়ন করতে হবে। আমাদের সবাইকে প্রধানমন্ত্রীকে অনুসরণ করতে হবে। শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করতে হবে। আ’লীগ সরকার দক্ষতার সাথে মহামারী করোনা মোকাবলো করে চলেছে। সবাইকে স্বাস্থ্য বিধি মেনে মাস্ক পরে চলার আহŸান জানান তিনি।

সম্মেলনে অতিথি হিসেবে আরো উপস্থিত ছিলেন, জেলা আ’লীগের সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ মোস্তাফিজুর রহমান মানজাল, সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক অধ্যাপক আব্দুস সামাদ, আহসানুল হক মাসুদ, রাজশাহী জজ কোর্টের পিপি এ্যাড. ইব্রাহীম হোসেন, কৃষি বিষয়ক সম্পাদক অধ্যক্ষ কুমার প্রতীক দাশ রানা, জেলা মহিলা লীগের সভাপতি মর্জিনা খাতুন, তাহেরপুর পৌর মেয়র আবুল কালাম আজাদ, ভবানীগঞ্জ বনিক সমিতির সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম হেলাল, ভবানীগঞ্জ সরকারি বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের অধ্যক্ষ হাতেম আলী, পুঠিয়া উপজেলা চেয়ারম্যান জিএম হিরা বাচ্চু, চারঘাট উপজেলা চেয়ারম্যান ফকরুল ইসলাম, জেলা যুবলীগের সভাপতি আবু সালেহ, সাধারণ সম্পাদক আলী আজম সেন্টু, জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি হাবিব প্রমুখ। উক্ত সম্মেলনে উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নের চেয়ারম্যান, আ’লীগ ও অংগ সহযোগি সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

SHARE