ধর্ষণের মিথ্যা মামলা করায় গৃহবধূর ৫ বছরের কারাদণ্ড

44

অনলাইন ডেস্ক : জয়পুরহাট সদর উপজেলার সুন্দরপুর গ্রামে ধর্ষণের মিথ্যা মামলা করায় বাদিনী লিলিফা বানু (৩৪) নামে এক গৃহবধূকে ৫ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত। এছাড়াও তাকে ৩ হাজার টাকা জরিমানা ও অনাদায়ে আরো ২ মাস সশ্রম কারাদণ্ড দেয়া হয়।

সোমবার বিকালে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক রুস্তম আলী এ রায় দেন।

এছাড়াও মামলার আসামি একই এলাকার আব্দুল বারিকের ছেলে রুহুল আমিনকে মামলা থেকে খালাস দেয়া হয়। দণ্ডপ্রাপ্ত লিলিফা বানু একই এলাকার শাহজাহান আলীর স্ত্রী।

মামলার বিবরণে বলা হয়েছে, ২০১৯ সালে ২৩ জুন রাতে জয়পুরহাট সদরের সুন্দরপুর গ্রামের ওই গৃহবধূর স্বামী তার বাড়িতে না থাকার সুযোগে রুহুল আমিন প্রাচীর টপকে গৃহবধূর ঘরে প্রবেশ করে তাকে ধর্ষণ করে। এ সময় তার চিৎকারে পরিবারের লোকজন ও স্থানীয়রা এগিয়ে এসে আসামিকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে। এ ঘটনায় ওই গৃহবধূ বাদী হয়ে আদালতে একটি ধর্ষণের মামলা করে।

মামলার দুই মাস পর পুলিশ আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করে। আদালতে আইনজীবীদের পাল্টাপাল্টি যুক্তিতর্ক এবং বাদী ও সাক্ষীদের জিজ্ঞাসাবাদের এক পর্যায়ে জানা যায়, মামলার আসামি রুহুল আমিনের সাথে বাদীর পারিবারিক বিরোধ ছিল বলে তাকে ফাঁসাতেই এমন ধর্ষণের মিথ্যা মামলা করা হয়েছে। এতে বাদীকে ৫ বছরের কারাদণ্ড দেন আদালত।

SHARE