বাগমারায় দুর্নীতির সাগরে পল্লী বিদ্যুতের কর্মকর্তা বাদশা মিয়া

22

হেলাল উদ্দীন,বাগমারা রাজশাহীর বাগমারার তাহেরপুর পৌরসভায় অবস্থিত নাটোর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির অধিনে তাহেরপুর সাবষ্টেশন ইনচার্জ বাদশা মিয়ার বিরুদ্ধে নানা অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ পাওয়া গেছে। বৃহস্পতিবার ওই এলাকার প্রায় ৪ শত লোকের স্বাক্ষরিত তাহেরপুর সাবষ্টেশনের ইনচার্জ এর বিরুদ্ধে এক অভিযোগপত্র প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য নাটোর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার, নাটোর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি বাগমারা জোনাল অফিস, ও উপজেলা নির্বাহী অফিসে একযোগে দাখিল করেছেন। অভিযোগকারীরা অফিসের কর্মকর্তার অনিয়ম ও বেপয়ারা চাঁদাবাজিতে চরম ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। এ ব্যাপারে এলাকাবাসী জরুরী ভিত্তিতে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

জানা গেছে, নাটোর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির অধিনে তাহেরপুর সাবষ্টেশনের ইনচার্জ বাদশা মিয়া দীর্ঘ দিন ধরে একই অফিসে থাকাকালীন এলাকায় একটি চক্রের ছত্রছায়ায় বিদ্যুৎ সংযোগ ও বিল সংশোধনসহ নানা কাজে গ্রাহকদের কাছে অতিরিক্ত টাকা আদায় করেন। অভিযোগপত্রের প্রধান আবেদনকারী শরিফুল ইসলাম জানান, চলতি অর্থ বছরে ওই এলাকায় বিদ্যুৎ সংযোগের নামে তাহেরপুর সাবষ্টেশন ইনচার্জ বাদশা মিয়া বিভিন্ন জনের কাছে ৫-৮ হাজার টাকা করে অতিরিক্ত অর্থ আদায় করেছেন। একই ভাবে এলাকার বিদ্যুৎ ব্যবহারকারী গ্রাহক মাহবুর রহমান, ফেরদৌস, উজ্জ্বল, আব্দুল, আমজাদসহ ১৫/১৬ জন গতকাল বৃহস্পতিবার বাগমারা প্রেস ক্লাবে এসে অভিযোগ করে বলেন, তাহেরপুর সাবষ্টেশন ইনচার্জ বাদশা মিয়ার কাছে অতিরিক্ত বিল, মিটার নষ্টসহ কোন বিষয়ে কাজে গেলে টাকা ছাড়া কাজ হয় না। পরিমিত অর্থ না দিলে গ্রাহকদেরকে দিনের পর দিন হয়রানি করেন তিনি। এছাড়া স্থানীয় প্রভাবশালীদের ইন্ধনে বাজারের বিভিন্ন দোকানের মিটার খুঁজে কম বিল হবার নামে প্রতারণা করে অর্থ আদায়ের ফাঁদ পাতেন বলে তারা অভিযোগ করেন। গ্রাহকদের সাথে দুর্ব্যহার ও খারাপ আচরনের কারণে শত শত বিদ্যুৎ গ্রাহক ক্ষোভ ও হতাশা প্রকাশ করেছেন। হয়রানীর শিকার এসব গ্রাহকরা সম্প্রতি পল্লী বিদ্যুৎতে অফিসে বিল দিতে এসে ভৌতিক বিলের বিড়ম্বনায় পড়ে এতে তার কোন সহযোগীতা পাননি। অফিসে কাজে গিয়ে বিদ্যুৎ গ্রাহকদের উল্টো ভুক্তভোগীদের হুমকি-ধামকি দিয়ে থাকেন। বিদ্যুৎ ব্যবহারকারী গ্রাহক এমন উর্দ্ধত আচরন অবহেলা ও গাফলতি তদন্ত করে ওই কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার দাবী জানিয়েছেন ।

অভিযোগের ঘটনা পুরোপুরি অস্বীকার না করে এটি একটি সামান্য ভুল বুঝাবুঝির কারনে হয়েছে বলে জানিয়েছেন তাহেরপুর সাব-স্টেশনের ইনচার্জ বাদশা মিয়া।

এ ব্যাপারে যোগাযোগ করা হলে নাটোর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-১ এর ডিপুটি জেনারেল ম্যানেজার (ডিজিএম) আলহাজ্ব সুলতান মাহমুদ অভিযোগ পাওয়ার বিষয় স্বীকার করে বলেন, তাহেরপুর সাবষ্টেশন ইনচার্জের বিরুদ্ধে একটি অভিযোগপত্র পেয়েছি। কেন কি বিষয়ে তার বিরুদ্ধে অভিযোগ বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে। এছাড়া বিষয়টি নাটোর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-১ জেনারেল ম্যানেজার এর সাথে কথা বলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানান তিনি।

SHARE