বাজারে এসেছে ইলিশ ও নতুন সবজি

44

স্টাফ রিপোর্টার : ইলিশ শিকারের ২২ দিনের নিষেধাজ্ঞা শেষে রাজশাহীর বাজারে মিলছে ইলিশ। যদিও রাজশাহীর পদ্মায় কাঙ্খিত ইলিশ পাচ্ছেন না জেলেরা। মাছ ব্যবসায়ী ও জেলেরা বলছেন, নিষেধাজ্ঞা শেষে রাজশাহীর নদীতে তেমন ইলিশ পাওয়া যাচ্ছে না। গত বছরগুলোতে এ সময় তারা ভালো ইলিশ পেলেও এবছরের চিত্র ভিন্ন। আগের বছরগুলোতে নিষেধাজ্ঞা শেষেই প্রচুর ইলিশ পাওয়া গেছে। কিন্তু এবার ইলিশ বড়ই হয়নি। এখনও জাটকাই পাওয়া যাচ্ছে। আর বাজারে যে ইলিশগুলো দেখা যাচ্ছে সেগুলোর অধিকাংশই বাইরের। বাজারে প্রতিকেজি ইলিশ ৮০০ থেকে ১ হাজার ২০০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হতে দেখা গেছে।
এদিকে, বাজারে মিলছে শীতকালিন নতুন সবজি। আর এসব সবজি চড়া দরেই বিক্রি হচ্ছে। চারিদিকে বন্যা পরিস্থিতির কারণে শীতের আগাম সবজির সরবরাহ কম থাকায় চড়া দাম এমনটায় বলছেন ব্যবসায়ীরা।
গতকাল শুক্রবার (৬ নভেম্বর) নগরীর কোর্ট বাজার, সাহেব বাজার ও মাস্টারপাড়া ঘুরে দেখা যায়, শীতকালিন সবজি ফুলকপি ১০০ টাকা কেজি দরে, সিম ১৪০ থেকে ১৬০ টাকা কেজি, টমেটো ১৬০ টাকা, বেগুন- কাটা বেগুন বিক্রি হচ্ছে ৬০ টাকা ও বাঁধাকপি ৩০ থেকে ৬০ টাকা পিস দরে বিক্রি হচ্ছে।
এদিকে বাজারে প্রতিকেজি পটল ৬০ টাকা, গাজর ৮০ টাকা, মিষ্টিকুমড়া ৪০ টাকা, হাইব্রিড মিষ্টিকুমড়া ৩৫ টাকা, হাইব্রিড শসা-দেশি শসা ৪০ থেকে ৫০ টাকা, কাকরোল ৮০ টাকা, পেঁপে ৩০ টাকা, করলা ৭০ টাকা, কচু ৫০ টাকা, বরবটি ৬০ টাকা, ঢেঁড়শ ৬০ টাকা, সবুজ শাক ৪০ টাকা, কলমি শাক ২০ টাকা, লাল শাক ৪০ টাকা, পালং শাক ৭০ থেকে ৮০ টাকা, পুুুুঁইশাক ৩০ টাকা, মুলা ৫৫ থেকে ৬০ টাকা, ডুমুর ৫০ টাকা, ঝিংগা ৬০ টাকা, কলা ৩০ টাকা হালি, চাউল কুমড়া ৪০ টাকা পিস ও লাউ ৪০ টাকা পিস। এছাড়া, কাঁচামরিচ ১৬০ টাকা, রসুন ১০০ টাকা, দেশি রসুন ১৪০ টাকা, বার্মা আদা ৮০ থেকে ১০০ টাকা কেজি, দেশি আদা ১০০ থেকে ১২০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে।
এদিকে, মাছের মধ্যে গলদা চিংড়ি ১ হাজার টাকা কেজি, ছোট চিংড়ি ৪০০ টাকা কেজি, পাবদা ৫০০ থেকে ৮০০ টাকা কেজি, গুচি ৮০০ টাকা কেজি, রুই ২৫০ থেকে ২৮০ টাকা কেজি, আইর ১ হাজার ২০০ টাকা থেকে ১ হাজার ৩০০ টাকা কেজি, কই ৪০০ টাকা কেজি , দেশি কই ১ হাজার কেজি, কাতল ২৮০ থেকে ৩২০ টাকা কেজি, দেশি পাঙ্গাস ৮০ থেকে ৯০ টাকা কেজি, নদীর পাঙ্গাস ১ হাজার ৪০০ থেকে ১ হাজার ৫০০ টাকা কেজি ও চিতল ৮০০ থেকে ১ হাজার টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে।
চালের মধ্যে মিনিকেট ৫৪ থেকে ৫৬ টাকা কেজি, আঠাশ চাল ৫২ থেকে ৫৪ টাকা কেজি, বাসমতি চাল ৬০ টাকা কেজি, নাজিরশাল ৬০ টাকা কেজি, চিনিগুড়া চাল ৯০ টাকা কেজি ও কালোজিরা চাল ৮৫ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে।
রাজশাহী কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের উপ-পরিচালক শামসুল হক বলেন, আগামী ১৫ দিনের মধ্যে বাজারে নতুন আলু-পেঁয়াজ আসবে। রাজশাহীর আলু আসতে দেরি হলেও নীলফামারি, কুড়িগ্রাম ঐসব অঞ্চলের আলু আসতে শুরু করবে। আশা করা যায় শীতকালিন নতুন সবজি এবং আলু-পেঁয়াজ বাজারে আসলে দাম কমে যাবে।

SHARE